kalerkantho

শনিবার । ৩ ডিসেম্বর ২০১৬। ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ২ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


জলঢাকায় অগ্নিকাণ্ড, দগ্ধ বৃদ্ধার মৃত্যু

নীলফামারী প্রতিনিধি   

২ মার্চ, ২০১৬ ২০:৩২



জলঢাকায় অগ্নিকাণ্ড, দগ্ধ বৃদ্ধার মৃত্যু

নীলফামারীর জলঢাকা উপজেলার বালাগ্রাম ইউনিয়নের কামারপাড়া শালনগ্রামে বাড়িতে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় আহত বৃদ্ধা তাবিউন বেওয়ার (১০৫) মারা গেছেন। আজ বুধবার বেলা ১২টার দিকে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি।


গত মঙ্গলবার রাত আড়াইটার দিকে ওই গ্রামের অলিয়ার রহমানের বাড়িতে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় তার বৃদ্ধা মা তাবিউন বেওয়াসহ চারজন আহত হন। তাবিউন বেওয়া ওই গ্রামের মৃত আজিজার রহমানের স্ত্রী।

এলাকাবাসী জানায়, গতকাল মঙ্গলবার রাত আড়াইটার দিকে গ্রামের অলিয়ার রহমানে বাড়ির গোয়ালঘর থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়ে দ্রুত  ছড়িয়ে পড়ে। এ সময় অলিয়ার রহমানে ছয়টি ও আব্দুল আজিজের একটি ঘর, আসবাবপত্র ও মালামালসহ পুড়ে যায়। অগ্নিদগ্ধ হয়ে মারা যায় তিনটি গরু ও ১১টি ছাগল। এ সময় ঘুমন্ত লোকজন জেগে ‌উঠে ঘর থেকে বের হতে দেরি হওয়ায় এবং আগুন নেভানোর চেষ্টাকালে আহত হন অলিয়ার রহমানের বৃদ্ধা মা তাবিউন বেওয়া, তার বড়বোন হাসনা বেগম (৬০), স্ত্রী রেহেনা বেগম (৫০) ও নাতনী আঁখি মণি (৩)। আহতদের মধ্যে রাত ৩টার দিকে গুরুতর অবস্থায় বৃদ্ধা তাবিউন বেওয়াকে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। অন্যদের স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা প্রদান করা হয়।

জলঢাকা দমকল বাহিনীর কর্মকর্তা মমতাজুল ইসলাম বলেন, "খবর পেয়ে আমরা পৌঁছানোর আগেই দুই পরিবারের সাতটি ঘর পুড়ে গেছে। ধারণা করা হচ্ছে অলিয়ার রহমানের গোয়ালঘর থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়েছে। তবে সেটি কীসের আগুন তা তাৎক্ষণিকভাবে জানা যায়নি। "  অগ্নিকাণ্ডে দুই পরিবারের পাঁচ লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে জানান তিনি। আজ বুধবার সকালে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন জলঢাকা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সৈয়দ আলী ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হাসান হাবিব।
 

 


মন্তব্য