kalerkantho


মিরসরাইয়ে ৫০০ একর জমি চায় সিঙ্গাপুর

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১০ জুলাই, ২০১৮ ১৩:১১



মিরসরাইয়ে ৫০০ একর জমি চায় সিঙ্গাপুর

দেশের সবচেয়ে বড় অর্থনৈতিক অঞ্চল চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ে ৫০০ একর জমি চেয়েছে সিঙ্গাপুরভিত্তিক ব্যবসায়ী সংগঠন সিঙ্গাপুর বিজনেস ফেডারেশন। মিরসরাই অর্থনৈতিক অঞ্চলে জমি পেলে সেখানে বিদ্যুৎ, জ্বালানি, জাহাজশিল্প ও সেবা খাতে বিনিয়োগের আগ্রহ দেখিয়েছে ব্যবসায়ী সংগঠনটি। গতকাল সোমবার বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষের (বেজা) নির্বাহী চেয়ারম্যানের সঙ্গে এক বৈঠকে সংগঠনের ২৭ সদস্যের একটি প্রতিনিধিদল এসব প্রস্তাব তুলে ধরে।

বেজার কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সম্প্রতি সিঙ্গাপুর সফরে গিয়ে সেখানকার ব্যবসায়ীদের বাংলাদেশে বিনিয়োগের আহ্বান জানান। বাংলাদেশ সরকার দেশে ১০০টি অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রতিষ্ঠা করতে যাচ্ছে এবং পরিকল্পিত শিল্পাঞ্চল গড়ে তুলছে এমন তথ্যও সিঙ্গাপুরের ব্যবসায়ীদের জানান প্রধানমন্ত্রী। প্রধানমন্ত্রীর আহ্বানে সাড়া দিয়ে বাংলাদেশের অর্থনৈতিক অঞ্চলে বিনিয়োগের আগ্রহ তৈরি হয় সিঙ্গাপুরের ব্যবসায়ীদের। দুই দেশের সরকারি পর্যায়ে (জি-টু জি) বিনিয়োগ করতে চায় তাঁরা। এরই অংশ হিসেবে তারা বাংলাদেশ সফরে আসে।

জানতে চাইলে বেজার নির্বাহী চেয়ারম্যান পবন চৌধুরী কালের কণ্ঠকে বলেন, সিঙ্গাপুর বিজনেস ফেডারেশন আমাদের মিরসরাই অর্থনৈতিক অঞ্চলে বিনিয়োগের জন্য জমি চেয়েছে। তাদের প্রস্তাব আমরা এখন পর্যালোচনা করব। পবন চৌধুরী বলেন, মিরসরাই অর্থনৈতিক অঞ্চলে প্রায় ৩০ হাজার একর জমিতে একটি পরিকল্পিত শিল্প শহর উন্নয়নে বেজা কাজ করছে। চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষ এ অঞ্চলে একটি বাণিজ্যিক বন্দর নির্মাণের লক্ষ্যে সম্ভাব্যতা সমীক্ষা করছে। বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ড, বাংলাদেশ পাওয়ার গ্রিড কম্পানি লিমিটেড, চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষ, সড়ক ও জনপথ বিভাগসহ বিভিন্ন স্টেকহোল্ডারের সমন্বয়ে স্বয়ংসম্পূর্ণ শিল্পাঞ্চল তৈরির কাজ পূর্ণ গতিতে এগিয়ে চলছে।

তিনি জানান, সিঙ্গাপুর বিজনেস ফেডারেশন বাংলাদেশে জ্বালানি, বিদ্যুৎ, স্বাস্থ্য খাত, জাহাজশিল্প ও সেবা খাতে বিনিয়োগে আগ্রহ দেখিয়েছে।

বেজার কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, সিঙ্গাপুর বিজনেস ফেডারেশনের সভাপতি সিয়ং সেং টিওর নেতৃত্বে ২৭ সদস্যের একটি প্রতিনিধিদল গত ৬ জুলাই বাংলাদেশে আসে। আগামী ১৩ জুলাই পর্যন্ত তারা বাংলাদেশে অবস্থান করবে। এ সময় তারা ব্যবসা ও বিনিয়োগে বিভিন্ন অর্থনৈতিক অঞ্চল পরিদর্শন করবে। বৈঠক করবে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়, হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষের সঙ্গেও। একই সঙ্গে বাংলাদেশের ব্যবসায়ী প্রতিনিধিদের সঙ্গেও বৈঠক করবে।

গতকাল বেজার সঙ্গে অনুষ্ঠিত সভায় বেজার উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা ছাড়াও বাংলাদেশ-সিঙ্গাপুর চেম্বার এবং বাংলাদেশ বিনিয়োগ ঊন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তারাও উপস্থিত ছিলেন।



মন্তব্য