kalerkantho


নির্বাচনী কার্যালয় ভাঙচুর

নালিতাবাড়ীতে স্বতন্ত্র প্রার্থীর সভায় হামলা, আহত ১০

শেরপুর প্রতিনিধি    

১৬ মার্চ, ২০১৬ ১৬:৩২



নালিতাবাড়ীতে স্বতন্ত্র প্রার্থীর সভায় হামলা, আহত ১০

শেরপুরের নালিতাবাড়ী উপজেলার বাঘবের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে ঘিরে আওয়ামী লীগ ও বিদ্রোহী স্বতন্ত্র প্রার্থী মুখোমুখি অবস্থান নিয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার রাতে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থীর সমর্থকদের হামলায় স্বতন্ত্র প্রার্থীর চার সমর্থকসহ উভয় পক্ষে ১০ জন আহত হয়েছে। এ সময় ভাঙচুর করা হয়েছে স্বতন্ত্র প্রার্থীর ছয়টি নির্বাচনী প্রচার কেন্দ্র। এ ঘটনায় ওই ইউনিয়নে থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।

উপজেলা আওয়ামী লীগের কোষাধ্যক্ষ ও স্বতন্ত্র প্রার্থী হাসানুজ্জামান রিয়াদ অভিযোগ করে বলেন, "বাঘবের ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে মোটরসাইকেল প্রতীক নিয়ে ‌আমি স্বতন্ত্র প্রার্থী। গতকাল মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে বাঘবেড় বাজারে আমি আমার নির্বাচনী প্রচার কেন্দ্রের সামনে বক্তব্য রাখছিলাম। এ সময় আওয়ামী লীগ প্রার্থী আব্দুস সবুরের কর্মী সমর্থকরা আমার সমাবেশের ওপর লাঠিসোঁটা নিয়ে হামলা চালায়। এতে অন্তত ১০ জন আহত হন। আহতদের মধ্যে কালিনগর গ্রামের মো. সোহরাবের ছেলে মো. আরিফ (২০), একই গ্রামের বদন সরকারের ছেলে আরিফ সরকার (২২), আক্তার আলীর ছেলে আনোয়ার হোসেন (২২) ও শিমুলতলা গ্রামের আলী হোসেনের ছেলে ইয়াকুব আলী (২০) নালিতাবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন। "  

এ ঘটনার পরে রাতেই আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থীর কর্মী-সমর্থকরা কালিনগর, শিমুলতলা পল্লীবিদ্যুৎ, উত্তর রাণীগাঁও ও জাঙ্গালিয়াকান্দাসহ বেশ কয়েকটি এলাকায় তাঁর নির্বাচনী প্রচারকেন্দ্র ভেঙ্গে ফেলে বলে অভিযোগ করেন তিনি। এ ব্যাপারে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী আব্দুস সবুর বলেন, "ঘটনাটি দুঃখজনক। তবে আমি যতটুক জেনেছি, রাত সাড়ে ৯টায় বাঘবের বাজারে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী উত্তপ্ত বক্তব্য প্রদানকালে হাবুল মিয়া নামে বয়োজ্যেষ্ঠ এক লোক তাঁর বক্তব্যের প্রতিবাদ করেন। এ নিয়ে স্থানীয় বাসিন্দাদের সঙ্গে কথাকাটাকাটির জের ধরে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যায়। এ সময় বিবাদ থামাতে গিয়ে বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থকদের হামলায় হাবিবুর রহমান লিটন নামে আমার এক কর্মী আহত হন। তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। "
 
এ ব্যাপারে নালিতাবাড়ী থানার ওসি এ কে এম ফসিহুর রহমান বলেন, "পরিস্থিতি বর্তমানে নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। এখন পর্যন্ত কোনো পক্ষের অভিযোগ পাইনি। পেলে আইনি ব্যবস্থা নেব। "  

 


মন্তব্য