kalerkantho


ওয়ালটন ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্ক পরিদর্শনে এনবিআর চেয়ারম্যান

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ১৪:৩৭



ওয়ালটন ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্ক পরিদর্শনে এনবিআর চেয়ারম্যান

গাজীপুরের চন্দ্রায় দেশের শীর্ষস্থানীয় ইলেকট্রনিক্স, ইলেকট্রিক্যাল ও হোম অ্যাপ্লায়েন্সেস প্রস্তুতকারী ওয়ালটনের ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্ক পরিদর্শন করেছেন অভ্যন্তরীণ সম্পদ বিভাগের সিনিয়র সচিব ও জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) চেয়ারম্যান মো. নজিবুর রহমান। তিনি আজ (রবিবার) দুপুরে ওয়ালটন হাইটেক ও মাইক্রোটেক ইন্ডাস্ট্রিজ পার্কে পৌঁছালে তাকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান ওয়ালটন হাইটেক ইন্ডাস্ট্রিজ লি. চেয়ারম্যান এস এম শামসুল আলম এবং ব্যবস্থাপনা পরিচালক এস এম আশরাফুল আলম।

সরকারের রাজস্ব আহরণে উদ্বুদ্ধকরণ কার্যক্রমের অংশ হিসেবে তিনি ওয়ালটন পরিদর্শন করছেন বলে জানান।

ওয়ালটনের ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্ক পরিদর্শনে রাজস্ব আহরণে অসামান্য সফলতা অর্জনের নেপথ্য কারিগর এনবিআর চেয়ারম্যান নজিবুরের সঙ্গে ছিলেন কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সেল এর মহাপরিচালক বেলাল উদ্দীন, ঢাকা উত্তরের কাস্টমস, এক্সাইজ অ্যান্ড ভ্যাট কমিশনারেট মাসুদ সাদিক, গাজীপুর জোনের কর কশিনার সুলতানা আহমেদ, গাজীপুর জোনের কাস্টমস, এক্সাইজ অ্যান্ড ভ্যাট বিভাগের প্রধান সহকারী কমিশনার নূর-এ-হাসনা সানজিদা অনসূয়া, চেয়ারম্যানের একান্ত সচিব শামসুল ইসলাম ও এনবিআরের সিনিয়র তথ্য কর্মকর্তা সৈয়দ এ মু’মেনসহ এনবিআরের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

এ সময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ওয়ালটন গ্রুপের নির্বাহী পরিচালক এস এম জাহিদ হাসান (পলিসি, এইচআরএম অ্যান্ড অ্যাডমিন), সিরাজুল ইসলাম (পলিসি, এইচআরএম অ্যান্ড অ্যাডমিন), নির্বাহী পরিচালক (উৎপাদন) আলমগীর আলম সরকার, সিনিয়র অপারেটিভ ডিরেক্টর উদয় হাকিম, কর্নেল (অব.) এস এম শাহাদত হোসেন, ফার্স্ট সিনিয়র অ্যাডিশনাল ডিরেক্টর ফিরোজ আলম, মিডিয়া উপদেষ্টা এনায়েত ফেরদৌস প্রমুখ।

উল্লেখ্য, নজিবুর রহমানের নেতৃত্বে বর্তমান জাতীয় রাজস্ব বোর্ড উদ্ভাবনীমূলক নানা পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। এর মধ্যে অংশীজনের সঙ্গে নিয়মিত রাজস্ব সংলাপ, জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে আয়কর মেলা ছড়িয়ে দেওয়া, ভ্যাট মেলা, হয়রানি বন্ধে ডিজিটাল কর সেবাকেন্দ্র, ভ্যাট দিবস, আন্তর্জাতিক কাস্টমস দিবস এবং ভ্যাট অনলাইন প্রকল্পের আওয়তায় কল সেন্টার চালু ইত্যাদি পদক্ষেপ অন্যতম।

করের আওতা বৃদ্ধি করতে ও সক্ষম করাদাতাদের কর প্রদানে উৎসাহিত করতে করদাতাবান্ধব, হয়রানিমুক্ত ও ডিজিটাল এনবিআর গড়ার লক্ষ্যে বর্তমান এনবিআর নেতৃবৃন্দ নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন।

চলতি অর্থবছর থেকে অনলাইনে আয়কর রিটার্ন দাখিল প্রক্রিয়া পুরোপুরিভাবে বাস্তবায়নে সক্ষম হয়েছেন এনবিআর চেয়ারম্যান। তার বলিষ্ঠ নেতৃত্বে ইতিমধ্যে করদাতার সংখ্যা ২৭ লাখ অতিক্রম করেছে। যা অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত ঘোষিত ৩০ লাখ করদাতার কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যমাত্রার কাছাকাছি।

রাজস্ব বোর্ডের নিরলস পরিশ্রমের ফলে ২০১৩-১৪ অর্থবছরে রাজস্ব আদায়ের পরিমাণ দাঁড়ায় ১,২০,৮২০ কোটি টাকা। ২০১৫-১৬ অর্থবছরে এর পরিমাণ দাঁড়ায় প্রায় ১,৫৫,০০০ কোটি টাকা। বর্তমানে ২০১৬-১৭ অর্থবছরের রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা ২,০৩,১৫২ কোটি টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে।

যথাযথ নীতিমালা অনুসরণের মাধ্যমে সর্বোচ্চ পরিমাণ কর পরিশোধ করায় জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) কর্তৃক সেরা করদাতার সম্মাননা অর্জন করেছে দেশের ইলেকট্রনিক্স জায়ান্ট ওয়ালটন। ২০১৫-১৬ অর্থবছরে ফার্ম ক্যাটাগরিতে সর্বোচ্চ পরিমাণ কর প্রদান করায় এনবিআর ৫টি প্রতিষ্ঠানকে পুরস্কৃত করে। যার মধ্যে ওয়ালটন মাইক্রোটেক করপোরেশন প্রথম এবং ওয়ালটন প্লাজা দ্বিতীয় পুরস্কার লাভ করে। যার স্বীকৃতিস্বরূপ জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের কাছ থেকে ট্যাক্স কার্ড ও সনদ লাভ করে তারা।
 
একই সঙ্গে সর্বোচ্চ পরিমাণ মূল্য সংযোজন কর (মূসক) বা ভ্যাট প্রদান করায় ২৯টি জেলায় সেরা ভ্যাটদাতার সম্মাণনাও অর্জন করেছে ওয়ালটন প্লাজা। ব্যবসা ক্যাটাগরিতে সারা দেশে মোট ৪৯টি জোন থেকে সেরা ভ্যাটদাতাদের পুরস্কার দেওয়া হয়। যার মধ্যে ওয়ালটন প্লাজা একাই পেয়েছে ২৯টি।

সদ্যসমাপ্ত ২২তম ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্যমেলাতেও ভ্যাট বাবদ ৩৬ লাখ ৩ হাজার ৮৯৯ টাকা সরকারি কোষাগারে জমা দিয়ে শীর্ষ ভ্যাট প্রদানকারীর পুরস্কার পায় ওয়ালটন। এ ছাড়া সর্বোচ্চ ভ্যাট প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান হিসেবে এনবিআরের সম্মাননা ক্রেস্ট ও সনদও পেয়েছে ওয়ালটন।

 

 


মন্তব্য