kalerkantho

বুধবার । ১৮ জানুয়ারি ২০১৭ । ৫ মাঘ ১৪২৩। ১৯ রবিউস সানি ১৪৩৮।


শ্যামনগরে বিএনপি প্রার্থীর স্বজন ও কর্মীদের বিরুদ্ধে মামলা

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি   

১৪ মার্চ, ২০১৬ ২০:৪১



শ্যামনগরে বিএনপি প্রার্থীর স্বজন ও কর্মীদের বিরুদ্ধে মামলা

নৌকার পরাজয় ঠেকাতে ধানের শীষের প্রার্থীর স্বজন ও কর্মীদের বিরুদ্ধে হয়রানিমূলক মামলা দেওয়ার অভিযোগে উঠেছে। গতকাল রবিবার রাতে সাতক্ষীরার শ্যামনগর থানায় এ মামলা দায়ের করা হয়।

শ্যামনগর উপজেলার গাবুরা ইউনিয়নে প্রথম ধাপের ইউপি নির্বাচনে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী মাসুদুল আলম জানান, তার ইউনিয়নে নৌকা প্রতীক নিয়ে ভোট করছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক জি এম শফিউল আজম লেনিনের ভাই জি এম আলী আজম। মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার আগে থেকেই তাকে নির্বাচনে না দাঁড়ানোর হুমকি দেন শফিউল আজম লেনিন ও তার লোকজন। মনোনয়নপত্র দাখিলের পর থেকে তাকে কয়েক দফায় মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের জন্য হুমকি দেওয়া হয়েছে। কয়েকদিন ধরে জি এম আলী আজমের মোটরসাইকেল শো-ডাউনে বিএনপিকর্মীরা বোমা হামলা করবে বলে নৌকা প্রতীকের কর্মীরা অপপ্রচার চালিয়ে আসছিল।

এদিকে, হয়রানি করার জন্য আলী আজমের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে সন্দেহে গতকাল রবিবার দুপুরে শ্যামনগরে ভোটগ্রহণ নিয়ে এক বিশেষ সভায় তিনি জেলা প্রশাসক আবুল কাশেম মো. মহিউদ্দিনকে বিষয়টি অবহিত করেন। তিনি অভিযোগ করে বলেন, জেলা প্রশাসককে অবহিত করায় প্রতিপক্ষরা তার ওপর ক্ষিপ্ত হয়।

আলী আজম অভিযোগ করে আরো বলেন, নৌকা প্রতিকের কর্মীরা রবিবার রাত ৮টার দিকে উপজেলার লক্ষীখালি বাজারে নির্বাচনী সভায় যাওয়ার পথে চৌদ্দরশি, চাঁদনীমুখা ও খলিষাবুনিয়ার তিন রাস্তার মোড়ে আমি ও আমার (ধানের শীষ প্রতীক) লোকজন পরিকল্পিতভাবে তাদের ওপর বোমা নিক্ষেপ ও মোটরসাইকেলে অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটিয়েছে বলে মিথ্যা প্রচার করা হয়। পরে পরিকল্পিত ওই ঘটনা উল্লেখ করে রাতেই শ্যামনগর থানায় বিষ্ফোরক দ্রব্য আইনে একটি মামলা (১৬) দায়ের করা হয়।

জানা গেছে, এ ঘটনায় আলী আজমের পক্ষের লোক খলিষাবুনিয়া গ্রামের আজিজুল ইসলাম বাদী হয়ে মাসুদুল আলমের ভাই জহুরুল আলম হেলাসহ নির্বাচন কর্মীদের আসামি করে মামলা দায়ের করেছেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে জিএম আলী আজম বলেন, তাদের ওপর এ হামলা ও বোমাবাজি করে নির্বাচনে জিততে চেয়েছে বিএনপি।  

এ ব্যাপারে মামলার তদন্তকারি কর্মকর্তা শ্যামনগর থানার উপপরিদর্শক নাজমুল হুদা জানান, ঘটনার প্রাথমিক সত্যতা পাওয়ায় এ মামলা রেকর্ড করা হয়েছে। তদন্তে নির্দোশ প্রমানিত হলে মামলার ফাইনাল দেওয়া হবে।


মন্তব্য