সিডিএ ভবনে ভাঙচুর ও কর্মী লাঞ্চণার-330953 | সারাবাংলা | কালের কণ্ঠ | kalerkantho

kalerkantho

বুধবার । ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৬। ১৩ আশ্বিন ১৪২৩ । ২৫ জিলহজ ১৪৩৭


সিডিএ ভবনে ভাঙচুর ও কর্মী লাঞ্চণার অভিযোগ ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১ মার্চ, ২০১৬ ২০:৪১



সিডিএ ভবনে ভাঙচুর ও কর্মী লাঞ্চণার অভিযোগ ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে

চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (সিডিএ) ভবনের কক্ষ ভাঙচুর ও এক কর্মীকে লাঞ্চিত করার অভিযোগ উঠেছে নগর ছাত্রলীগ কর্মীদের বিরুদ্ধে। আজ মঙ্গলবার বিকালে একটি সমাবেশে যোগ দিতে যাওয়ার আগে নগরীর কোতয়ালি মোড়ে সিডিএ ভবনের সামনে জড়ো হওয়া একদল ছাত্রলীগকর্মী এ ঘটনা ঘটায় বলে অভিযোগ করেছেন সংস্থাটির সিকিউরিটি ইনচার্জ ফরিদ আহমেদ। তিনি আরো অভিযোগ করেন, তারা সিডিএ ভবনের তিন তলায় সিডিএ’র এই নিরাপত্তা কর্মকর্তার কক্ষের কয়েকটি সরঞ্জাম ভাঙচুর করেছে।

সিকিউরিটি ইনচার্জ ফরিদ আহমদ বলেন, মিছিলে যাবার জন্য সিডিএ’র সীমানার ভেতরে অবস্থান নেয় ছাত্রলীগকর্মীরা। জমায়েত থেকে স্লোগান দিলে গেইটের দারোয়ান মাহফুজ স্লোগান না দিতে বললে তারা তাকে মারধর শুরু করে।

‍তিনি অভিযোগ করে বলেন, তাকে টেনে হিঁচড়ে তিনতলায় আমার কক্ষে এনে তাৎক্ষণিকভাবে সাসপেন্ড করার জন্য চাপ দিতে থাকে। সাসপেন্ড করার ক্ষমতা নেই জানালে তারা ক্ষুব্ধ হয়ে গালিগালাজ করে আমার কক্ষের টেবিল ও দরজা ভাঙচুর করে।

জানা গেছে, কোতয়ালির অদূরে লালদীঘির মাঠে বঙ্গবন্ধুর ছবি বিকৃতির অভিযোগে সাংসদ এম এ লতিফের বিচার চেয়ে নাগরিক মঞ্চের ব্যানারে সমাবেশ ছিল, যেটির প্রধান অতিথি ছিলেন নগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরী। ওই সমাবেশে যোগ দিতেই ছাত্রলীগের কর্মীরা সিডিএ ভবনের সীমানার ভেতরে জমায়েত হয়েছিল।  

ভাঙচুরের বিষয়ে জানতে চাইলে নগর ছাত্রলীগের সভাপতি ইমরান আহমেদ ইমু অভিযোগ অস্বীকার করেন। তিনি বলেন, সিকিউরিটি গার্ড আমাদের দাঁড়াতে নিষেধ করলে আমরা ইন-চার্জের সাথে কথা বলতে গিয়েছিলাম। তবে কোন ধরনের ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেনি।

মন্তব্য