kalerkantho


মাস্টারকার্ডের জরিপ

পর্যটক আকর্ষণে শীর্ষে ব্যাংকক

বাণিজ্য ডেস্ক   

৩০ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ২২:৩৬



পর্যটক আকর্ষণে শীর্ষে ব্যাংকক

পর্যটকদের পদচারণায় গত বছর সবচেয়ে বেশি মুখরিত ছিল থাইল্যান্ডের রাজধানী ব্যাংকক। মাস্টারকার্ড ডেস্টিনেশন সিটিজ ইনডেক্স ২০১৭-তে এ তথ্য উঠে এসেছে।

২০১৬ সালে ব্যাংককে পর্যটক এসেছে ১৯.৪১ মিলিয়ন। দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে ব্রিটেনের রাজধানী লন্ডন। ইউরোপের এ শহরে পর্যটক যায় ১৯.০৬ মিলিয়ন। তৃতীয় অবস্থানে থাকা প্যারিসে পর্যটক যায় ১৪.৮৭ মিলিয়ন। মধ্যপ্রাচ্যের সবচেয়ে আকর্ষণীয় পর্যটন কেন্দ্র দুবাই এ তালিকায় চতুর্থ অবস্থানে রয়েছে। তবে সংযুক্ত আরব আমিরাতের এ শহরটিতে মাথাপিছু হিসেবে পর্যটকরা সবচেয়ে বেশি ব্যয় করেছে।  

মরুভূমিতে গড়ে ওঠা মধ্যপ্রাচ্যের এ শহরটি প্রতিবছর বিপুলসংখ্যক পর্যটক আকর্ষণ করে অসাধারণ মিউজিয়ামসহ মানুষের তৈরি সবচেয়ে উঁচু ভবনের কারণে। দুবাইতেই রয়েছে বিশ্বের সুউচ্চ ভবন বুর্জ আল খলিফা। এ ছাড়া শপিংয়ের শহর হিসেবেও দুবাইর খ্যাতি রয়েছে।

২০১৬ সালে দুবাইতে পর্যটকরা ব্যয় করে ২৮.৫ বিলিয়ন ডলার। আশা করা হচ্ছে এ বছর এ অঙ্ক আরো ১০ শতাংশ বৃদ্ধি পাবে।

মাস্টারকার্ডের ওই সূচকে দেখা যায়, পর্যটক গমনে গত বছর পঞ্চম অবস্থানে ছিল এশিয়ার সিঙ্গাপুর, ষষ্ঠ যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্ক, সপ্তম দক্ষিণ কোরিয়ার সিউল, অষ্টম মালয়েশিয়ার কুয়ালালামপুর, নবম জাপানের টোকিও এবং দশম স্থানে রয়েছে ব্যাংককের ইস্তাম্বুল।  

সম্প্রতি বিশ্ব পর্যটন নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ করে জতিসংঘের পর্যটন সংস্থা ওয়ার্ল্ড ট্যুরিজম অর্গানাইজেশন (ডাব্লিউটিও)। এতে বলা হয়, ২০১৬ সালে বিশ্বজুড়ে আন্তর্জাতিক পর্যটক আগমন ৪ শতাংশ বেড়ে হয়েছে ১.২ বিলিয়ন। সবচেয়ে বেশি ভ্রমণ করেছে এশীয়রা। তবে ইউরোপে পর্যটক আগমনে প্রভাব ফেলেছে নিরাপত্তা সংকট।  

গত বছর পর্যটক আগমন বৃদ্ধির মধ্য দিয়ে ২০১০ সাল থেকে টানা সাত বছর বিশ্বে পর্যটক আগমনে প্রবৃদ্ধি হয়েছে। ২০০৯ সালে অর্থনৈতিক সংকটের কারণে পর্যটক আগমন ৪ শতাংশ কমেছিল। মাদ্রিদভিত্তিক প্রতিষ্ঠানটি জানায়, ২০১৫ সালের তুলনায় ২০১৬ সালে এশীয়দের নিজ অঞ্চল ও বিশ্ব ভ্রমণ বেড়েছে ৮ শতাংশ। এর মধ্য দিয়ে ইউরোপের পর দ্বিতীয় বৃহৎ পর্যটন গন্তব্য হয়ে উঠেছে এশিয়া। তবে নিরাপত্তাজনিত কারণে ইউরোপে পর্যটক গমনে প্রবৃদ্ধি কমেছে।  

ডাব্লিউটিও'র মতে, বিশ্ব জিডিপির ১০ শতাংশ আসে পর্যটন খাত থেকে, যা বিশ্ব বাণিজ্যের ৭ শতাংশ এবং সেবা রপ্তানির ৩০ শতাংশ। বিশ্বে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ হিসাবে প্রতি ১১ কর্মসংস্থানের ১টি আসে পর্যটন থেকে। ফোর্বস, এএফপি।


মন্তব্য