kalerkantho

দেশ পরিচিতি

পর্তুগাল

১৭ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০




পর্তুগাল

ইউরোপের সর্বপশ্চিমে পর্তুগালের অবস্থান। এর পশ্চিম ও দক্ষিণে আটলান্টিক মহাসাগর, উত্তর ও পূর্বে স্পেন। আটলান্টিক মহাসাগরে অবস্থিত আজোরেস ও ম্যাদেইরা দ্বীপপুঞ্জও এর অংশ। এ দুটি দ্বীপপুঞ্জ স্বায়ত্তশাসিত ও আঞ্চলিক সরকারের মাধ্যমে পরিচালিত হয়। ইউরোপের সবচেয়ে পুরনো দেশগুলোর মধ্যে পর্তুগাল অন্যতম। প্রাগৈতিহাসিককাল থেকেই এ দেশটিতে নিয়মিত বসতি গড়ে তোলা হয়েছে। পর্তুগালের নিজস্ব সাম্রাজ্য প্রথম প্রতিষ্ঠিত হয় পঞ্চদশ ও ষোড়শ শতাব্দীতে। অর্থনৈতিক, রাজনৈতিক ও সামরিক দিক থেকে তখন বিশ্বসেরা ছিল পর্তুগাল। নৌযাত্রায় বিশেষ দক্ষতা অর্জন করেছিল দেশটির নাবিকরা। এ ক্ষেত্রে ভাস্কোদাগামার নাম বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য। এ সময় মসলার ব্যবসা একচেটিয়াভাবে নিয়ন্ত্রণ করত পর্তুগাল। ১৭৫৫ সালে লিসবনে ভূমিকম্প, ব্রাজিলের স্বাধীনতাসহ (১৮২২) নানা কারণে পর্তুগালের নেতৃস্থানীয় অবস্থানে চিড় ধরে। ১৯১০ সালে এক অভ্যুত্থানে রাজতন্ত্রের পতন হয়। গণতন্ত্রের উদ্ভব হলেও অস্থিতিশীলতার কারণে নানা সংকটের মধ্য দিকে যায় দেশটি। পর্তুগিজ উপনিবেশের পতন ঘটতে শুরু করে। সর্বশেষ ম্যাকাউকে চীনের কাছে হস্তান্তর করা হয় ১৯৯৯ সালে। এর মধ্য দিয়েই শেষ হয় বিশ্বের সবচেয়ে দীর্ঘ ঔপনিবেশিক শাসন। বিশ্বে বর্তমানে পর্তুগিজ ভাষা ব্যবহারকারীর সংখ্যা ২৫ কোটির বেশি। অর্থনৈতিকভাবে বেশ সমৃদ্ধ পর্তুগাল।

 

এক নজরে

পুরো নাম: পর্তুগিজ রিপাবলিক।

রাজধানী ও সবচেয়ে বড় শহর: লিসবন।

দাপ্তরিক ভাষা : পর্তুগিজ।

স্বীকৃত আঞ্চলিক ভাষা : মিরানদেস।

জাতিগোষ্ঠী : ৯৬.৩ শতাংশ পর্তুগিজ, ৩.৭ শতাংশ অন্যান্য। 

সরকারপদ্ধতি : ইউনিটারি সেমি-প্রেসিডেনশিয়াল রিপাবলিক।

প্রেসিডেন্ট : মার্সেলো রেবেলো দ্য সুজা।

আইনসভা : অ্যাসেম্বলি অব দ্য রিপাবলিক।

আয়তন : ৯২ হাজার ২১২ বর্গকিলোমিটার।

জনসংখ্যা : এক কোটি তিন লাখ ৯ হাজার ৫৭৩, ঘনত্ব : প্রতি বর্গকিলোমিটারে ১১৫ জন।

জিডিপি : মোট ৩১১.৩২১ বিলিয়ন ডলার, মাথাপিছু : ৩০ হাজার ২৫৮ ডলার।

মুদ্র : ইউরো।

জাতিসংঘে যোগদান : ১৪ ডিসেম্বর, ১৯৫৫ সাল।



মন্তব্য