kalerkantho


পূবালী ব্যাংকে ৪৫০ নিয়োগ

সিনিয়র অফিসার, অফিসার ও ট্রেইনি অ্যাসিস্ট্যান্ট ট্রেলার পদে ৪৫০ জন নিয়োগ দেবে পূবালী ব্যাংক লিমিটেড। অনলাইনে আবেদন করা যাবে ১৬ মার্চ সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত। বিস্তারিত জানাচ্ছেন ফরহাদ হোসেন

১ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



পূবালী ব্যাংকে ৪৫০ নিয়োগ

সিনিয়র অফিসার পদে নেওয়া হবে ১০০ জন। অফিসার পদের জন্য ব্যাংকটির দরকার ১৫০ জন কর্মী।

ট্রেইনি অ্যাসিস্ট্যান্ট ট্রেলার পদে নেওয়া হবে ২০০ জন। তিন পদেই এক বছর শিক্ষানবিশ হিসেবে কাজ করতে হবে। ট্রেইনি অ্যাসিস্ট্যান্ট ট্রেলার পদের জন্য নিয়োগ বিজ্ঞপ্তিতে উল্লিখিত জেলা প্রার্থীরা আবেদন করতে পারবেন। নিয়োগ বিজ্ঞপ্তিটি ছাপা হয়েছে ২২ ফেব্রুয়ারির প্রথম আলো পত্রিকায়। বিজ্ঞপ্তিটি পাওয়া যাবে www.pubalibangla.com/career.asp ওয়েবলিংকেও।

 

আবেদনের যোগ্যতা

পূবালী ব্যাংকের মানবসম্পদ বিভাগের সহকারী মহাব্যবস্থাপক ইসমত আরা হক জানান, সিনিয়র অফিসার পদে আবেদনের যোগ্যতা চার বছরমেয়াদি স্নাতক (সম্মান)সহ এমকম/এমবিএস/এমবিএ/এমবিএম বা স্নাতকোত্তর ডিগ্রি। কমপক্ষে তিনটি পরীক্ষায় থাকতে হবে প্রথম শ্রেণি বা বিভাগ। জিপিএ পদ্ধতিতে পাঁচ পয়েন্ট স্কেলে ন্যূনতম পয়েন্ট থাকতে হবে ৩.৫০ অথবা সিজিপিএ পদ্ধতিতে কমপক্ষে ৪ পয়েন্ট স্কেলে ন্যূনতম ৩ পয়েন্ট থাকতে হবে এসএসসি থেকে স্নাতকোত্তর পর্যন্ত যেকোনো তিনটি পরীক্ষায়। অফিসার পদে প্রার্থীর আবেদনের যোগ্যতা চার বছরমেয়াদি স্নাতক (সম্মান)সহ এমকম/এমবিএস/এমবিএ/এমবিএম বা স্নাতকোত্তর ডিগ্রি।

কমপক্ষে দুটি পরীক্ষায় থাকতে হবে প্রথম শ্রেণি বা বিভাগ।

জিপিএ পদ্ধতিতে ৫ পয়েন্ট স্কেলে ৩.৫০ অথবা ৪ পয়েন্ট স্কেলে ন্যূনতম ৩ পয়েন্ট থাকতে হবে এসএসসি থেকে স্নাতকোত্তর পর্যন্ত যেকোনো দুটি পরীক্ষায়।

সিনিয়র অফিসার ও অফিসার দুই পদের জন্যই পদার্থ/ফলিত পদার্থ, রসায়ন/ফলিত রসায়ন, গণিত/ফলিত গণিত, পরিসংখ্যান, আন্তর্জাতিক সম্পর্ক, অর্থনীতি/কৃষি অর্থনীতি, ডেভেলপমেন্ট স্টাডিজ ও ইংরেজি বিষয়ে উত্তীর্ণরা আবেদন করতে পারবেন। বিদেশি ডিগ্রির ক্ষেত্রে ইউজিসির অনুমোদনপ্রাপ্ত স্নাতকোত্তর বা সমমানের ডিগ্রিধারীরা আবেদন করতে পারবেন। প্রার্থীকে অবশ্যই কম্পিউটারে দক্ষ হতে হবে।

