kalerkantho

শুক্রবার । ৯ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৮ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


নিয়ামতপুরে তৃতীয় শ্রেণির ছাত্রী ধর্ষণ, ধর্ষণকারী গ্রেপ্তার

নওগাঁ প্রতিনিধি    

২ মার্চ, ২০১৬ ২১:৩০



নিয়ামতপুরে তৃতীয় শ্রেণির ছাত্রী ধর্ষণ, ধর্ষণকারী গ্রেপ্তার

নওগাঁর নিয়ামতপুরে গত সোমবার দুপুরে বিদ্যালয় চলাকালে টিফিন পিরিয়ডের সময় তৃতীয় শ্রেণির এক ছাত্রী ধর্ষনের শিকার হয়েছে। ধর্ষণের অভিযোগে নিয়ামতপুর থানা পুলিশ সাব্বির (২০) নামে এক যুবককে গ্রেপ্তার করে আজ বুধবার জেল হাজতে পাঠিয়েছে।

গ্রেপ্তারকৃত সাব্বির উপজেলার শ্রীমন্তপুর ইউনিয়নের চকশিতা গ্রামের শাহজাহানের ছেলে। এ ঘটনায় ধর্ষিতার বাবা বাদী হয়ে থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করেছেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, বিল-যোয়ানিয়া গ্রামের তৃতীয় শ্রেণির ওই  ছাত্রী প্রতিদিনের মতো সেদিনও বিদ্যালয়ে উপস্থিত ছিল। টিফিনের ঘণ্টা পড়ার পর সে স্কুলের পাশে বরই পাড়ার জন্য বরই গাছতলায় যায়। ওই সময় ওত পেতে থাকা লম্পট সাব্বির বরই পেড়ে দেওয়ার কথা বলে ফুঁসলিয়ে পার্শ্ববর্তী জঙ্গলের আড়ালে নিয়ে যায় ওই ছাত্রীকে। এরপর সেখানে ধর্ষণ করে তাকে। ছাত্রীটির চিৎকার শুরু করলে জঙ্গলের অদূরে অবস্থিত বাড়ি থেকে মাইফুল ও তছিরন নামের দুজন নারী ছুটে আসলে পালিয়ে যায় ধর্ষণকারী সাব্বির। এ সময় শিশুটিকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করেন তাঁরা।

এ ঘটনায় শিশুটির বাবা বলেন, আমি মেয়েকে নিয়ে তার চিকিৎসার জন্য বর্তমানে নওগাঁয় আছি। মেয়ের জরুরি  চিকিৎসাজনিত কারণে মামলা ঘটনার দিন দায়ের করা সম্ভব না হওয়ায় ঘটনার পরের দিন গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে থানায় মামলা করি। বিদ্যালয় চলাকালে ছাত্রী ধর্ষণের ঘটনায় সংশ্লিষ্ট চকসিতা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক (ভারপ্রাপ্ত) সুমি খাতুন বলেন, "আমি সেদিন অফিসের জরুরি কাজে শিক্ষা অফিসে গিয়েছিলাম। "  নিয়ামতপুর থানার ওসি ওবাইদুল হক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, মামলা দায়েরের পর ধর্ষক সাব্বিরকে ওই রাতেই মান্দা উপজেলার ফেটগ্রাম থেকে গ্রেপ্তার করে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

 


মন্তব্য