kalerkantho


সবচেয়ে বেশি শিক্ষাবৃত্তি

বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি টাকার শিক্ষাবৃত্তি দেয় ইউআইইউ। বৃত্তির বিস্তারিত জানাচ্ছেন হিমেল হাসান

১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মধ্যে ইউনাইটেড ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিই সবচেয়ে বেশি টাকার শিক্ষাবৃত্তি দেয়। প্রতি সেমিস্টারের ফলের ভিত্তিতে বৃত্তিগুলো দেওয়া হয়।

শিক্ষাবৃত্তি পেয়ে লেখাপড়া করছেন—এমন অনেকের মধ্যে এস এম সায়েম সাকিবও আছেন। তিনি ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের চতুর্থ বর্ষের ছাত্র। সাকিব বলেন, ‘শিক্ষাবৃত্তি পাওয়ায় হাত খরচ জোগাতে আমি টিউশনি করি না, কোনো কোচিংয়েও ক্লাস নিই না। নিজের খরচ নিজেই জোগাতে পারি। ’ বৃত্তি পাওয়া আরেক ছাত্র শাহরিয়ার রেজা পড়ছেন কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে। শাহরিয়ার বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির পর আমার বাবার চাকরি চলে গিয়েছিল। ফলে লেখাপড়ার খরচ জোগাড় করা আমার পক্ষে খুব কঠিন হয়ে পড়েছিল। তখন আরো ভালোভাবে লেখাপড়া করেছি, যাতে বৃত্তি পেতে পারি। প্রথম সেমিস্টারেই ৫০ শতাংশ বৃত্তি পেয়েছিলাম। লেখাপড়ার খরচ অর্ধেক মাফ করা হয়েছিল। এর পর থেকে আট সেমিস্টারের ছয়টিতেই বৃত্তি পেয়েছি। এ সাহায্য না পেলে ঢাকায় থেকে আমি লেখাপড়া করতে পারতাম না। ’ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ড. এম রিজওয়ান খানের কথায়ও এ বিষয়গুলোই উঠে এলো। তিনি বলেন, ‘শিক্ষার্থীদের ভালো ফলাফলে আগ্রহী করে তোলার জন্য এবং তাদের লেখাপড়ার খরচ যাতে কমে আসে, সে জন্য আমরা বৃত্তি দিই। যেহেতু বৃত্তি পাওয়ার জন্য অন্তত ৩.৫ সিজিপিএ পেতে হয়, ফলে তারা ভালোভাবে পড়ালেখার চেষ্টা করে। এ ধরনের অর্থনৈতিক সাহায্য তাদের জন্য প্রয়োজনীয়ও বটে। ’ উপাচার্য আরো বলেন, ‘বৃত্তি দেওয়ার ক্ষেত্রে ফলাফল ছাড়া আর কোনো কিছুই আমরা বিবেচনা করি না। আমাদের সব বিভাগের ক্ষেত্রে একই নিয়ম মেনে বৃত্তি দেওয়া হয়। ’ 

ইউনাইটেড ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে (ইউআইইউ) প্রতি ট্রাই-সেমিস্টারে ২০ শতাংশ শিক্ষার্থীকে ফলাফলের ভিত্তিতে বৃত্তি দেওয়া হয়। প্রথম চারজনকে শতভাগ, পরের ছয়জনকে ৫০ শতাংশ বৃত্তি দেওয়া হয়। এর পরের ১০ জনকে ২৫ শতাংশ করে বৃত্তি দেওয়া হয়। এ ছাড়া ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য আরো কিছু বৃত্তি আছে। এইচএসসিতে যারা সব বিষয়ে ‘এ প্লাস’ পায়, তাদের ভর্তির সময় ৫০ শতাংশ ছাড় থাকে। চতুর্থ বিষয়সহ যারা সব বিষয়ে ‘এ প্লাস’ পায়, তারা ভর্তির সময় ২৫ শতাংশ ছাড় পায়। এ ছাড়া ভর্তি হওয়া ৩ শতাংশ শিক্ষার্থীকে মুক্তিযোদ্ধা কোটায় বৃত্তি দেওয়া হয়। শিক্ষাবৃত্তি নিয়ে বলতে গিয়ে সহকারী পরিচালক ও জনসংযোগ বিভাগের প্রধান আবু সাদাত বলেন, ‘প্রতিবছর অনেক ছাত্র-ছাত্রীকে আমরা শিক্ষাবৃত্তি দিয়ে থাকি। শুধু ২০১৫ সালেই ১১ কোটি টাকারও বেশি শিক্ষাবৃত্তি দিয়েছি। গত বছর এর পরিমাণ ১২ কোটি টাকা ছাড়িয়ে গিয়েছিল। কোনো ছাত্র-ছাত্রী অসুস্থ হলে বা দুর্ঘটনায় পড়লে আমরা তাকে বিনা সুদে ঋণ দিই। পরে তারা সেটি পরিশোধ করে। ’


মন্তব্য