kalerkantho

রবিবার। ৪ ডিসেম্বর ২০১৬। ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৩ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


দুই পুলিশ এসএসসি পরীক্ষার্থীকে পিটিয়ে হাসপাতালে পাঠিয়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক,কুমিল্লা   

৩ মার্চ, ২০১৬ ১৯:৫৯



দুই পুলিশ এসএসসি পরীক্ষার্থীকে পিটিয়ে হাসপাতালে পাঠিয়েছে

তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে কুমিল্লার ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলার বালিনা গ্রামের এক স্কুল ছাত্রকে পিটিয়ে মারাত্মকভাবে আহত করেছে ছুটিতে আসা দুলালপুর গ্রামের দুই পুলিশ সদস্য। আহত এসএসসি পরীক্ষার্থী বর্তমানে কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

এব্যাপারে আহতের পিতা বাদী হয়ে থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দাখিল করেছেন।

থানার অভিযোগ ও পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, ব্রাহ্মণপাড়ার দুলালপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের এসএসসি পরীক্ষার্থী বালিনা গ্রামের আবদুল বারেকের ছেলে মো: ওবায়দুল হক (১৭) গত বুধবার দুপুর দেড়টায় দুলালপুর উচ্চ বিদ্যালয় থেকে প্রাইভেট পড়ার পর বাড়ি ফেরার পথে দুলালপুর বাজারে ঐ গ্রামের পুলিশে কর্মরত মৃত স্বপন মিয়ার ছেলে শামীম আহম্মদ ও হারুন মিয়া ছেলে মোহাম্মদ রুবেল অতর্কিত হামলা চালায়। ওবায়দুলকে কাঠের গুড়ি দিয়ে পিটিয়ে মাথায় ও পায়ে এবং শরীরের বিভিন্ন স্থানে কিল ঘুষি মেরে মারাত্মকভাবে আহত করে। তার চিৎকারে বাজারের লোকজন এগিয়ে এসে তাকে উদ্ধার করে ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

এ ঘটনায় আহতের পিতা আবদুল বারেক বাদী হয়ে অভিযুক্ত দুই পুলিশ সদস্যের বিচার দাবি করে থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দাখিল করেন।
৩ মার্চ বৃহস্পতিবার আহত অবস্থায় ওবায়দুল হক এসএসসির ধারাবাহিক পরীক্ষায় অংশ নেওয়ার পর শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাকে কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এসএসসির বাকি ৩টি পরীক্ষায় আহত ওবায়দুল অংশগ্রহণ করতে পারবে কিনা তা নিয়ে শংকায় আছেন তার পরিবার।
ব্রাহ্মণপাড়া থানার এসআই আবু বক্কর ছিদ্দিক অভিযোগ প্রাপ্তির সত্যতা স্বীকার করে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে জানান, যে দুজন পরীক্ষার্থীর ওপর হামলা করেছে তারা পুলিশের সদস্য। উর্ধতন কর্তৃপক্ষের সাথে আলোচনা করে তাদের বিরুদ্ধে অবশ্যই আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।


মন্তব্য