kalerkantho


বাংলাদেশ ব্যাংকে সহকারী পরিচালক নিয়োগ পরীক্ষা

আপনি তৈরি তো?

শিগগির সহকারী পরিচালক নিয়োগ পরীক্ষার তারিখ ঘোষণা করবে বাংলাদেশ ব্যাংক। ঠিকঠাক প্রস্তুতি না নিলে বাদ পড়তে পারেন প্রিলিমিনারি পর্ব থেকেই। জানাচ্ছেন আরাফাত শাহরিয়ার

৭ মার্চ, ২০১৮ ০০:০০



আপনি তৈরি তো?

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সহকারী পরিচালক হওয়ার স্বপ্ন দেখেন অনেকেই। ভালো বেতন, সামাজিক মর্যাদা ও নানা আর্থিক সুযোগ-সুবিধার কারণে এটি তরুণদের পছন্দের চাকরি। সার্কুলার জারি করা হয়েছে বেশ আগেই। আবেদনপ্রক্রিয়াও শেষ। শিগগির ঘোষণা করা হবে পরীক্ষার দিনক্ষণ। জোর প্রস্তুতি না থাকলে তুমুল প্রতিযোগিতামূলক এ পরীক্ষায় টেকা কঠিন।

 

পরীক্ষা পদ্ধতি

বাংলাদেশ ব্যাংকের উপপরিচালক ও ২০১৩ ব্যাচের নিয়োগ পরীক্ষায় মেধাতালিকায় চতুর্থ মো. ফারুক হোসেন জানান, সহকারী পরিচালক পদে মোট ৩০০ নম্বরের পরীক্ষা হয়। ১০০ নম্বরের প্রিলিমিনারিতে সময় ১ ঘণ্টা ও ২০০ নম্বরের লিখিত পরীক্ষায় বরাদ্দ থাকে ২ ঘণ্টা। প্রিলিমিনারিতে বাংলায় ২০, সাধারণ জ্ঞানে ২০, কম্পিউটার ও তথ্যপ্রযুক্তিতে ১০, ইংরেজিতে ২০ ও গণিতে বরাদ্দ থাকে ৩০ নম্বর।

 

বাংলা

প্রিলিমিনারিতে বাংলা অংশে ২০টি এমসিকিউ প্রশ্ন থাকে। সাহিত্য ও ব্যাকরণ থেকে প্রশ্ন করা হয়। সাহিত্য অংশে কবি-সাহিত্যিকদের জীবনী, তাঁদের সাহিত্যকর্ম, প্রকাশকাল প্রভৃতি নিয়ে প্রশ্ন করা হয়। ব্যাকরণ অংশে বাংলা বানান শুদ্ধিকরণ, বাক্য শুদ্ধিকরণ, প্রবাদ-প্রবচন, এককথায় প্রকাশ, বাগধারা, সন্ধি, পদ, সমাস, কারক, প্রকৃতি ও প্রত্যয়, উপসর্গ, ক্রিয়ার কাল, পারিভাষিক শব্দ প্রভৃতি বিষয়ে প্রশ্ন করা হয়ে থাকে। বোর্ডের নবম-দশম শ্রেণির ‘বাংলা ভাষার ব্যাকরণ’ বই কাজে দেবে। দেখতে পারেন মাহবুবুল আলমের ‘বাংলা সাহিত্যের ইতিহাস’, হুমায়ুন আজাদের ‘লাল নীল দীপাবলী’ বা ‘বাংলা সাহিত্যের জীবনী’ ও সৌমিত্র শেখরের ‘বাংলা ভাষা ও সাহিত্যের জিজ্ঞাসা’।

 

ইংরেজি

ইংরেজিতে সাধারণত ২০টি এমসিকিউ টাইপের প্রশ্ন থাকে। এর মধ্যে ১০টি ভোকাবুলারির ওপর ভিত্তি করে সিনোনিম, অ্যান্টনিম অথবা অ্যানালজি থেকে ও বাকি ১০টি ইংরেজি ব্যাকরণ থেকে করা হয়। গ্রামারের নানা টপিক থেকে প্রশ্ন আসে। Appropriate Preposition, Group Verb, Idiom, Phrase মুখস্থ রাখতে হবে। Vocabulary জানতে হবে বেশি বেশি। ইংরেজি সংবাদপত্র, বই, ম্যাগাজিন পড়ার অভ্যাস করতে হবে। সঙ্গে সঙ্গে অজানা শব্দের অর্থ জেনে নিতে হবে। সহায়ক গ্রন্থ হিসেবে Wren & Martin-এর English Grammar ও TOEFL-এর বই পড়তে পারেন।

 

গণিত

৩০টি এমসিকিউ টাইপের প্রশ্ন থাকে। অন্যান্য বিষয়ের তুলনায় গণিতে বেশি সময় লাগে। সাধারণ গণিতের পাশাপাশি গাণিতিক বিশ্লেষণী ক্ষমতা যাচাইয়ের জন্য গ্রাফ, ছক, টেবিল বা বর্ণনা দেওয়া থাকে, যা থেকে প্রশ্নের উত্তর দিতে হয়। প্রতিদিন বুঝে অনুশীলন করতে হবে। বিগত বছরের নিয়োগ পরীক্ষার প্রশ্ন, বিভিন্ন ব্যাংকে নিয়োগ পরীক্ষার প্রশ্ন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইবিএর এমবিএ ভর্তি পরীক্ষার প্রশ্ন, জেঊ, গেঅঞ-এর ম্যাথ সমাধান করতে পারেন। ক্যালকুলেটর ছাড়া অঙ্ক সমাধানের অনুশীলন করতে হবে। প্রিলিমিনারির প্রস্তুতি এমনভাবে নিতে হবে, যেন লিখিত অংশের প্রস্তুতিও হয়ে যায়।

 

সাধারণ জ্ঞান

সাধারণ জ্ঞান থেকে ২০টি এমসিকিউ টাইপের প্রশ্ন থাকে। সমসাময়িক রাজনীতি, অর্থনৈতিক, আন্তর্জাতিক ইস্যুগুলো জানতে হবে। ভালো করার জন্য নিয়মিত দৈনিক পত্রিকা পড়তে হবে। গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলো নোট করে পরে বারবার চোখ বুলিয়ে নিতে হবে। বাজারে প্রচলিত সাধারণ জ্ঞানের বই (যেমন—আজকের বিশ্ব, নতুন বিশ্ব) পড়তে পারেন। পড়তে হবে কারেন্ট অ্যাফেয়ার্সবিষয়ক একাধিক মাসিক পত্রিকা।

 

কম্পিউটার ও প্রযুক্তি

১০টি এমসিকিউ টাইপের প্রশ্ন থাকে। কম্পিউটার ও তথ্য-প্রযুক্তি অংশে প্রশ্ন রিপিট হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। এ জন্য বিগত সালের বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রশ্ন ও বিভিন্ন ব্যাংকের প্রশ্নের কম্পিউটার ও তথ্য-প্রযুক্তি অংশ সমাধান করলে কাজে দেবে। নবম-দশম শ্রেণি ও এইচএসসির কম্পিউটার বই পড়তে পারেন। এ ছাড়া বাজারে প্রচলিত তিন-চারটি প্রকাশনীর সহায়ক বই পড়ে ফেলতে পারেন।


মন্তব্য