kalerkantho


নার্সিং সার্ভিসে লোক নেবে সেনাবাহিনী

৩৪তম স্বল্পমেয়াদি কমিশন আর্মড ফোর্সে নার্সিং সার্ভিসে (এএফএনএস) নিয়োগ দেবে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী। আবেদন প্রক্রিয়া শেষ করতে হবে ২ এপ্রিলের মধ্যে। বিস্তারিত জানাচ্ছেন অমিত রায়

১৬ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



আবেদনের যোগ্যতা

আবেদন করতে পারবেন ২৬-এর কম বয়সী (১ জুলাই তারিখে) বাংলাদেশি নারীরা। থাকতে হবে নার্সিং বিষয়ে বিএসসি ডিগ্রি। উচ্চতা হতে হবে ন্যূনতম পাঁচ ফুট দুই ইঞ্চি বা ১.৫৫ মিটার। ওজন হতে হবে কমপক্ষে ৪৭ কেজি অথবা ১০৪ পাউন্ড। স্বাভাবিক বুকের মাপ লাগবে ন্যূনতম ০.৭১ মিটার বা ২৮ ইঞ্চি এবং প্রসারিত অবস্থায় ০.৭৬ মিটার অথবা ৩০ ইঞ্চি। সেনা, নৌ কিংবা বিমানবাহিনী, এমনকি কোনো সরকারি চাকরি থেকে বরখাস্ত হয়ে থাকলে আবেদন করা যাবে না। তা ছাড়া আর্মড ফোর্সে নার্সিং সার্ভিস কমিশনের নির্বাচন পর্ষদ ও আপিল মেডিক্যাল বোর্ড থেকে কোনো কারণে অযোগ্য ঘোষিত হলেও আবেদন করা যাবে না।

 

আবেদনের নিয়ম

অনলাইনে এবং সরাসরি উভয় পদ্ধতিতে আবেদনের সুযোগ থাকছে। এরই মধ্যে শুরু হয়ে গেছে আবেদন প্রক্রিয়া। অনলাইনে আবেদন করা যাবে www.joinbangladesharmy.mil.bd অথবা www.joinbangladesh.army.mil.bd ওয়েবসাইটের মাধ্যমে। ওয়েবসাইটের ডান পাশে ওপরের কোনায় ধঢ়ঢ়ষু হড় িট্যাবে ক্লিক করলে পাওয়া যাবে কয়েকটি অপশন। সেখান থেকে 34-DSSC(AFNS) এর apply-এ ক্লিক করতে হবে। সেখানে দেওয়া নির্দেশনা অনুযায়ী ফরম পূরণ করতে হবে। ফরম পূরণের সময় সঙ্গে রাখতে হবে একটি ডিজিটাল অথবা স্ক্যান করা ছবি। সফলভাবে ফরম পূরণ হয়ে গেলে নির্দেশনা অনুযায়ী টেলিটক মোবাইল এসএমএস কিংবা ভিসা/মাস্টারকার্ড বা ট্রাস্ট ব্যাংক মোবাইল মানির মাধ্যমে আবেদন ফি পরিশোধ করতে হবে। ফি জমা দেওয়ার পর পরীক্ষার তারিখ ও কেন্দ্রের ঠিকানাসহ লিখিত পরীক্ষার জন্য একটি কল-আপ লেটার দেওয়া হবে। ২৪ ঘণ্টার মধ্যে প্রিন্ট করতে হবে কল-আপ লেটার, নতুবা তা বাতিল হয়ে যাবে।

অনলাইনে আবেদন সম্ভব না হলে সোনালী ব্যাংকের যেকোনো শাখা থেকে সেনা সদর, অ্যাডজুট্যান্ট জেনারেল শাখা, পার্সেনেল অ্যাডমিনিস্ট্রেশন পরিদপ্তর, ঢাকা সেনানিবাস, সোনালী ব্যাংক, ঢাকা সেনানিবাস করপোরেট শাখার অনুকূলে ৫০০ টাকার ব্যাংক ড্রাফট অথবা পে-অর্ডার সংগ্রহ করতে হবে। ব্যাংক ড্রাফট বা পে-অর্ডার ‘অ্যাডজুট্যান্ট জেনারেল শাখা, পার্সেনেল অ্যাডমিনিস্ট্রেশন পরিদপ্তর (পিএ-২), ঢাকা সেনানিবাস’-এ জমা দিয়ে আবেদনপত্র সংগ্রহ ও পূরণ করে পাঠাতে হবে কিংবা জমা দিতে হবে সেনা সদর প্রধান ভবনের প্রবেশ গেটে রক্ষিত বাক্সে। আবেদনপত্র জমার শেষ তারিখ ২ এপ্রিল। চাকরিরত প্রার্থীদের নিজ সংস্থা বা বিভাগীয় প্রধানের মাধ্যমে অবেদন করতে হবে। আবেদনপত্র পাঠানোর সময় খামের ওপর উল্লেখ করতে হবে—‘এএফএনএস’ কথাটি। লাগবে গেজেটেড অফিসার কর্তৃক সত্যায়িত সদ্য তোলা পাঁচ কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবি, সব শিক্ষাগত যোগ্যতার সনদের সত্যায়িত ফটোকপি, বিএসসি ইন নার্সিংয়ের সনদ ও রেজিস্ট্রেশনপত্রের সত্যায়িত ফটোকপি এবং স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ বা পৌরসভা অথবা ওয়ার্ড কমিশনারের দেওয়া জাতীয়তা সনদপত্র।

 

নিয়োগ পদ্ধতি

প্রথমেই নেওয়া হবে লিখিত পরীক্ষা। ৮ এপ্রিল ঢাকা সেনানিবাসের শহীদ রমিজউদ্দিন ক্যান্টনমেন্ট কলেজে হবে এ পরীক্ষা। ২২ এপ্রিল ওয়েবসাইট এবং এসএমএসের মাধ্যমে জানা যাবে লিখিত পরীক্ষার ফলাফল। লিখিত পরীক্ষায় পাস করলে ডাকা হবে প্রাথমিক স্বাস্থ্য ও মৌখিক পরীক্ষায়। ৩ মে পরীক্ষা হবে ঢাকা সেনানিবাসের আর্মড ফোর্সেস মেডিক্যাল ইনস্টিটিউটে। মৌখিক পরীক্ষার ফলাফলও জানা যাবে ওয়েবসাইট এবং এসএমএসের মাধ্যমে। উত্তীর্ণ প্রার্থীদের চূড়ান্ত স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য ডাকা হবে সেনানিবাসের সিএমএইচে। চূড়ান্তভাবে নির্বাচিতদের প্রশিক্ষণের জন্য যোগ দেওয়ার তারিখ থেকে সরাসরি লেফটেন্যান্ট (এএফএনএস) পদবি দেওয়া হবে এবং সাফল্যের সঙ্গে প্রশিক্ষণ শেষে কমিশন কার্যকর হবে।

 

বেতন ও সুযোগ-সুবিধা

পে স্কেল ২০১৫ বা জেএসআই অনুযায়ী বেতন ও ভাতা দেওয়া হবে। পাওয়া যাবে দেশে ও বিদেশে উচ্চতর শিক্ষা ও প্রশিক্ষণের সুযোগ। জাতিসংঘ শান্তিরক্ষী বাহিনীতে যোগ দেওয়ারও সুযোগ পান অনেকেই। মনোরম পরিবেশে বাসস্থানের পাশাপাশি পাবেন উন্নতমানের চিকিৎসা সুবিধা।


মন্তব্য