লালমনিরহাটের দুটি উপজেলার ৮ ইউনিয়নে-330922 | সারাবাংলা | কালের কণ্ঠ | kalerkantho

kalerkantho

শুক্রবার । ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৬। ১৫ আশ্বিন ১৪২৩ । ২৭ জিলহজ ১৪৩৭


ইউপি নির্বাচন

লালমনিরহাটের দুটি উপজেলার ৮ ইউনিয়নে ভোটগ্রহণ স্থগিত

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১ মার্চ, ২০১৬ ১৯:০০



লালমনিরহাটের দুটি উপজেলার ৮ ইউনিয়নে ভোটগ্রহণ স্থগিত

লালমনিরহাটের দুটি উপজেলার ২০টি ইউনিয়নের মধ্যে বিলুপ্ত ছিটমহল সংশ্লিষ্ট আটটিতে ভোটগ্রহণ স্থগিত করা হয়েছে। আজ মঙ্গলবার দুপুরে নির্বাচন কমিশন থেকে পাঠানো এ সংক্রান্ত একটি আদেশ লালমনিরহাটে এসে পৌঁছেছে বলে নিশ্চিত করেছেন জেলা নিবার্চন কর্মকর্তা ফজলুল করিম।

প্রসঙ্গত, আগামী ৩১ মার্চ দ্বিতীয় ধাপে হাতীবান্ধা উপজেলার ১২টি ও পাটগ্রাম উপজেলার আটটি ইউনিয়নে একযোগে নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হয়েছিল।

স্থগিত হওয়া ইউনিয়নগুলো হচ্ছে পাটগ্রাম উপজেলার কুচলীবাড়ি, জগতবেড়, পাটগ্রাম, বাউড়া, জোংড়া, শ্রীরামপুর ও বুড়িমারী ইউনিয়ন এবং হাতীবান্ধা উপজেলার গোতামারী ইউনিয়ন।

জেলা ও  উপজেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, লালমনিরহাট জেলার ৫৯টি বিলুপ্ত ছিটমহলের মধ্যে পাটগ্রামে অবস্থান ৫৫টির। এর মধ্যে ১৯টিতে কোনো জনবসতি নেই। বাকি ৩৬টিতে লোকসংখ্যা প্রায় নয় হাজার ৬৪৫ জন। উপজেলার আটটি ইউনিয়নের মধ্যে সাতটির সঙ্গে যুক্ত রয়েছে এসব বিলুপ্ত ছিটমহল। অন্যদিকে হাতীবান্ধার ১২টি ইউনিয়নের মধ্যে শুধু গোতামারীতে পড়েছে দুটি বিলুপ্ত ছিটমহল। আর অবশিষ্ট দুটি ছিটমহল সদর উপজেলায় রয়েছে।

এদিকে আগামী ৩১ মার্চ দ্বিতীয় ধাপে হাতীবান্ধা ও পাটগ্রাম উপজেলার সবকটি ইউনিয়নে ভোট গ্রহণের তফসিল ঘোষণার পরপরই ভোটাধিকার প্রয়োগ নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করেন বিলুপ্ত ছিটমহলবাসী। এই অবস্থায় গত বৃহস্পতিবার পাটগ্রামের বিভিন্ন ইউনিয়নের বিলুপ্ত ছিটমহলবাসী নতুন করে ভোটার তালিকায় অন্তর্ভুক্তসহ সংশ্লিষ্ট ইউনিয়নগুলোর ভোট গ্রহণ পিছিয়ে দেওয়ার দাবিতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার মাধ্যমে প্রধান নির্বাচন কমিশনারসহ সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ে আবেদন করেন। এরই পরিপ্রেক্ষিত আজ মঙ্গলবার দুপুরে হাতীবান্ধা ও পাটগ্রামের আটটি ইউনিয়নে ভোট গ্রহণ স্থগিত করা হয় বলে জানা গেছে।

এ ব্যাপারে লালমনিরহাট জেলা নিবার্চন কর্মকর্তা ফজলুল করিম বলেন, ছিটমহল সংশ্লিষ্ট পাটগ্রামের সাতটি ও হাতীবান্ধা উপজেলার একটি ইউনিয়ন ছাড়া বাকিগুলোতে আগামী ৩১ মার্চ ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

 

 

 

মন্তব্য