কোনো পরীক্ষায় তৃতীয় বিভাগ কিংবা জিপিএ ২.৭৫-এর নিচে থাকা চলবে না।

স্নাতক হলেই আবেদন করা যাবে ট্রেইনি অ্যাসিস্ট্যান্ট ট্রেলার পদে। ৩১ জানুয়ারি ২০১৭ তারিখে তিনটি পদের জন্যই বয়সসীমা সর্বোচ্চ ৩০ বছর। তবে পূবালী ব্যাংকে কর্মরতদের জন্য বয়সসীমা ৩২ বছর। ট্রেইনি অ্যাসিস্ট্যান্ট ট্রেলার পদে ব্যাংকে কর্মরতদের সন্তানদের ক্ষেত্রেও বয়সসীমা ৩২ বছর। ব্যাংকটিতে কর্মরতদের কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে আবেদন করতে হবে। অ্যাপিয়ার্ড সনদ দিয়ে আবেদন করা যাবে না।

 

আবেদনপদ্ধতি

আবেদন করতে হবে অনলাইনে। ১৬ মার্চ সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত আবেদন করা যাবে। পূবালী বাংকের ওয়েবলিংকের (www.pubalibangla.com/career.asp) মাধ্যমে আবেদন করতে হবে। আবেদন ফরম পূরণের আগে প্রার্থীর পাসপোর্ট সাইজের রঙিন ছবি স্ক্যান করে নিতে হবে। অনলাইনে ফরম পূরণের পর ছবিসহ আবেদন সাবমিট করতে হবে। আবেদন সাবমিট করার পর applicant identification number পাওয়া যাবে। নম্বরটি সংরক্ষণ করে রাখতে হবে।  

 

পরীক্ষাপদ্ধতি

ইসমত আরা হক জানান, প্রার্থী নির্বাচনে তিন ধরনের পরীক্ষা নেওয়া হয়। এমসিকিউ ও রচনামূলক পরীক্ষার দায়িত্ব দেওয়া হয় তৃতীয় পক্ষকে। এমসিকিউ ও রচনামূলক পরীক্ষায় উত্তীর্ণদের মৌখিক পরীক্ষা নিয়ে থাকে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ। ২০১৬ সালে নিয়োগপ্রাপ্ত বর্তমানে পূবালী ব্যাংকের প্রধান কার্যালয়ে অফিসার হিসেবে কর্মরত মো. শাহান শাহ জানান, সিনিয়র অফিসার ও অফিসার পদের জন্য একই তারিখে একই প্রশ্নপত্রে পরীক্ষা হয়ে থাকে। এমসিকিউ ও লিখিত পরীক্ষা সাধারণত বাংলা, ইংরেজি, সাধারণ গণিত ও সাধারণ জ্ঞান (বাংলাদেশ ও আন্তর্জাতিক বিষয়াবলি), তথ্য-প্রযুক্তি, অ্যানালিটিক্যাল অ্যাবিলিটি বিষয়ে প্রশ্ন থাকে। বিগত বছরের পূবালী ব্যাংক নিয়োগ পরীক্ষার প্রশ্ন অনুসরণ করলে এমসিকিউ ও লিখিত পরীক্ষায় ভালো করা যাবে।

২০১৬ সালে সিনিয়র অফিসার ও অফিসার পদে ৫০ নম্বরের এমসিকিউ ও ১০০ নম্বরের লিখিত রচনামূলক পরীক্ষা নেওয়া হয়। ট্রেইনি অ্যাসিস্ট্যান্ট ট্রেলার পদেও একই পদ্ধতিতে পরীক্ষা নেওয়া হয়। তবে এতে ক্যাশসংক্রান্ত বিষয়েও প্রশ্ন আসতে পারে।

 

