kalerkantho


২৩৫ কর্মী নেবে নির্বাচন কমিশন

২৩৫টি শূন্য পদে নিয়োগ দেবে বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন। সম্প্রতি পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিয়ে আবেদন আহ্বান করেছে নিয়োগ কর্তৃপক্ষ। নিয়োগপ্রাপ্তদের কাজ করতে হবে নির্বাচন কমিশন সচিবালয় এবং এর অধীন মাঠপর্যায়ের কার্যালয়ে। জানাচ্ছেন ফরহাদ হোসেন

১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



২৩৫ কর্মী নেবে নির্বাচন কমিশন

পদ, পদসংখ্যা ও যোগ্যতা

প্রকাশিত বিজ্ঞপ্তি মোতাবেক জানা যায়, কম্পিউটার অপারেটর তিনটি পদ। আবেদনের যোগ্যতা স্নাতক বা সমমান পাস।

একই কাজে দুই বছরের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। স্টোরকিপার পদে নির্বাচন প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটে একজন এবং নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ে একজন—মোট দুটি পদের যোগ্যতা দ্বিতীয় শ্রেণিতে স্নাতক (সম্মান) পাস এবং কম্পিউটার প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত। ক্যাটালগার একটির জন্য গ্রন্থাগারবিজ্ঞানে দ্বিতীয় শ্রেণিতে স্নাতক (সম্মান) পাস এবং কম্পিউটার প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত। সাঁটমুদ্রাক্ষরিক-কাম কম্পিউটার অপারেটর পদের সংখ্যা ১৮। যোগ্যতা স্নাতক বা সমমান পাস। কম্পিউটার প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত এবং সাঁটলিপিতে প্রতি মিনিটে বাংলায় ৪৫ ও ইংরেজিতে ৭০ শব্দ এবং কম্পিউটার মুদ্রাক্ষরে শব্দের গতি প্রতি মিনিটে বাংলায় ২৫ ও ইংরেজিতে ৩০ থাকতে হবে। বয়স সর্বোচ্চ ৩৫ বছর। সাঁটলিপিকার-কাম কম্পিউটার অপারেটর পদ ১১টি। যোগ্যতা স্নাতক বা সমমান পাসসহ সাঁটলিপিতে শব্দের গতি প্রতি মিনিটে বাংলায় ৫০ ও ইংরেজিতে ৮০ এবং কম্পিউটার মুদ্রাক্ষরে প্রতি মিনিটে বাংলায় ২৫ ও ইংরেজিতে ৩০ থাকতে হবে। উচ্চমান সহকারী চারটি পদের যোগ্যতা দ্বিতীয় শ্রেণিতে স্নাতক (সম্মান) পাস এবং কম্পিউটার প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত। হিসাব সহকারী চারটি পদ। যোগ্যতা লাগবে বাণিজ্যে দ্বিতীয় শ্রেণিতে স্নাতক (সম্মান) পাস এবং কম্পিউটার প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত। ডাটা এন্ট্রি অপারেটর তিনটি পদের যোগ্যতা এইচএসসি পাস। তবে বিজ্ঞান বিভাগের প্রার্থী ও কম্পিউটার প্রশিক্ষণপ্রাপ্তদের অগ্রাধিকার দেওয়া হবে। অফিস সহকারী-কাম কম্পিউটার মুদ্রাক্ষরিক পদ ৭৩টি। যোগ্যতা এইচএসসি বা সমমান পাস। কম্পিউটার প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত এবং কম্পিউটার মুদ্রাক্ষরে প্রতি মিনিটে শব্দের গতি বাংলায় ২০ ও ইংরেজিতে ২০ থাকতে হবে। বয়স সর্বোচ্চ ৩৫ বছর। ডেসপাচ রাইডার একটি পদের যোগ্যতা এসএসসি বা সমমান পাস এবং বৈধ মোটরসাইকেল লাইসেন্সধারী। অফিস সহায়ক পদে ৮০ জনকে নেওয়া হবে। এসএসসি পাস হলেই আবেদন করা যাবে। নিরাপত্তা প্রহরী ৯, পরিচ্ছন্নতাকর্মী (ঝাড়ুদার) পাঁচটি এবং পরিচ্ছন্নতাকর্মী (ফরাস) দুটি পদের যোগ্যতা অষ্টম শ্রেণি পাস। বিজ্ঞপ্তিতে উল্লিখিত একই যোগ্যতাসম্পন্ন সব জেলার মুক্তিযোদ্ধা কোটায় প্রার্থীরা আবেদন করতে পারবেন সাঁটলিপিকার-কাম কম্পিউটার অপারেটর চারটি, ডাটা এন্ট্রি অপারেটর দুটি এবং অফিস সহায়ক ১৩ পদের জন্য।

