kalerkantho

সোমবার । ৫ ডিসেম্বর ২০১৬। ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৪ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


কুমিল্লায় শিশু রিয়াদকে হত্যার ঘটনায় গ্রেপ্তার ২

কুমিল্লা দক্ষিণ প্রতিনিধি    

২ মার্চ, ২০১৬ ১৭:৪৪



কুমিল্লায় শিশু রিয়াদকে হত্যার ঘটনায় গ্রেপ্তার ২

কুমিল্লার মনোহরগঞ্জে তৃতীয় শ্রেণির ছাত্র শিশু রিয়াদ হোসেনকে হত্যার ঘটনায় জড়িত সন্দেহে দুইজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। আজ বুধবার সকালে গ্রেপ্তারকৃতদের কুমিল্লার আদালতে হাজির করা হয়।

এর আগে গতকাল মঙ্গলবার রাতে উপজেলা সদরের মনোহরগঞ্জ বাজার এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদেরকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন  উপজেলা সদরের দিশাবন্দ গ্রামের আবুল কালামের ছেলে আলমগীর হোসেন (২২) ও আবদুল মালেকের ছেলে ওমর ফারুক (১৪)। গ্রেপ্তারকৃত দুইজনই শিশু রিয়াদের প্রতিবেশী বলে জানা গেছে।

মনোহরগঞ্জ থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মো. সাদেকুর রহমান জানান, হত্যাকাণ্ডের রাতে গ্রেপ্তারকৃত ওমর ফারুক নিহত শিশু রিয়াদকে মারধর করছিল- এমন দৃশ্য দেখেন একই এলাকার আবদুল খালেক। তিনি জানান, খালেকের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী মঙ্গলবার রাতে অভিযান চালিয়ে তাদেরকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও মনোহরগঞ্জ থানার এসআই মোজাম্মেল হোসেন গতকাল বিকেল ৪টার দিকে কালের কণ্ঠকে মুঠোফোনে জানান, ওই দুই আসামিকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশের পক্ষ থেকে সাত দিনের রিমান্ড আবেদন করা হয়েছে। তবে এ প্রতিবেদন লেখার সময় পর্যন্ত আদালতে রিমান্ড শুনানি হয়নি। শুনানিতে আদালত ওই আসামিদের রিমান্ড মঞ্জুর করলে তাদের আরো জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে।

এদিকে, ময়নাতদন্ত শেষে আজ বুধবার সকাল ১১টার দিকে পরিবারের কাছে শিশু রিয়াদের মরদেহ হস্তান্তর করা হয়েছে। দুপুরে উপজেলার দিশাবন্দ গ্রামের বাড়িতে ওই শিশুর লাশ পৌঁছায়। এ সময় রিয়াদের মা নয়ন বেগম ও বাবা খোকন মিয়াসহ পরিবারের সদস্যদের আহাজারিতে ভারি হয়ে উঠে সেখানকার পরিবেশ। এ ছাড়া শিশু রিয়াদকে শেষ বিদায় জানাতে ও এক নজর দেখার জন্য ভিড় জমাতে শুরু করেন প্রতিবেশীরাও। এলাকার সবাই শিশু রিয়াদের হত্যাকারীদের ফাঁসি দাবি করেছেন।

প্রসঙ্গত, গতকাল মঙ্গলবার সকালে মনোহরগঞ্জ বাজারের পূর্বপাশে রাজেরগড় নামক স্থানের একটি পরিত্যক্ত দোকানের পেছন থেকে উপজেলার দিশাবন্দ গ্রামের খোকন মিয়ার ছেলে ও দিশাবন্দ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণির ছাত্র রিয়াদ হোসেনের (৯) বস্তাবন্দি লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় ওইদিন দুপুরে রিয়াদের বাবা খোকন মিয়া বাদী হয়ে অজ্ঞাত হত্যাকারীদের আসামি করে মনোহরগঞ্জ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

                                           


মন্তব্য