kalerkantho


চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়

স্ফুলিঙ্গের মতো জ্বলে উঠলেন

রবিউল হোসাইন   

৭ মার্চ, ২০১৮ ০০:০০



টিটু রায় চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ইনস্টিটিউট অব ফরেস্ট্রি অ্যান্ড এনভায়রনমেন্টাল সায়েন্সে দ্বিতীয় বর্ষে পড়েন। ছোটবেলা থেকেই এই জনপ্রিয় লেখকের ভক্ত। ‘আমি তপু’ই তাঁর প্রথম পড়া বই। চট্টগ্রামের জামাল খান রোডে বইয়ের ভুবন ‘বাতিঘরে’ এলে স্যারের সঙ্গে দেখাও করেছেন। মুহম্মদ জাফর ইকবালের ওপর হামলার খবর পেয়েই তাঁর মনে হলো, পথে না নামলে মৌলবাদের সংস্কৃতি চলতেই থাকবে। ৩ মার্চ রাতে সিদ্ধান্ত নিলেন, সাধারণ শিক্ষার্থীদের নিয়ে বিক্ষোভ মিছিল করবেন। পদার্থবিদ্যার বন্ধু মার্ক অ্যান্টনি ব্রমেলার সঙ্গে আলাপের পর ফেসবুকে ইভেন্ট পেজ খুললেন। আরো কয়েকজন সাধারণ শিক্ষার্থীর সঙ্গে যোগাযোগ করলেন। পরদিন সকালে পকেটের টাকায় ব্যানার কিনলেন। রসায়ন এমএসসির ফজলে রাব্বি দ্রুত লাল কালিতে লিখলেন, ‘ড. জাফর ইকবাল স্যারের ওপর হামলার বিচার চাই’। নিচে কালো কালিতে—‘সাধারণ শিক্ষার্থীরা, চবি’। মার্ক এবং ভূগোল ও পরিবেশবিদ্যার বন্ধু হালিমাকে নিয়ে তাঁদের বিজ্ঞান অনুষদের ক্লাসগুলোতে গিয়ে ছাত্র-ছাত্রীদের প্রতিবাদে শামিল হতে আহ্বান করলেন। তাঁরাও মাঠে নামতে দেরি করল না। প্রগতিশীল ছাত্রজোট, বিজ্ঞানচর্চা কেন্দ্রের কর্মীরাও এলেন। দুপুর সাড়ে ১২টায় চাকসু ভবনের সামনে থেকে পিঠে ব্যাগ নিয়ে মিছিল শুরু হলো। অনুষদগুলো ঘুরে মিছিল শেষ হলো বুদ্ধিজীবী চত্বরের সামনে। প্রাণিবিদ্যার ছাত্র গৌরচাঁদ ঠাকুরের সঞ্চালনায় সংক্ষিপ্ত সমাবেশে রাষ্ট্রবিজ্ঞানের মির্জা ফখরুল, রসায়নের ফজলে রাব্বি, ফরেস্ট্রির টিটু, পদার্থবিজ্ঞানের আশরাফী নিতু, ইংরেজির শুভ মারমা ও হিসাববিজ্ঞানের ছাত্র মেহেদী হাসান বক্তব্য দিলেন। ফের মিছিল নিয়ে প্রশাসনিক ভবনের সামনে শিক্ষক সমিতির মানববন্ধনে মৌন প্রতিবাদে দাঁড়ালেন সবাই।


মন্তব্য