বিষয়ভিত্তিক প্রস্তুতি

২০১৬ সালে নিয়োগপ্রাপ্ত পূবালী ব্যাংকের মতিঝিল প্রিন্সিপাল শাখায় কর্মরত সিনিয়র অফিসার পলাশ ঘোষ জানান, বাংলা বিষয়ে ভাষা ও সাহিত্যের বিভিন্ন বিষয় পড়তে হবে। সাধারণ গণিতের ইংরেজি ভার্সন ভালো করে পড়তে হবে। লিখিত পরীক্ষায় বাংলা, গণিত ও ইংরেজি বিষয়ে প্রশ্ন করা হয়। লিখিত পরীক্ষার জন্য বাংলা বিষয়ে রচনা, লেটার, অ্যাপ্লিকেশন ও অনুবাদে জোর দিতে হবে। ইংরেজিতে রচনা, ট্রান্সলেশন, সামারি, লেটার, অ্যাপ্লিকেশনে ভালো ধারণা থাকতে হবে। যেকোনো বিষয়ে ফ্রি হ্যান্ডরাইটিংয়ের অভ্যাস করতে হবে। সাধারণ গণিত বিষয়ে শতকরা, সুদকষা, ঐকিক নিয়ম, অনুপাত-সমানুপাত রপ্ত করতে হবে। সাধারণ জ্ঞানে সমসাময়িক বিষয়ে ভালো ধারণা থাকতে হবে। বিভিন্ন ব্যাংকের নিয়োগ পরীক্ষার বিগত বছরের প্রশ্ন সমাধান করলে প্রস্তুতিতে বেশ কাজে দেবে।

 

সহায়ক যত বই

মো. শাহান শাহ জানান, বাংলা বিষয়ের প্রস্তুতির জন্য সৌমিত্র শেখরের বাংলা ব্যাকরণ, নবম-দশম শ্রেণির ভাষা সাহিত্য ও ব্যাকরণ বই বেশ কাজে দেবে। তথ্য-প্রযুক্তি বিষয়ের জন্য বোর্ডের নবম-দশম ও একাদশ-দ্বাদশ শ্রেণির কম্পিউটার বই পড়তে হবে। ইংরেজির জন্য ভালোমানের দুটি বই সংগ্রহ করে পড়লেই চলবে।

গণিতের প্রস্তুতির জন্য পড়তে পারেন অষ্টম শ্রেণির গণিত বই, সাইফুরসের ম্যাথ ও প্রফেসরস ম্যাথ বই। বাজারে পাওয়া যায় বেশ কিছু প্রকাশনীর ব্যাংক জব গাইড। এসব বইয়ে বিগত বছরের প্রশ্নপত্র ও সমাধান দেওয়া থাকে।

নতুন সংস্করণের আজকের বিশ্ব, জ্ঞানকোষ, তথ্যভাণ্ডার ইত্যাদি বই এবং কারেন্ট অ্যাফেয়ার্সসহ তথ্যভিত্তিক মাসিক সাময়িকী পড়তে হবে সাধারণ জ্ঞানের প্রস্তুতির জন্য। জাতীয় দৈনিক পত্রিকা নিয়মিত পড়তে হবে। বিশেষ করে খুঁটিয়ে খুঁটিয়ে পড়তে হবে অর্থনৈতিক প্রতিবেদন, বিশ্লেষণ, সম্পাদকীয়, কলাম। আন্তর্জাতিক বিষয়াবলি জানার জন্য পড়তে হবে আন্তর্জাতিক পাতা।

 

বেতন-ভাতা

সিনিয়র অফিসার পদে এক বছর শিক্ষানবিশকালে মাসিক বেতন পাওয়া যাবে ৩৫ হাজার টাকা। অফিসার পদে এক বছর শিক্ষানবিশকালে ৩০ হাজার এবং ট্রেইনি অ্যাসিস্ট্যান্ট ট্রেলার পদে শিক্ষানবিশকালে মাসিক বেতন পাওয়া যাবে ২০ হাজার টাকা। সফলভাবে এক বছর শিক্ষানবিশকাল শেষে ব্যাংকের নির্ধারিত বেতন কাঠামো অনুসারে বেতন ও অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা পাওয়া যাবে।


মন্তব্য