কেরানীগঞ্জে ঝড়ো বাতাসে দেয়াল ধসে এক-332916 | সারাবাংলা | কালের কণ্ঠ | kalerkantho

kalerkantho

শুক্রবার । ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৬। ১৫ আশ্বিন ১৪২৩ । ২৭ জিলহজ ১৪৩৭


কেরানীগঞ্জে ঝড়ো বাতাসে দেয়াল ধসে এক শিশু নিহত, আহত ৫

কেরানীগঞ্জ (ঢাকা) প্রতিনিধি   

৬ মার্চ, ২০১৬ ২২:২২



কেরানীগঞ্জে ঝড়ো বাতাসে দেয়াল ধসে এক শিশু নিহত, আহত ৫

কেরানীগঞ্জে ঝড়ো বাতাসে দেয়াল ধসের ঘটনা ঘটেছে। এতে রিয়া মনি (১১) নামে এক শিশু নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে আঃ খালেক সরদার (৬৫), রেহেনা বেগম (৫০), অজ্ঞাতনামা মহিলা (৫০), সুমি (১৩) ও সবুজ (১৩) নামে পাঁচ জন আহত হয়েছে। আজ রবিবার সন্ধ্যায় দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানাধীন আগানগর ইউনিয়নের পশ্চিম ইমামবাড়ী নাইম কলোনিতে এঘটনা ঘটেছে। ঘটনার সংবাদ পেয়ে কেরানীগঞ্জ মডেল থানা, দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানা পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের কেরানীগঞ্জ শাখার সদস্যরা ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে আহতদের উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে পাঠিয়েছে। কেরানীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবুল বাশার মোহাম্মদ ফখরুজ্জামান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে আহতদের মাঝে শুকনো খাবার ও আর্থিক সহযোগীতা প্রদান করেন।

দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ মনিরুল ইসলাম বলেন, রবিবার সন্ধ্যায় হটাৎ করেই ঝড়ো হাওয়া বইতে থাকে। ঝড়ো হাওয়ার বেগে আগানগর ইউনিয়নের পশ্চিম ইমামবাড়ী নাইম কলোনির ২য় তলায় দেয়াল ধসে পড়ে। এতে ২য় তলার প্রায় ৭টি ঘর ভেঙে পড়ে। দেয়ালের নিচে চাপা পড়ে ৫/৬ জন আহত হয়। পরে তাদের উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে পাঠালে কর্তব্যরত চিকিৎসক রিয়া মনি নামে একজনকে মৃত ঘোষণা করেন।
সার্ভিসের কেরানীগঞ্জ শাখার ইনচার্জ মঞ্জুরুল আহসান বলেন, ঘটনার খবর পেয়ে আমরা সাথে সাথেই ঘটনাস্থলে পৌছে যাই। দেয়াল ধসে ৭টি ঘর ভেঙে গেছে যার মধ্যে ৪টি ঘর বেশী ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে।
হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় নিহত রিয়া মনির নানা আঃ খালেদ সরকার সাংবাদিকদের বলেন, আমার নাতনি রিয়া মনি তার বাবা মায়েরা সাথে রাজধানীর কামরাঙ্গীরচর থাকতো। গত এক মাস আগে তার মা বিদেশে চলে যাওয়ায় সে আমাদের সাথে থাকতো। তিনি আরও জানান, রিয়া মনির বাবার নাম নূর মোহাম্মদ।
কেরানীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবুল বাশার মোহাম্মদ ফখরুজ্জামান জানান, ঘটনার পরপরই আমি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। নিহত রিয়া মনির পরিবারকে তার দাফন কার্য সম্পন্ন করার জন্য ১০ হাজার টাকা আর্থিক সহায়তা প্রদান করা হয়েছে। আহতদের মাঝে শুকনো খাবার বিতরণ করা হয়েছে।

মন্তব্য