kalerkantho

শনিবার । ১০ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


সৈয়দপুরে ৫টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে মিডডে মিল কর্মসূচি চালু

সৈয়দপুর (নীলফামারী) প্রতিনিধি   

১ মার্চ, ২০১৬ ২১:২৮



সৈয়দপুরে ৫টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে মিডডে মিল কর্মসূচি চালু

নীলফামারীর সৈয়দপুরে ৫টি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে মিডডে মিল কর্মসূচি চালু করা হয়েছে। আজ মঙ্গলবার উপজেলার বোতলাগাড়ী ইউনিয়নের বড়দহ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এই কর্মসূচির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হয়।

নীলফামারী জেলা প্রশাসক মো. জাকীর হোসেন প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে মিডডে মিল কর্মসূচির শুভ উদ্বোধন করেন।

শিক্ষার্থীদের ঝড়ে পড়া রোধ, উপস্থিতি বৃদ্ধি ও পুষ্টিহীনতা রোধে এ কর্মসূচির উদ্বোধন উপলক্ষে বিদ্যালয় চত্বরে এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সৈয়দপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো. জাওয়াদুল হক সরকার, ভাইস চেয়ারম্যান মো. আজমল হোসেন এবং নীলফামারী জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার দিলীপ কুমার বণিক। এতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন বড়দহ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক অসিত কুমার মজুমদার।

অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সৈয়দপুর উপজেলার বোতলাগাড়ী ইউপি চেয়ারম্যান মো. ছাইদুর রহমান সরকার, প্রতিষ্ঠানের পরিচালনা পর্ষদের অভিভাবক সদস্য প্রমোদ চন্দ্র রায়, সৈয়দপুর প্রেস ক্লাবের সভাপতি আমিনুল হক।

পরে প্রধান অতিথি নীলফামারী জেলা প্রশাসক মো. জাকীর হোসেন শিক্ষার্থীদের মাঝে খাবার তুলে দিয়ে মিডডে মিল কর্মসূচির শুভ উদ্বোধন করেন।

এ ব্যাপারে উপজেলা শিক্ষা অফিসার মো. আহসান হাবিব জানান, সৈয়দপুর উপজেলা প্রশাসনের সহযোগিতায় মিডডে মিল কর্মসূচিতে অর্থায়ন করছে দ্বিতীয় লোকাল গভর্মেন্ট সার্পোট প্রোগ্রামের (এলজিএসপি-২)। প্রথম পর্যায়ে উপজেলার ৫টি ইউনিয়নের ৫টি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে একযোগে ওই কর্মসূচি চালু করা হল। বিদ্যালয়গুলো হচ্ছে- উপজেলার ১ নম্বর কামারপুকুর ইউনিয়নের অসুরখাই সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, ২ নম্বর কাশিরাম বেলপুকুর ইউনিয়নের তিনপাই-২ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, ৩ নম্বর বাঙ্গালীপুর ইউনিয়নের লক্ষণপুর উত্তর চড়কপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, ৪ নম্বর বোতলাগাড়ী ইউনিয়নের বড়দহ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় এবং ৫ নম্বর খাতামধুপুর ইউনিয়নের ময়দানপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়। উল্লিখিত বিদ্যালয়গুলোর তৃতীয় শ্রেণী থেকে পঞ্চম শ্রেণী পর্যন্ত ৪৪৫ জন শিক্ষার্থী এ কর্মসূচির আওতায় আসবে। পর্যায়ক্রমে উপজেলা সকল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় মিডডে মিল কর্মসূচির আওতায় আসবে বলে জানা গেছে।
 


মন্তব্য