 

প্রয়োজনীয় অন্যান্য যোগ্যতা

৩১ জানুয়ারি ২০১৭ তারিখে বয়স ১৮ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে হতে হবে। তবে মুক্তিযোদ্ধা কোটার প্রার্থীদের বেলায় ১৮ থেকে ৩২ বছর। পত্রিকায় প্রকাশিত বিজ্ঞপ্তিতে উল্লিখিত ১ থেকে ১৫ ক্রমিকের পদগুলোর জন্য সব জেলার এতিমখানার নিবাসী, শারীরিক প্রতিবন্ধী ও মুক্তিযোদ্ধা কোটার প্রার্থীসহ (৬ নম্বর কলামে উল্লিখিত জেলা ছাড়া) অন্য সব জেলার প্রার্থীরা আবেদন করতে পারবেন। তবে ১৬ থেকে ১৮ ক্রমিকের পদগুলোতে শুধু মুক্তিযোদ্ধা কোটার প্রার্থীরা আবেদন করতে পারবেন। চাকরিরত প্রার্থীদের নিজ নিজ কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে আবেদন করতে হবে।

 

আবেদন করার পদ্ধতি

কমিশনের ওয়েবসাইট থেকে জানা যায়, নির্বাচন কমিশন ওয়েবসাইটে (www.ecs.gov.bd) নিয়োগ বিজ্ঞপ্তির সঙ্গে সংযুক্ত আবেদন ফরম পাওয়া যাবে। কম্পিউটার কম্পোজ করে অথবা ‘এ’ ফোর সাইজের অফসেট কাগজে প্রিন্ট করে হাতে লিখে ফরম পূরণ করা যাবে। কোনো তথ্য অসম্পূর্ণ থাকলে আবেদন বাতিল করা হবে। আবেদন ফরমের যথাস্থানে প্রার্থীর সদ্য তোলা পাসপোর্ট সাইজের তিন কপি ছবি সত্যায়িত করে সংযুক্ত করতে হবে। পূরণকৃত আবেদনের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সব পরীক্ষার সনদ, নম্বরপত্র, অভিজ্ঞতার সনদ, কোটার ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সনদসহ অন্যান্য প্রয়োজনীয় সনদ প্রথম শ্রেণির গেজেটেড কর্মকর্তা কর্তৃক সত্যায়িত করে সংযুক্ত করতে হবে। পরীক্ষার ফি বাবদ পদ অনুসারে ট্রেজারি চালান এবং প্রার্থীর নাম ও বর্তমান ঠিকানা লেখা ৫ টাকা মূল্যমানের ডাকটিকিটযুক্ত ৯ ইঞ্চি বাই ৪ ইঞ্চি মাপের ফেরত খাম আবেদনের সঙ্গে সংযুক্ত করতে হবে।

 

আবেদন পাঠানোর ঠিকানা

খামের ওপরে পদের নাম, নিজ জেলা ও কোটার ক্ষেত্রে কোটার নাম উল্লেখ করে দিতে হবে। সরাসরি বা ডাকযোগে আবেদন পাঠানোর ঠিকানা উপসচিব (জনবল ব্যবস্থাপনা), কক্ষ নম্বর ৬১৬, ষষ্ঠ তলা, নির্বাচন কমিশন সচিবালয়, নির্বাচন ভবন, প্লট-ই, ১৪/জেড-এ, আগারগাঁও, ঢাকা-১২০৭। দুই পদ্ধতিতেই আবেদন জমা দেওয়ার শেষ তারিখ ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ অফিস চলাকালে।

 

প্রার্থী নির্বাচনী পরীক্ষা, নিয়োগ ও বেতন-ভাতা

বিজ্ঞপ্তি সূত্রে জানা যায়, সরকারি নিয়োগবিধি অনুসারে সংশ্লিষ্ট পদের জন্য লিখিত, ব্যবহারিক ও মৌখিক পরীক্ষা নেওয়া হবে। সব পরীক্ষার তারিখ, সময় ও স্থান প্রবেশপত্র প্রেরণের মাধ্যমে জানানো হবে। নিয়োগ বিজ্ঞপ্তিসহ নিয়োগসংক্রান্ত যেকোনো তথ্য জানা যাবে নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের ওয়েবসাইট (www.ecs.gov.bd) থেকে। নিয়োগের ক্ষেত্রে সরকারি চাকরির নির্ধারিত সব কোটা অনুসরণ করে নিয়োগ দেওয়া হবে। নিয়োগপ্রাপ্তরা জাতীয় বেতন স্কেল ২০১৫ অনুসারে বেতন-ভাতা পাবেন।


মন্তব্য