kalerkantho


উৎপাদনের গতি বাড়ানোর কর্মশালা কক্সবাজারে

১৫ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



২৯ জানুয়ারি-১ ফেব্রুয়ারি কক্সবাজারে অনুষ্ঠিত হয়ে গেল আন্তর্জাতিক প্রসেস সিস্টেম ইঞ্জিনিয়ারিং (পিএসই) কর্মশালা। বাংলাদেশে আয়োজিত কেমিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং সংক্রান্ত এ কর্মশালায় ২৩ বিদেশি এবং ৪২ জন বাংলাদেশি শিক্ষক ও ছাত্র অংশ নেয়।

আতিকুল ইসলাম সাকিব পড়ছেন বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে স্নাতকোত্তরে। পড়ার বিষয় কেমিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং। পিএসই কর্মশালায় ছিলেন তিনি। জানালেন, ‘কোনো যান্ত্রিক ব্যবস্থার উৎপাদন দ্রুততর করতে পিএসই ব্যবহার করা হয়। কেমিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগে পিএসই সেটাপের গুরুত্ব বাড়ছে। নতুন প্রযুক্তি সম্পর্কে আপডেট থাকতে এ কর্মশালায় অংশ নিয়েছিলাম। ’

কর্মশালায় পিএসইর চ্যালেঞ্জ, হাতেকলমে ব্যবহার, পরিকল্পনাসহ বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা করা হয়। কর্মশালায় অংশ নিয়েছিলেন রকিব হাসান অনিক। বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে স্নাতকোত্তরের খণ্ডকালীন শিক্ষার্থী হওয়ার পাশাপাশি একটি ফার্মাসিউকিটেল কোম্পানিতে চাকরি করছেন।

তিনি জানান, ‘আমাদের কাঁচামাল নিয়ে কাজ করতে হয়। এখন যে পদ্ধতি ব্যবহার করছি, তাতে প্রচুর সময় লাগে। পিএসই ব্যবহার করলে সময় অর্ধেকে চলে আসবে। ’

কর্মশালাটি বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের কেমিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের তত্ত্বাবধানে অনুষ্ঠিত হয়। বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন যুক্তরাষ্ট্র, চীনসহ বিভিন্ন দেশের কেমিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের বিশেষজ্ঞ শিক্ষকরা। শিক্ষার্থী হিসেবে অংশ নেন বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। বাংলাদেশে আন্তর্জাতিক মানের এ কর্মশালা আয়োজনে বিশেষ ভূমিকা রাখেন বাংলাদেশে জন্মগ্রহণকারী টেকনিক্যাল ইউনিভার্সিটি অব ডেনমার্কের অধ্যাপক, পিএসই ফর স্পিডের সহ-প্রতিষ্ঠাতা ড. রফিকুল গনি। তিনি জানান, ‘উৎপাদন বাড়ানোর জন্য বিশ্বে পিএসই ব্যবহার বৃদ্ধি পাচ্ছে। বাংলাদেশের শিক্ষার্থীরা এ প্রযুুক্তিগত জ্ঞান অর্জনে যেন এগিয়ে থাকে, সেজন্য আমরা কাজ করে যাচ্ছি। দেশে পিএসই ফাউন্ডেশন তৈরি করে আমরা এ কাজ আরো এগিয়ে নিয়ে যেতে চাই। ’    - আবদুল মজিদ


মন্তব্য