kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৮ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৭ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


সাভারে এমপির স্ত্রীর কারখানাসহ দুটি কারখানা ও মালবাহী ট্রাকে ডাকাতি

নিজস্ব প্রতিবেদক, সাভার   

১২ মার্চ, ২০১৬ ১৮:২৫



সাভারে এমপির স্ত্রীর কারখানাসহ দুটি কারখানা ও মালবাহী ট্রাকে ডাকাতি

সাভারে সংসদ সদস্য ডা: মো. এনামুর রহমানের স্ত্রীর মালিকানাধীন কারখানাসহ দুটি খাদ্য সামগ্রী তৈরির কারখানা এবং ভাকুর্তা-কেরানীগঞ্জ সড়কে গাছ কেটে মালবাহী ট্রাকে দুর্ধর্ষ ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। গতকাল শুক্রবার দিবাগত গভীর রাতে ভাকুর্তা এলাকায় এবং আজ শনিবার ভোর রাতের দিকে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের সাভারের রাজফুলবাড়ীয়া এলাকার অদূরে সান-শাইন কনজুমার্স লিমিটেড ও আমিনবাজার এলাকার পিঙ্ক ফুড কারখানায় ডাকাতির ঘটনাগুলো ঘটে।

এ সময় ডাকতারা দুটি কারখানা থেকে নগদ টাকাসহ প্রায় ৩০ লাখ টাকার মালামাল লুট করে ট্রাকে উঠিয়ে পালিয়ে যায়।

সাংসদ মো. এনামুর রহমানের নিকট আত্মীয় সান-শাইন কনজুমার্স কারখানার ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) সারোয়ার হোসেন জানান, শনিবার ভোর রাত ৪টা বা সাড়ে ৪টার দিকে কারখানার দেওয়াল টপকিয়ে ২০-২৫ সদস্যের একদল ডাকাত কারখানাটিতে হানা দেয়। এ সময় ডাকাতরা কারখানার নিজস্ব নিরাপত্তাকর্মী মোস্তাফিজুর রহমানসহ রাতের পালায় (নাইট শিফট) কর্মরত কারখানার শ্রমিক-কর্মচারী ও কর্মকর্তাদের হাত-পা ও চোখ বেধে তাদেরকে কারখানার ফ্লোরে শুইয়ে পড়তে বাধ্য করে। এরপরে ডাকাতরা অস্ত্রের ভয়ভীতি দেখিয়ে কারখানায় মজুদ প্রায় বিশ টন চাল ও ভুট্টাসহ অন্যান্য কাঁচামাল লুটপাট করে। যার আনুমানিক মূল্য ২০ থেকে ২৫ লাখ টাকা। ডাকাতরা বেশ কিছু সময় ধরে কারখানার ভিতরে বিভিন্ন স্থানে নগদ অর্থের সন্ধান করে। তারা কারখানায় থাকা নগদ প্রায় ৫০ হাজার টাকা নিয়ে যায়। এছাড়া কয়েকটি সিসি ক্যামেরা ও ড্রয়ারও তছনছ  করে। ডাকাতরা ৩/৪টি কম্পিউটার, মনিটর, কর্মচারী-কর্মকর্তাদের অন্তত ৮-১০টি মোবাইল ফোন ও হার্ডডিক্স লুটপাট করে সব মালামাল ট্রাকে উঠিয়ে পালিয়ে যায়। খবর পেয়ে সাভার মডেল থানা পুলিশ কারখানাটি পরিদর্শন করেছে।

কারখানাটির চেয়ারপার্সন ও সাংসদ এনামুর রহমানের প্রথম স্ত্রী রওশন আক্তার চৌধুরি ডাকাতরা ঠিক কত টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে গেছে তা সুনির্দিষ্ট করে বলেতে পারেননি। তিনি বলেন, পাঁচ থেকে ছয় লাখ টাকার মালামাল ও কয়েকটি ল্যাপটপ ও কম্পিউটার নিয়ে গেছে।

এদিকে সাংসদের স্ত্রীর কারখানায় ডাকাতি হওয়ায় ওই এলাকার ব্যবসায়ীদের মাঝে আতঙ্ক বিরাজ করছে। পুলিশের নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়েও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন অনেকে।

এ বিষয়টি নিশিচত করে সাভার মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এসএম কামুরুজ্জামান বলেন, সংসদ সদস্যের কারখানায় ডাকাতি হওয়ার খবর শুনে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। ঘটনাটি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এ ঘটনায় সাভার মডেল থানায় একটি মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ডাকাতি হওয়া মালামাল উদ্ধার ও জড়িত সন্দেহ পুলিশ কাউকে আটক করতে পারেনি।

অপরদিকে একই দিন ভোর রাতে সাভারের আমিনবাজার এলাকায় সালেপুর ব্রিজের অদূরে পিঙ্ক ফুড কারখানায় অপর ডাকাতির ঘটনাটি ঘটে।

পুলিশ ও কারখানার নিরাপত্তাকর্মীরা বলেন, ডাকাতরা কারখানার সীমানা প্রাচীর টপকিয়ে কারখানার ভেতরে প্রবেশ করে। পরে তারা ওই কারখানার ৬ নিরাপত্তার্মীকে প্রথমে মারধর করে এবং পরে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে নগদ ১ লাখ ৭০ হাজার টাকা ও একটি ট্রাকযোগে প্রায় ৮ লাখ টাকার মালামাল লুটে নেয়। এ সময় ডাকতরা প্রায় দেড় ঘণ্টা কারখানার ভেতরে তাণ্ডব চালিয়ে নির্বিঘ্নে পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়। খবর পেয়ে সাভার মডেল থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

এ ছাড়াও গতকাল শুক্রবার দিবাগত রাতে সাভারের ভাকুর্তা এলাকার ভাকুর্তা-কেরানীগঞ্জের সড়কের ওপর গাছ ফেলে বেশ কয়েকটি মালবাহী ট্রাকে ডাকাতি করে ডাকাতরা।

এ বিষয়ে স্থানীয় ভাকুর্তা ইউনিয়নের ৭ নম্বর ওয়ার্ড সদস্য শাহাবুদ্দিন মিয়া বলেন, ভাকুর্তা-কেরানীগঞ্জ সড়কের ওপর গাছ ফেলে প্রায় ডাকাতির ঘটনা ঘটে। শুক্রবার দিবাগত গভীর রাতেও একদল ডাকাত সড়কের পাশের গাছ কেটে রাস্তার ওপরে ফেলে বেশ কয়েকটি মালবাহী ট্রাকে ডাকাতি করেছে।

এ ব্যাপারে ঢাকা জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আশরাফুল আজিম বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলগুলো পরিদর্শন করেছে। তবে লুণ্ঠিত মালামাল উদ্ধার বা এ ঘটনার সাথে জড়িত কাউকে গ্রেপ্তার করা সম্ভব হয়নি।


মন্তব্য