kalerkantho

মঙ্গলবার । ৬ ডিসেম্বর ২০১৬। ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৫ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


মেডিক্যালে ভর্তির টুকিটাকি

মেডিক্যাল ভর্তি পরীক্ষা এসেই গেল। রেজাল্টের পরই শুরু হবে ভর্তি প্রক্রিয়া। ফল প্রকাশের আগে-পরের কিছু জরুরি তথ্য জানাচ্ছেন মিজানুর রহমান

৫ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



মেডিক্যালে ভর্তির টুকিটাকি

ছবি: আহাদুল করিম খান

২ তারিখ থেকে অনলাইনে প্রবেশপত্র পাওয়া যাচ্ছে। যাঁরা এখনো প্রবেশপত্র সংগ্রহ করেননি, তাঁরা আবেদনের সময় সরবরাহকৃত ইউজার আইডি ও পাসওয়ার্ড ব্যবহার করে http://dghs.teletalk.com.bd/ এই ওয়েবসাইট থেকে ডাউনলোড করে নিন।

পরীক্ষার হলে শুধু প্রবেশপত্র নিলেই হবে না, নিতে হবে উচ্চ মাধ্যমিক বা সমমান পরীক্ষার রেজিস্ট্রেশন কার্ডটিও। কেন্দ্রের নাম ও কোড নম্বরও পাওয়া যাবে এসএমএসের মাধ্যমে।

পরীক্ষা ১০০ নম্বরের হলেও মেধা তালিকা করা হবে ৩০০ নম্বরের ভিত্তিতে। ২০০ নম্বর আসবে এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার জিপিএ থেকে। এসএসসি পরীক্ষায় প্রাপ্ত জিপিএর ১৫ গুণ (জিপিএ ৫ হলে ৭৫ নম্বর) এবং এইচএসসির জিপিএর ২৫ গুণ যুক্ত হবে ভর্তি পরীক্ষার প্রাপ্ত নম্বরের সঙ্গে। পরীক্ষা হবে ১০০ নম্বরের ওপর। এক ঘণ্টার মধ্যে ১০০টি বহুনির্বাচনী প্রশ্নে এই পরীক্ষা হবে। জীববিজ্ঞান থেকে ৩০টি প্রশ্ন, রসায়ন থেকে ২৫টি, পদার্থ বিজ্ঞান থেকে ২০টি, ইংরেজির ১৫টি ও সাধারণ জ্ঞান থেকে ১০টি। সাধারণ জ্ঞানে বাংলাদেশের ইতিহাস ও সংস্কৃতি থেকে থাকবে ৬টি আর আন্তর্জাতিক বিষয় থেকে ৪টি। প্রশ্নগুলো বিষয়ভিত্তিকভাবে আলাদা করা থাকবে না; বরং সব বিষয়কে মিশিয়েই প্রশ্নপত্র সেট করা হবে। ভর্তি পরীক্ষায় ৪০ বা তার চেয়ে বেশি নম্বরপ্রাপ্ত ছাত্রদের কৃতকার্য বলে গণ্য করা হবে। এরপর প্রকাশিত হবে মেধা তালিকা।

এবারের সরকারি মেডিক্যাল কলেজে তিন হাজার ২১২টি আসনে ভর্তির জন্য পরীক্ষা নেওয়া হবে। ৮৪টি আসন থাকবে কোটায়, আর তিন হাজার ১২৮টি আসন বণ্টন করা হবে সাধারণ মেধা তালিকার ভিত্তিতে।

কোটা : মুক্তিযোদ্ধা কোটায় ২ শতাংশ (৬৪টি), পার্বত্য উপজাতি কোটায় ৯টি, পার্বত্য অ-উপজাতি কোটায় ৩টি ও উপজাতি কোটায় ৮টি আসন। ২০ শতাংশ ভর্তি হবে জেলা কোটায়।

এবার ডেন্টাল কলেজের ভর্তি পরীক্ষা আলাদাভাবে অনুষ্ঠিত হবে। এমবিবিএস ডিগ্রির জন্য এই ৩০টি মেডিক্যাল কলেজের সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে ৭ অক্টোবর, ডেন্টাল কলেজগুলোতে ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে ৪ নভেম্বর। এবার সরকারি-বেসরকারি মিলিয়ে বাংলাদেশের ১২৬টি মেডিক্যাল ও ডেন্টাল কলেজে শিক্ষার্থী ভর্তি করা হবে।

বেসরকারি মেডিক্যালগুলোতে আসন সংখ্যা ৫৩২৫টি। সরকারি কলেজগুলোতে ভর্তি সম্পন্ন হওয়ার পর মেধাক্রম অনুযায়ী শিক্ষার্থীরা এসব বেসরকারি মেডিক্যাল কলেজে ভর্তি হতে পারবে।

অপেক্ষমাণ তালিকা : সরকারি মেডিক্যাল কলেজে মেধা তালিকা অনুযায়ী ভর্তির পর আসন খালি থাকা সাপেক্ষে একটি অপেক্ষমাণ তালিকা প্রকাশ করা হয়। উল্লেখ্য, আর্মড ফোর্সেস মেডিক্যাল কলেজে ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে ১৪ অক্টোবর।

 

তথ্য সংগ্রহ : মিজানুর রহমান


মন্তব্য