kalerkantho

মঙ্গলবার । ৬ ডিসেম্বর ২০১৬। ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৫ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


প্রতিবাদী দুই যুবক আহত

জামালগঞ্জে কিশোরীকে অপহরণের অভিযোগ

হাওরাঞ্চল প্রতিনিধি    

৮ মার্চ, ২০১৬ ১৬:৫৫



জামালগঞ্জে কিশোরীকে অপহরণের অভিযোগ

সুনামগঞ্জের জামালগঞ্জ উপজেলার গজারিয়া গ্রাম থেকে ১৩ বছর বয়সী এক কিশোরীকে বখাটেরা অপহরণ করে নিয়ে গেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ সময় প্রতিবাদ করায় বখাটেরা ওই গ্রামের আকাব্বর হোসেন (২২) ও জুয়েল মিয়া (২১) নামে দুই যুবককে বেধড়ক মারপিট করে গুরুতর আহত করে।

তাদেরকে জামালগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তী করা হয়েছে। গতকাল সোমবার রাত ৮টার দিকে উপজেলার ফেনারবাগ ইউনিয়নের গজারিয়া বড়বাড়ি গ্রামে এ ঘটনা  ঘটে।

ঘটনার শিকার ও কিশোরীর পরিবার ও স্থানীয়রা জানায়, উপজেলার গজারিয়া বড়বাড়ি গ্রামের ওই কিশোরীকে গত প্রায় পাঁচ মাস আগে পাশের রামপুর গ্রামের সুলতান মিয়ার বখাটে ছেলে শামীম মিয়া (২৫) প্রেমের প্রস্তাব দেয়। কিশোরীটি তার এ প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় শামীম ক্ষিপ্ত হয়ে তখন থেকেই তাকে বিভিন্নভাবে উত্ত্যক্ত করে আসছিল। একপর্যায়ে গতকাল সোমবার সন্ধ্যা থেকে ওই কিশোরীকে অপহরণ করার উদ্দেশ্যে বখাটে শামীম ও তার বন্ধু দেলোয়ার হোসেনের (২৪) নেতৃত্বে ১০-১২ জন যুবক ৫-৬টি মোটরসাইকেল নিয়ে মেয়েটির বাড়ির আশপাশের বিভিন্ন স্থানে তারা অবস্থান নেয়।

রাত ৮টার দিকে মেয়েটি নিজ বসতঘর থেকে বেরিয়ে পাশেই তার চাচার ঘরে যাচ্ছিল। এ সময় ওই বখাটেরা মেয়েটিকে ঝাপটে ধরে তার মুখ বেঁধে মোটরসাইকেলে তুলে নিয়ে যায়। তাদের মোটরসাইকেল বহরটি কিছু দূর যাওয়ার পর রাস্তায় একই গ্রামের আকাব্বর ও জুয়েল তাদের বাধা দেয়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে বখাটেরা গাড়ি থেকে নেমে ওই দুই প্রতিবাদী যুবককে এলোপাতাড়ি পিঠিয়ে গুরুতর আহত করে মেয়েটিকে নিয়ে পালিয়ে যায়। পরে গ্রামের লোকজন আহতদের উদ্ধার করে জামালগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

জামালগঞ্জ থানার ওসি (তদন্ত) মো. মোস্তফা কামাল ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে কালের কণ্ঠকে বলেন, "এ ব্যাপারে থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে। খুব শিগগির মেয়েটিকে উদ্ধারসহ জড়িতদের গ্রেপ্তার করা হবে। "         

 


মন্তব্য