kalerkantho

শনিবার । ১০ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


সোনামসজিদ স্থলবন্দর

দুই দেশের আমদানি-রপ্তানিকারকদের মধ্যে সমঝোতা বৈঠক অনুষ্ঠিত

আঞ্চলিক প্রতিনিধি, চাঁপাইনবাবগঞ্জ   

১২ মার্চ, ২০১৬ ২৩:৩৫



দুই দেশের আমদানি-রপ্তানিকারকদের মধ্যে সমঝোতা বৈঠক অনুষ্ঠিত

চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলার সোনামসজিদ স্থলবন্দরে এক সপ্তাহ যাবৎ আমদানি-রপ্তানি বন্ধ থাকায় আমদানি-রপ্তানি শুরু করতে দু'দেশের আমদানি-রপ্তানিকারকরা সমঝোতা বৈঠক করেছে। আজ শনিবার বিকেলে সোনামসজিদ-মহদীপুর জিরো পয়েন্টে মালদা মার্চেন্ট চেম্বার অব কমার্স এর সাধারণ সম্পাদক উজ্জল সাহা ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রিজ এর সভাপতি আবদুল ওয়াহেদ এর নেতৃত্বে মহদীপুর রপ্তারিকারক গ্রুপ এবং সোনামসজিদ আমদানি-রপ্তারিকারক গ্রুপের প্রতিনিধিদের উপস্থিতিতে আগামীকাল রবিবার থেকে সব পণ্য আমদানি শুরু করার সিদ্ধান্ত হয়।

গৃহিত সিদ্ধান্ত থেকে জানা যায়, চলমান সমস্যা সমাধানের জন্য চুড়ান্ত সিদ্ধান্ত গ্রহণের লক্ষে আগামী ২২ মার্চের মধ্যে সিদ্ধান্ত চুড়ান্তকরণের বিষয়ে সম্মত হয় উভয় দেশের গ্রুপের প্রতিনিধিরা।

বৈঠকে আরো সিদ্ধান্ত নেয়া হয়, গত ৬ মার্চের আগে যে পদ্ধতিতে পাথর আমদানি চালু ছিল আগামী ২২ মার্চ পর্যন্ত সেই পদ্ধতি বহাল থাকবে। গৃহিত সিদ্ধান্ত আরো ফলপ্রশু করার জন্য ১৪ মার্চ সোমবার মালদহে এবং  ১৭ মার্চ চাঁপাইনবাবগঞ্জে উভয় দেশের ( মালদা ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ ) জেলা চেম্বার অব-কমার্সের প্রতিনিধিরা বৈঠক করবেন। চেম্বারের সিদ্ধান্ত আমদানিকারক ও রপ্তানিকারকরা মেনে নেবেন বলে গৃহিত সিদ্ধান্তে উল্লেখ করা হয়। ২২ মার্চ সর্বশেষ চুড়ান্ত সিদ্ধান্তে স্বাক্ষরিত হবে এবং বোল্ডার পাথরের আমদানি মূল্য পুনঃ নির্ধারিত হবে বলে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

এ ব্যাপারে সোনামসজিদ স্থলবন্দর আমদানিকারক গ্রুপের সাধারণ সম্পাদক মো. আবু তালেব ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রিজ এর সভাপতি আবদুল ওয়াহেদ জানান, শনিবারের গৃহিত সিদ্ধান্তে রপ্তানিকারকরা যদি আবারো প্রত্যাখ্যান করে এবং ২২ মার্চ সর্বশেষ চুড়ান্ত সিদ্ধান্তে স্বাক্ষর না করে তাহলে ২৩ মার্চ থেকে পাথর আমদানি বন্ধ রাখতে আবারো বাধ্য হবেন আমদানিকারকরা। তারা আরো জানান, রবিবার দুপুর থেকে পাথর আমদানি আগের নিয়মেই চলবে আগামী ২২ মার্চ পর্যন্ত, যা রপ্তানিকারকরা গৃহিত সিদ্ধান্তে স্বাক্ষর করেন।

আজকের বৈঠকে ভারতের পক্ষে অন্যান্যদের মধ্যে সুকুমার সাহা, মানবেন্দ্র সরকার, আলহাজ্ব মঞ্জুর মোল্লা, ফজলুল হকসহ ৭ জন এবং বাংলাদেশের পক্ষে আব্দুল ওয়াহেদ, আবু তালেব, আখলাক হোসেন, কাজী মো. সাহাবুদ্দিন,রবিউল ইসলামসহ সাতজন উপস্থিত ছিলেন।
 

 


মন্তব্য