kalerkantho


মৌলভীবাজারে ডাকাতি, ২০ লাখ টাকার মালামাল লুট

নিজস্ব প্রতিবেদক, মৌলভীবাজার    

১৪ মার্চ, ২০১৬ ১২:৫১



মৌলভীবাজারে ডাকাতি, ২০ লাখ টাকার মালামাল লুট

মৌলভীবাজার শহরেরর বনশ্রী এলাকায় সাবেক পৌর কমিশনার ও ব্যবসায়ী মো. ইউসুফ আলীর বাসায় ডাকাতি সংঘটিত হয়েছে। আজ সোমবার ভোরে একদল ডাকাত ঘরে প্রবেশ করে বাসার লোকজনদের অস্ত্রের মূখে জিম্মি করে একটি কক্ষে আটকে রাখে।

এ সময় তারা ৪৫ ভরি স্বর্ণালংকার, চার লাখ টাকা, একটি মোটরসাইকেল, কয়েকটি মোবাইল সেটসহ মূল্যবান মালামাল লুট করে।  

বাড়ির মালিক মো. ইউসুফ আলী জানান, ১৫-২০ জনের একদল ডাকাত ফজরের আজানের একটু আগে তার ডুপ্লেক্স বাড়িতে প্রবেশ করে। বাড়ির একটি কক্ষে তার বৃদ্ধ বাবা থাকেন। তাঁকে দেখাশোনার জন্য জুয়েল নামে এক যুবক তাঁর সঙ্গে থাকেন। ডাকাতদলটি ঘরে ঢুকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে জুয়েলের পায়ে আঘাত করলে তার পা কেটে যায়। পরে তাকে বেঁধে ডাকাতদলটি বাড়ির প্রতি কক্ষে ঢুকে সবাইকে জাগিয়ে তোলে। এরপর হাত-পা বেঁধে ধারালো অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে একটি কক্ষে আটকে রাখে। ডাকাতদল প্রায় দেড় ঘণ্টা বাসার ভেতর অবস্থান করে মালামাল লুট করে। বাসার কোনো দরজা জানালার গ্রিল বা লক ভাঙা না থাকায় তিনি ধারণা করছেন ডাকাতদলের কোনো সদস্য আগে থেকেই বাসার ভেতর লুকিয়ে ছিল।

খবর পেয়ে মৌলভীবাজার মডেল থানার ওসি ভোর ৬টায় পুলিশের একটি দল নিয়ে ঘটনাস্থলে যান। ওসি আবদুস সালেক জানান, "ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে এটা ঠিক। তবে ঘরের দরজা খুলে দেওয়ায় বাসার কেউ যুক্ত রয়েছে বলে মনে হচ্ছে। একটি বেসরকারি সিকিউরিটি প্রতিষ্ঠানের সদস্য শাহজালাল মিয়া রাতে ওই বাসা পাহারার দায়িত্বে ছিলেন। তাকে ও জুয়েলকে সন্দেহজনকভাবে আটক করা হয়েছে। " মৌলভীবাজার পৌরসভার মেয়র মো. ফজলুর রহমান সাবেক পৌর কমিশনার ইউসুফ আলীর বাসায় গিয়ে ডাকাতির বিষয়ে খোঁজখবর নেন। মেয়র বলেন, "গত ৮ মার্চ শহরের একজন আইনজীবীর বাসায়ও ডাকাতি হয়েছে। ক্রমাগত এই ডাকাতি বেড়ে যাওয়ায় আমি পৌরবাসীর নিরাপত্তা নিয়ে উদ্বিগ্ন। পুলিশ বাহিনীর তৎপরতা জোরদার করতে হবে বলে মন্তব্য করেন তিনি।

 


মন্তব্য