kalerkantho


ইবি উপাচার্যের পরীক্ষা আজ

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি   

৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ০৫:১৮



ইবি উপাচার্যের পরীক্ষা আজ

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ২৩৭তম সিন্ডিকেট সভায় আজ সোমবার চারটি বিভাগে ১৪ শিক্ষক নিয়োগ দেবেন উপাচার্য (ভিসি)। বিষয়টিকে উপাচার্যের সততার ‘লিখিত পরীক্ষা’ বলে মনে করছেন শিক্ষকরা।

ক্যাম্পাস সূত্রে জানা যায়, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ১২তম উপাচার্য হিসেবে ২০১৬ সালের ২১ আগস্ট নিয়োগ পান ইংরেজি বিভাগের অধ্যাপক ড. হারুন-উর-রশিদ আসকারী। নিয়োগের পর থেকে তিনি দুর্নীতির বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থান নেন। নিয়োগ পেয়ে প্রথম বক্তব্যে বলেছিলেন, ‘আসকারী থাকলে দুর্নীতি থাকবে না, দুর্নীতি থাকলে আসকারী থাকবে না।’ সেই অনুযায়ী অনেক পদক্ষেপ নেয় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। তবে দুর্নীতির বিরুদ্ধে অবস্থান প্রমাণ করার সবচেয়ে বড় পরীক্ষা আজ। নিয়োগ পাওয়ার পর এই প্রথম তিনি শিক্ষক নিয়োগ দিতে যাচ্ছেন।

এ বিষয়ে আইন বিভাগের অধ্যাপক ড. জহুরুল ইসলাম বলেন, ‘দুর্নীতির বিরুদ্ধে প্রশাসন এত দিন মৌখিক পরীক্ষা দিয়েছে। শিক্ষক নিয়োগ দেওয়ার মাধ্যমে তারা লিখিত পরীক্ষা দেবে। বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষক নিয়োগ উপাচার্যের জন্য পুলসিরাত পার হওয়ার সমান। এখানে তাঁদের দক্ষতার সঙ্গে পার হতে হবে। আমরাও এ বিষয়ে আশাবাদী। তিনি যোগ্য ও মেধাবীদের নিয়োগ দিয়ে পরীক্ষায় লেটার নম্বর নিয়ে উত্তীর্ণ হবেন।’

উল্লেখ্য, বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিসংখ্যান, মার্কেটিং, রাষ্ট্রবিজ্ঞান ও অর্থনীতি বিভাগে শিক্ষক নিয়োগ হচ্ছে। গত শুক্রবার পরিসংখ্যান বিভাগের সাক্ষাৎকার অনুষ্ঠিত হয়। এতে দুটি পদের বিপরীতে ১৩ জন অংশ নেন। গতকাল রবিবার মার্কেটিং ও রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের সাক্ষাৎকার অনুষ্ঠিত হয়। এগুলোতে চারজন করে শিক্ষক নিয়োগ হবে। আজ সোমবার চারজনের বিপরীতে অনুষ্ঠিত হবে অর্থনীতি বিভাগের সাক্ষাৎকার। অর্থনীতি বিভাগের মৌখিক সাক্ষাৎকার শেষে অনুষ্ঠিত হবে ২৩৭তম সিন্ডিকেট। সেখানে চূড়ান্ত হবে নিয়োগ।

ইবি ভিসি অধ্যাপক ড. হারুন-উর-রশিদ আসকারী বলেন, ‘আমার শেষ দিন পর্যন্ত দুর্নীতির বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স জারি থাকবে। আমরা মেধা, যোগ্যতা এবং আদর্শের ভিত্তিতে বাছাই করব। মেধাবী ও যোগ্যতাসম্পন্ন প্রার্থী না পেলে নিয়োগ দেব না। প্রয়োজনে পরবর্তী সময়ে বিজ্ঞপ্তি দিয়ে নিয়োগ দেওয়া হবে।’


মন্তব্য