kalerkantho


৬৪৫ কর্মকর্তা নেবে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর

উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা পদের জন্য নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর। শূন্য পদে অস্থায়ীভাবে নিয়োগ দেওয়া হবে ৬৪৫ জন। বিজ্ঞপ্তিটি প্রকাশিত হয়েছে ১ ফেব্রুয়ারির জনকণ্ঠ (পৃষ্ঠা ৮) ও ইত্তেফাকে (পৃষ্ঠা ৫)। বিস্তারিত জানাচ্ছেন আনিসুর রহমান

১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



আবেদন করতে পারবেন শুধু মুক্তিযোদ্ধা কোটার প্রার্থীরাই। তবে রাঙামাটি, খাগড়াছড়ি ও বান্দরবান পার্বত্য জেলার অধিবাসীরা আবেদন করতে পারবেন না। আগ্রহী প্রার্থীরা অনলাইনে আবেদন করতে পারবেন ৫ মার্চের সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত। নিয়োগ বিজ্ঞপ্তিটি পাওয়া যাবে http://dae.teletalk.com.bd/doc/Advertisement.pdf লিংকে।

 

আবেদনের যোগ্যতা

প্রার্থীকে বাংলাদেশের নাগরিক হতে হবে। লাগবে স্বীকৃত ইনস্টিটিউট থেকে কৃষিবিজ্ঞানে চার বছর মেয়াদি ডিপ্লোমা। ২ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ তারিখের মধ্যে মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের ক্ষেত্রে বয়স হতে হবে ১৮ থেকে ৩২ বছর। তবে মুক্তিযোদ্ধার নাতি-নাতনিদের বেলায় বয়সসীমা ১৮ থেকে ৩০ বছর।

 

যেভাবে আবেদন করবেন

প্রকাশিত নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি থেকে জানা যায়, শুধু অনলাইনে আবেদন করা যাবে ৫ মার্চ সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত। ওয়েবসাইটে প্রবেশ করলে ‘উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা নিয়োগ ২০১৭’-এর অনলাইন আবেদন ফরম পাওয়া যাবে। নির্ধারিত বাটনে ক্লিক করে আবেদন ফরম পূরণ করতে হবে।

জেপিজি/জেপিইজি ফরম্যাটে ৩০০×৮০ (৬০ কেবি) পিক্সেলের স্বাক্ষর ও ৩০০×৩০০ (১০০ কেবি) পিক্সেলের রঙিন ছবি আপলোড করতে হবে। তাই আগে থেকেই এগুলোর সফট কপি প্রস্তুত রাখলে আবেদনপত্র পূরণ সহজ হবে। আবেদনপত্র নির্ভুলভাবে সাবমিট করা শেষ হলে প্রার্থী ইউজার আইডি, পাসওয়ার্ডসহ একটি অ্যাপলিক্যান্ট কপি পাবেন। আবেদনপত্র পূরণের পর টেলিটক প্রিপেইড মোবাইল নম্বর থেকে নিয়মানুযায়ী এসএমএসের মাধ্যমে পরীক্ষার ফি বাবদ ১১২ টাকা পাঠাতে হবে। এসএমএস পাঠাতে হবে ৭২ ঘণ্টার মধ্যে। ইউজার আইডি ও পাসওয়ার্ড ব্যবহার করে প্রার্থীরা ওয়েবসাইট থেকে প্রবেশপত্র সংগ্রহ করতে পারবেন।

 

পরীক্ষার প্রস্তুতি

দুই ধাপে হয়ে থাকে লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষা। লিখিত পরীক্ষা হয় ৭৫ নম্বরের। আর মৌখিক পরীক্ষায় নম্বর বরাদ্দ থাকে ২৫। প্রশ্নের ধরন সম্পর্কে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক (পার্সোনেল) মোয়াজ্জেম হোসেন জানান, প্রার্থীদের চার বছর মেয়াদি যে বিষয়ের ওপর কৃষি ডিপ্লোমা চাওয়া হয়েছে, প্রশ্নে সে বিষয়ের ওপর জোর দেওয়া হবে। প্রশ্ন আসবে বাংলা, ইংরেজি, সাধারণ জ্ঞান ও গণিত থেকে। বাংলা অংশে ব্যাকরণ ও সাহিত্য থেকে প্রশ্ন আসে। এই অংশে ভালো করতে হলে নবম শ্রেণির বোর্ডের বাংলা ব্যাকরণ বই এবং সাহিত্য অংশের জন্য সৌমিত্র শেখরের ‘বাংলা ভাষা ও সাহিত্য জিজ্ঞাসা’ বই দুটি দেখতে হবে। ইংরেজি অংশে সাধারণত গ্রামার থেকে প্রশ্ন আসে। এ অংশের জন্য প্রফেসরসের ‘ইংলিশ ফর কমপিটিটিভ এক্সামস’ বইটি কাজে আসবে। সাধারণ জ্ঞান অংশে ভালো করতে হলে বাংলাদেশ, আন্তর্জাতিক ও সাম্প্রতিক বিষয়গুলো আয়ত্তে রাখতে হবে। আজকের বিশ্ব, নতুন বিশ্ব ও মাসিক তথ্যভিত্তিক সাময়িকীগুলো পড়লে ভালো ফল পাবেন। আর গণিতের জন্য দেখতে হবে ষষ্ঠ থেকে নবম শ্রেণির গণিত বইগুলো। মোয়াজ্জেম হোসেন বলেন, লিখিত পরীক্ষা হবে আবেদনের শেষ তারিখ থেকে এক মাসের মধ্যে। আর মৌখিক পরীক্ষা হবে লিখিত পরীক্ষার ফল প্রকাশের ২১ দিনের মধ্যে। মৌখিক পরীক্ষা সম্পর্কে তিনি আরো বলেন, প্রার্থী যে বিষয়ে পড়াশোনা করে এসেছেন এবং যা তাঁদের কাজের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সে বিষয়ে প্রার্থীকে প্রশ্ন করা হতে পারে।

 

কাজের ধরন ও সুযোগ-সুবিধা

নিয়োগপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের কাজ হলো কৃষিতে নতুন যেসব প্রযুক্তি এসেছে সেগুলো কৃষকদের মধ্যে ছড়িয়ে দেওয়া। কৃষকদের সমস্যাগুলো চিহ্নিত করে সমাধান করা। নিয়োগপ্রাপ্তরা ১২ হাজার ৫০০ টাকা স্কেলে (গ্রেড ১১ অনুযায়ী) বেতন পাবেন। রয়েছে প্রতি মাসে ভ্রমণ ভাতা। থাকবে বোনাস ও প্রশিক্ষণের সুবিধাও।

 

যোগাযোগ

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর

খামারবাড়ি, ফার্মগেট, ঢাকা-১২১৫

ওযেব : www.dae.gov.bd


মন্তব্য