kalerkantho


ধামরাইয়ে জনপ্রতিনিধি কর্তৃক শিক্ষা অফিসারকে মারধরের অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক, সাভার   

১৪ মার্চ, ২০১৬ ২০:১৩



ধামরাইয়ে জনপ্রতিনিধি কর্তৃক শিক্ষা অফিসারকে মারধরের অভিযোগ

সংস্কারের তালিকায় পছন্দের স্কুলের নাম না থাকায় উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান কার্যালয়ে ঢুকে উপজেলা প্রথমিক শিক্ষা অফিসারকে লাঞ্চিত করেছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। আজ সোমবার দুপুরে ধামরাই উপজেলা শিক্ষা অফিস কার্যালয়ে এ ঘটনাটি ঘটে।

লাঞ্চিত শিক্ষা অফিসার দৌলুতর রহমান জানান, সরকার কর্তৃক উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের ১০টি স্কুলের সংস্কারের জন্য তালিকা চাওয়া হয়। পরবর্তীতে স্থানীয় সংসদ সদস্য এম এ মালেক ১০টি স্কুল নির্বাচিত করে দেন। কিন্তু উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান মোসাদ্দেক হোসেনের সুপারিশ করা স্কুলের নাম ওই তালিকায় না থাকায় তিনি তাকে (শিক্ষা কর্মকর্তা) বিগত কয়েক দিন ধরে শাষাতে থাকেন। এ ঘটনার পর সোমবার দুপুরে উপজেলা শিক্ষা অফিসে তাঁর কার্যালয়ে ঢুকে প্রথমে অকথ্য ভাষায় গালি-গালাজ করতে থাকেন ভাইস চেয়ারম্যান মোসাদ্দেক হোসেন। এ সময় তিনি স্থানীয় সংসদ সদস্যের জ্ঞাতসারে সব হয়েছে বলে বিষয়টি তাকে বোঝানোর চেষ্টা করেন। কিন্তু বিষয়টি তিনি আমলে না নিয়ে উত্তেজিত হয়ে তাঁকে সকলের সামনে এলোপাতাড়ি চড়-থাপ্পড় ও কিল-ঘুষি মারতে থাকেন। এক পর্যায়ে অফিসের অন্যান্য কর্মকর্তা-কর্মচারীরা ছুঁটে এলে তিনি সেখান থেকে দ্রুত চলে যান। বিষয়টি জেলা প্রশাসকসহ উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে বলেও জানান তিনি।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শরিফুল ইসলাম বলেন, বিষয়টি কী ঘটেছে সেটা শিক্ষা কর্মকর্তা নিজেই ভালো করে জানেন।

তাই পরবর্তীতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ তিনিই নিবেন। ইতিমধ্যে শিক্ষা কর্মকর্তা তাঁর উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের বিষয়টি জানিয়েছেন।

এদিকে উপজেলা শিক্ষা অফিসারকে মারধরের ব্যাপারে ভাইস চেয়ারম্যান মোসাদ্দেক হোসেন জানান, তিনি শিক্ষা অফিসারকে গালি-গালাজ করেছেন মাত্র। সেখানে মারধরের কোন ঘটনা ঘটেনি।


মন্তব্য