ভোলার আলীনগর ইউনিয়নে সুষ্ঠু-332454 | সারাবাংলা | কালের কণ্ঠ | kalerkantho

kalerkantho

রবিবার । ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৬। ১০ আশ্বিন ১৪২৩ । ২২ জিলহজ ১৪৩৭


দুই স্বতন্ত্র প্রার্থীর সংবাদ সম্মেলন

ভোলার আলীনগর ইউনিয়নে সুষ্ঠু নির্বাচন নিয়ে শঙ্কা

ভোলা প্রতিনিধি    

৫ মার্চ, ২০১৬ ১৫:৪৬



ভোলার আলীনগর ইউনিয়নে সুষ্ঠু নির্বাচন নিয়ে শঙ্কা

আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে ভোলা সদর উপজেলার ৮ নম্বর আলীনগর ইউনিয়নে সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ ভোট নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করেছেন ওই ইউনিয়নের দুই চেয়ারম্যান প্রার্থী জাহিদুল হক শুভ (আনারস প্রতীক) ও সানজিদা হক (টেলিফোন প্রতীক)। তাঁরা দুজনই স্বতন্ত্র প্রার্থী এবং সম্পর্কে স্বামী-স্ত্রী। আজ শনিবার সকালে নিজ বাসভবনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে এ শঙ্কার কথা জানান তাঁরা।

জাহিদুল হক শুভ ও সানজিদা হক অভিযোগ করে বলেন, ওই ইউনিয়নের আওয়ামী লীগদলীয় চেয়ারম্যান প্রার্থী বশির আহমেদ বিভিন্নভাবে তাঁদেরকে এবং তাদের কর্মী-সমর্থক ও ভোটারদেরকে প্রতিনিয়ত হুমকি দিয়ে আসছেন। আওয়ামী লীগদলীয় চেয়ারম্যান প্রার্থী ভোট ছিনিয়ে নেওয়ার পাঁয়তারা করছেন বলে অভিযোগ করে লিখিত বক্তব্যে চেয়ারম্যান প্রার্থীরা আরো বলেন, নির্বাচনের দিন ভোটকেন্দ্র দখল ও বিপক্ষ প্রার্থী, কর্মী-সমর্থকদের ওপর হামলার উদ্দেশ্যে আওয়ামী লীগদলীয় চেয়ারম্যান প্রার্থী বশির আহমেদ এলাকায় প্রায় দুই হাজার লগি বৈঠা ও রামদা তৈরি করেছেন। এমনকি গভীর রাতে তার কর্মী-সমর্থকদের বাড়ির সামনে গুলি ও বোমার বিস্ফোরণ ঘটিয়ে আতঙ্ক সৃষ্টি করছেন। তফসিল ঘোষণার পর থেকে আওয়ামী লীগদলীয় চেয়ারম্যান প্রার্থী এ পর্যন্ত তাদের ওপর হামলা চালিয়ে অন্তত ৮ কর্মীকে আহত করেছেন।

সংবাদ সম্মেলনে আরো বলা হয়, গত শুক্রবার দুপুরে নির্বাচনী প্রচারণাকালে বশির আহমেদের ক্যাডাররা স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী সানজিদা হকের ওপর হামলা চালায়। প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী বশির আহমেদ নিজ নির্বাচনী কার্যালয় ও বসতঘরে হামলা-ভাঙচুর করে তাঁদের কর্মী-সমর্থকদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দায়েরেরও হুমকি দেন। এসব বিষয়ে পুলিশ প্রশাসনকে জানালেও পুলিশ কোনো ব্যবস্থা নিচ্ছে না বলেও অভিযোগ স্বতন্ত্র দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীর।

তবে অভিযোগ অস্বীকার করে আওয়ামী লীগদলীয় চেয়ারম্যান প্রার্থী  বশির আহমেদ বলেন, "আমি কোনো লগি বৈঠা তৈরি করিনি। প্রতিপক্ষ  প্রার্থীর কর্মী কিংবা সমর্থকদের ওপর হামলা-মামলা করিনি। আওয়ামী লীগের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করার উদ্দেশ্যে এসব মিথ্যা অভিযোগ করছেন তাঁরা।"
 
এ বিষয়ে আলীনগর ইউনিয়নের রিটার্নিং অফিসার ও ভোলা সদর উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা সৈয়দ শফিকুল হক কালের কণ্ঠকে জানান, চেয়ারম্যান প্রার্থীর ওপর হামলার বিষয়ে কোনো লিখিত অভিযোগ পাইনি। এর আগে দুইটি অভিযোগ পাওয়ার পর এসব বিষয়ে পুলিশের কাছে রেফার্ড করেছি। পুলিশ তদন্ত করে দেখছে। তবে, স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী শুভ শুক্রবার রাতে মৌখিকভাবে ফোনে তার স্ত্রীর প্রচারণায় বাধা প্রদান করেছে বলে জানিয়েছেন।

 

মন্তব্য