kalerkantho


আছে ছয়টি গবেষণাগার

৪ এপ্রিল, ২০১৮ ০০:০০



আছে ছয়টি গবেষণাগার

বিশ্ববিদ্যালয়ের আরবান ল্যাবটি ২০১৫ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। শহরকে সুন্দর ও বাস উপযোগী করে গড়ে তুলতে পরিবেশ, অবকাঠামো, শিল্পকারখানা, বিদ্যুৎ ও জ্বালানি, শিক্ষা-প্রযুক্তি নিয়েই মূলত এটি গবেষণা করে। গবেষণাগারের সমন্বয়ক মো. মাহমুদ হোসেন বলেন, ‘‘২০১৩ সালে রানা প্লাজা দুর্ঘটনার পর বাংলাদেশের গার্মেন্ট শ্রমিকদের দুঃখ-দুর্দশা ও প্রাপ্তি নিয়ে গবেষণা করে আমরা তাদের প্রতিবন্ধকতা ও জীবন মানোন্নয়নের জন্য গোলটেবিল আলোচনার আয়োজন করেছি। ২০১৬ সালে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের সঙ্গে মিলে ‘নগর অ্যাপ’ তৈরি করেছি। এর মাধ্যমে নাগরিকরা সমস্যা, দুর্ভোগ সরাসরি সিটি করপোরেশনকে জানাতে পারবেন।’’ এটি (https://play.google.com/store/apps/details?id=com.orioninformatics.digitaldhaka&hl=en)  গুগল প্লে স্টোরে দেওয়া হয়েছে। গার্মেন্ট শ্রমিকদের আবাসনের জন্য মাসিক দুই হাজার টাকা কিস্তিতে ঘর তৈরি করা সম্ভব—এই গবেষণার আলোকে ‘সুবর্ণ প্রাঙ্গণ’ প্রকল্প তৈরির জন্য আমরা গোলটেবিল করেছি। জনস্বাস্থ্যের ওপর বায়ুদূষণের প্রভাব নিয়ে গবেষণার পর সেমিনার করেছি। গবেষণায় দেখা গেছে, ঢাকা শহরের ২৫ শতাংশ অধিবাসী বায়ুদূষণের ক্ষতির শিকার। ২০১৭ সালে ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশনের সঙ্গে মিলে ‘ই-হার্ট অ্যাপ’ তৈরি করেছি। এটির মাধ্যমে রোগীরা হৃত্স্পন্দন মাপতে পারবেন, হাসপাতালটির চিকিৎসকদের অ্যাপয়েন্টমেন্ট নিতে পারবেন, সময়মতো ওষুধ খাওয়ার জন্য অ্যালার্ম সেট করতে পারবেন। এটি এখনো গুগল প্লে স্টোরে দেওয়া হয়নি।” ইনোভেশন ল্যাবের পরিচালক (টেকনিক্যাল) কাজী তাইফ সাদাত বলেন, ‘আমরা প্রযুক্তিপ্রেমী ছাত্র-ছাত্রীদের মূল আগ্রহের বিষয় রোবট নিয়ে কাজ করি। এখন কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা নিয়ে কাজ করছি। ভবিষ্যতে ন্যানো স্যাটেলাইট তৈরি করব।’ বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মধ্যে এখানেই প্রথম ‘থ্রিডি প্রিন্টার ল্যাব’ চালু হয়েছে। আরো আছে—‘ইইই ইঞ্জিনিয়ারিং ল্যাব’, ‘ফার্মা ল্যাব’ ও ‘আর্কিটেকচার ল্যাব’।


মন্তব্য