রায়গঞ্জে আওয়ামী লীগ মনোনীত ও-334050 | সারাবাংলা | কালের কণ্ঠ | kalerkantho

kalerkantho

বুধবার । ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৬। ১৩ আশ্বিন ১৪২৩ । ২৫ জিলহজ ১৪৩৭


রায়গঞ্জে আওয়ামী লীগ মনোনীত ও বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থকদের সংঘর্ষ, আহত ১০

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৯ মার্চ, ২০১৬ ১৯:৩৪



রায়গঞ্জে আওয়ামী লীগ মনোনীত ও বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থকদের সংঘর্ষ, আহত ১০

প্রথম ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে সিরাজগঞ্জের রায়গঞ্জের ব্রম্মগাছা ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী গোলাম সরোয়ার লিটনের সমর্থকদের সাথে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান নাসির উদ্দিন নাজিরের সমর্থকদের দফায় দফায় সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। আজ বুধবার দুপুরে উপজেলার ব্রম্মগাছা ইউনিয়নের ভাতহারিয়া বাজারে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। সংবাদ পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে ১০ রাউন্ড রাবার বুলেট ছুড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। সংঘর্ষের সময় পুলিশের গুলি ও দেশীয় অস্ত্রের আঘাতে অনন্ত ১০ জন আহত হয়েছেন। তাদের মধ্যে গুলিবিদ্ধ গোলাম ও হেলাল নামে দুজনকে সিরাজগঞ্জ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে।

এ ব্যাপারে রায়গঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) রাশেদুল ইসলাম বিশ্বাস জানান, আওয়ামী লীগের প্রার্থী গোলাম সরোয়ার লিটনের সমর্থনে যুবলীগ কর্মীরা ভাত হাড়িয়া হাইস্কুল মাঠে নির্বাচনী সমাবেশের জন্য মঞ্চ তৈরি করছিল। এ সময় বিদ্রোহী প্রার্থী নাসিরের সমর্থকরা মঞ্চ তৈরি করতে বাঁধা দিলে দু'পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বাধে। সে সময় ১০ রাউন্ড রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করা হয়।

তবে বিদ্রোহী প্রার্থী নাসির উদ্দিন নাজির জানান, স্কুল ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি হওয়ায় স্কুল বন্ধ রেখে মিটিং করতে নিষেধ করায় আওয়ামী লীগের প্রার্থী গোলাম সরোয়ার লিটনের ছোট ভাই টিটো ও ইউনিয়ন যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক ছানোয়ার হোসেন বাবুর নেতৃত্বে ৪/৫’শ লোক দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে হামলা চালায়। পরে পুলিশ এসেও তাদের দিকে রাবার বুলেট ছুড়তে থাকে। হামলা ও পুলিশের গুলিতে ওয়ার্ড স্বেচ্ছাসেবকলীগ সভাপতি গোলাম হোসেন, ওয়ার্ড যুবলীগ সভাপতি সৈকত হাসান ফাত্তা, আমার স্ত্রী রীনা খাতুন, ভাবী লতিফ বেগম, সাইদ, আব্দুল গাফ্ফার, হেলাল উদ্দিনসহ কমপক্ষে ১০ জন আহত হন। এছাড়াও স্কুলের শিক্ষক ও ছাত্রদের মারপিট করা হয়েছে। এদের মধ্যে গুলিবিদ্ধ হয়ে গোলাম ও হেলাল গুরুতর আহত হয়েছে। তাদেরকে সিরাজগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগ প্রার্থী গোলাম সরোয়ার জানান, ইউনিয়ন যুবলীগ স্কুলে সমাবেশের আয়োজন করেছিল। এ সময় নাজিরের উদ্দিনের লোকজন তার সমাবেশ পণ্ড করতে হামলা চালিয়ে তার সমর্থকদের মারপিট করেছে। তবে ঘটনাস্থলে ছিলাম না। এজন্য বিস্তারিত বলতে পারছি না।

সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. আকমুজ্জামান জানান, গুলিবিদ্ধ অবস্থায় দুজন ভর্তি হয়েছে। এর মধ্যে মাথায় গুলিবিদ্ধ হেলালের অবস্থায় আশঙ্কাজনক।

মন্তব্য