kalerkantho

চলতি বিশ্ব

৩০ জানুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মিন্দানাওয়ে গণভোটে স্বায়ত্তশাসনের পক্ষে রায়

ফিলিপাইনের মুসলমান অধ্যুষিত মিন্দানাও অঞ্চলে স্বায়ত্তশাসনের পক্ষে ভোট পড়েছে প্রায় ৮৫ শতাংশ। গত ২১ জানুয়ারির গণভোটে ওই অঞ্চলের প্রায় ১৭ লাখ ভোটার ভোট দেয়। ২৫ জানুয়ারি রাতে নির্বাচন কমিশন ফল ঘোষণা করে। ভোটারদের রায় স্বায়ত্তশাসনের পক্ষে হওয়ায় আগামী তিন বছরের মধ্যে ক্ষমতা হস্তান্তর প্রক্রিয়া সম্পন্ন হওয়ার কথা রয়েছে। স্বায়ত্তশাসন চালু হলে ওই অঞ্চলটির নাম হবে ‘বাংসামোরো’।

পরিকল্পনা অনুযায়ী আগামী ২০২২ সাল নাগাদ ‘বাংসামোরো’তে স্থানীয় সরকার নির্বাচন হবে। যার মাধ্যমে ওই অঞ্চলের লোকজন নিজস্ব পার্লামেন্ট ও মুখ্যমন্ত্রী নির্বাচিত করবে। কেন্দ্রীয় সরকার থেকে বেশ কিছু ক্ষমতা স্থানীয় সরকারের কাছে যাবে। ওই অঞ্চলের প্রায় ৫০ লাখ মানুষের জন্য তহবিলের জোগান বাড়বে এবং সেখানকার প্রাকৃতিক সম্পদের ওপর স্থানীয় সরকারের অধিকার প্রতিষ্ঠা পাবে।

এশিয়ার সবচেয়ে সংঘাতময় অঞ্চল মিন্দানাওয়ে শান্তি ফেরানোর আশায় এ গণভোটের আয়োজন করা হয়। এক দশকের বেশি সময় ধরে সেনাবাহিনীর সঙ্গে ইসলামপন্থী বিচ্ছিন্নতাবাদী ও অন্য বিদ্রোহীদের সংঘাতের কারণে মিন্দানাও ফিলিপাইনের সবচেয়ে দরিদ্র অঞ্চলে পরিণত হয়েছে। সেখানে ২০১৭ সাল থেকে সামরিক শাসন জারি আছে। মিন্দানাও অঞ্চলে স্বাধীনতার দাবিতে গত এক দশকের বেশি সময় ধরে বিচ্ছিন্নতাবাদী দল ‘মোরো ইসলামিক লিবারেশন ফ্রন্ট’ (এমআইএলএফ) ফিলিপাইনের সরকারি বাহিনীর সঙ্গে যুদ্ধ করছে। ওই অঞ্চলে শান্তি প্রতিষ্ঠায় ব্যর্থ ফিলিপাইন সরকার সম্প্রতি এমআইএলএফের সঙ্গে একটি শান্তিচুক্তি স্বাক্ষর করেছে। চুক্তির আওতায় অনুষ্ঠিত হলো এ গণভোট।

মন্তব্য