kalerkantho

শনিবার । ১০ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


পেটে ছুরিবিদ্ধ অবস্থায় হাসপাতালে

নান্দাইলে ১৭ মাসের শিশুকে ছুরিকাঘাত

ঈশ্বরগঞ্জ (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি    

১৩ মার্চ, ২০১৬ ১৪:২০



নান্দাইলে ১৭ মাসের শিশুকে ছুরিকাঘাত

ময়মনসিংহের নান্দাইলে জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে বিথী নামে ১৭ মাসের এক শিশু ছুরিকাঘাতের শিকার হয়েছে। ছুরিটি শিশুটির পেট এফোঁড়-ওফোঁড় করে গেঁথে রয়েছে।

আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। বিথী নান্দাইল পৌরসভার দক্ষিণ চণ্ডীপাশা মহল্লার দীন ইসলামের মেয়ে।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, দীন ইসলামের সঙ্গে জমির মালিকানা নিয়ে বিরোধ রয়েছে তার ফুপাতো ভাই শাহজাহানের। দীন ইসলামের মা জাহেরা খাতুন বলেন, আজ রবিবার সকালে দীন ইসলাম নিজের জমিতে ঘর তুলছিলেন। সকাল ১০টার দিকে শাহজাহান সেখানে গিয়ে ওই জমিতে দীন ইসলামকে ঘর তুলতে বাধা দেয়। বাধা উপেক্ষা করে দীন ইসলাম ঘর তুলতে থাকলে শাহজাহান ছুরি নিয়ে তাকে ধাওয়া করে। কাছেই দীন ইসলামের মেয়েকে (বিথী) কোলে নিয়ে দাঁড়িয়েছিল চাচাতো বোন শরীফা (১১)। এ সময় শাহজাহান কোল থেকে শিশুটিকে ছিনিয়ে নিয়ে পেটে ধারালো ছুরি ঢুকিয়ে দিয়ে দ্রুত পালিয়ে যায়। ছুরিবিদ্ধ অবস্থায় শিশুটিকে দ্রুত নান্দাইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হলে জরুরি বিভাগের চিকিৎসক শিশুটিকে দ্রুত ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যা‌ওয়ার পরামর্শ দেন। বেলা ১টার দিকে শিশুটি ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগে পৌঁছায় বলে নান্দাইলে অ্যাম্বুলেন্সচালক আবদুল জলিল মোবাইল ফোনে জানিয়েছেন।

চণ্ডীপাশা মহল্লায় গিয়ে অভিযুক্ত শাহজাহানকে পাওয়া যায়নি। তবে মোবাইলে সকাল ১১টা ৫৬ মিনিটে তিনি জানান, শিশুটিকে তার বাবা শাহজাহানই ছুরিকাঘাত করে তাকে ফাঁসানোর চেষ্টা করছেন। এর সঙ্গে তার কোনো ধরনের সম্পৃক্ততা নেই। নান্দাইল মডেল থানার ওসি মো. আতাউর রহমান বলেন, শাহজাহানের খোঁজে পুলিশ নান্দাইল পৌর শহরের বিভিন্ন স্থানে ও একাধিক বাসস্ট্যান্ডে তল্লাশি চালিয়েছে। কিন্তু তাঁকে পাওয়া যায়নি।


মন্তব্য