ট্রলী ও ট্রেনের সংঘর্ষের হাত থেকে-333751 | সারাবাংলা | কালের কণ্ঠ | kalerkantho

kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২৯ সেপ্টেম্বর ২০১৬। ১৪ আশ্বিন ১৪২৩ । ২৬ জিলহজ ১৪৩৭


ট্রলী ও ট্রেনের সংঘর্ষের হাত থেকে প্রাণে বাঁচল ৫ শতাধিক যাত্রী

পার্বতীপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি   

৮ মার্চ, ২০১৬ ২৩:৩২



ট্রলী ও ট্রেনের সংঘর্ষের হাত থেকে প্রাণে বাঁচল ৫ শতাধিক যাত্রী

পার্বতীপুর রেল স্টেশনের ২নম্বর প্লাটফরম সংলগ্ন মিটারগেজ রেলপথে একটি ট্রলী দাঁড়িয়েছিল। একই লাইনে পঞ্চগড় থেকে আসা ৪২নম্বর যাত্রীবাহী কাঞ্চন এক্সপ্রেস ট্রেন সবেগে প্রবেশকালে প্লাটফরমে অপেক্ষমাণ যাত্রী ও ট্রেনের যাত্রীদের চিৎকারে ড্রাইভার ব্রেক কষে ৫০ গজ দূরত্বে ট্রেনটি থামিয়ে দিলে ৫ শতাধিক যাত্রীর জানমাল রক্ষা পায়। আজ মঙ্গলাবার বিকেল পৌনে ৬টায় এ ঘটনাটি ঘটে । এ ঘটনায় পার্বতীপুরে সুইচ কেবিনে কর্মরত মাষ্টারের গাফিলতি ছিল বলে স্থানীয় একাধিক রেল কর্মচারী বলেছেন। তবে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত তদন্ত কমিটি গঠন করার সংবাদ পাওয়া যায়নি।

জানা যায়, আজ মঙ্গলবার বিকেলে পার্বতীপুর রেল স্টেশনের দুই নম্বর প্লাটফরম সংলগ্ন ১ নম্বর মিটার গেজ রেলপথে ৪২ নম্বর যাত্রীবাহী কাঞ্চন এক্সপ্রেস ট্রেন পঞ্চগড় থেকে দিনাজপুর হয়ে পার্বতীপুরে প্রবেশ করছিল। এর কিছুক্ষণ আগে একই রেলপথে চিরিরবন্দর থেকে পশ্চিম জোনের মহাব্যবস্থাপককে নিয়ে একটি ট্রলী এসে পার্বতীপুর সুইচ কেবিনের সন্নিকটে দাঁড়ায়। পশ্চিম জোনের মহাব্যবস্থাপক ট্রলী থেকে নেমে রাজশাহীগামী আন্তঃনগর তিতুমীর ট্র্রেনে আরোহন করেন।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে সুইচ কেবিনে কর্মরত চুক্তিভিত্তিক মাষ্টার আব্দুল হাকিম জানান, জিএমকে নিয়ে ট্রলীটি পার্বতীপুর রেল স্টেশনে এসে পৌঁছানোর পরেই কাঞ্চন এক্সপ্রেস ট্রেন পার্বতীপুর স্টেশনে প্রবেশ করছিল। তবে শেষ পর্যন্ত ৫০ গজ দূরে উল্লেখিত যাত্রীবাহী ট্রেন দাঁড়িয়ে পড়ে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

মন্তব্য