kalerkantho

রবিবার। ৪ ডিসেম্বর ২০১৬। ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৩ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


করদাতাদের উৎসাহ দিতে সেরা করদাতার সংখ্যা বাড়ালো এনবিআর

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২২ অক্টোবর, ২০১৬ ১৯:১০



করদাতাদের উৎসাহ দিতে সেরা করদাতার সংখ্যা বাড়ালো এনবিআর

সৎ করদাতাদের উৎসাহ ও অনুপ্রাণিত করতে সেরা করদাতার সংখ্যা বাড়ানোর উদ্যোগ নিয়েছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)।
এজন্য জেলাভিত্তিক সর্বোচ্চ ও দীর্ঘ সময় আয়কর প্রদানকারী নীতিমালায় সংশোধনী আনা হয়েছে।


নারী ও তরুণদের অন্তর্ভূক্ত করে নির্বাচিত সেরা করদাতার সংখ্যা বাড়ানো হয়েছে নতুন নীতিমালায়। এতে করদাতারা কর প্রদানে আরো উৎসাহ পাবে বলে আশা করছে এনবিআর।  
এতদিন সর্বোচ্চ ও দীর্ঘমেয়াদী ক্যাটাগরিতে যথাক্রমে তিনজন ও দুইজন করে মোট পাঁচজন সেরা করাদাতা নির্বাচিত করা হতো।
নতুন নীতিমালায় সর্বোচ্চ তিনজন আয়করদাতার সঙ্গে এবার নারী ও তরুণ দুটি নতুন ক্যাটাগরি এবং দীর্ঘ সময় ক্যাটাগরিতে একবার নির্বাচিত হলে দ্বিতীয়বার পরবর্তী পাঁচ বছর তিনি আর সেরা করাদাতা হিসেবে নির্বাচিত হতে পারবেন না। এ ধরনের বেশ কিছু নতুন ধারা সংযোজন করা হয়েছে নতুন নীতিমালায়।
এ প্রসঙ্গে এনবিআর চেয়ারম্যান মো. নজিবুর রহমান বাসসকে বলেন,কর প্রদানে উসাহ দিতে জেলাভিত্তিক সর্বোচ্চ ও দীর্ঘ সময় আয়কর প্রদানকারী নীতিমালায় সংশোধনী আনা হয়েছে। অধিকসংখ্যক করদাতাদের রাষ্ট্রীয়ভাবে সম্মান দিতে এই উদ্যোগ। সম্মান জানানোর পাশাপাশি নির্বাচিত সেরা করদাতাদের সুযোগ-সুবিধা বাড়ানো হবে বলে তিনি জানান।
সেরা করদাতার সংখ্যা বাড়ানোর ফলে সৎ করদাতাদের মধ্যে এক ধরনের প্রতিযোগিতার সৃষ্টি হবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন। যা পক্ষান্তরে রাজস্ব আয় বাড়াতে বিশেষ ভূমিকা রাখবে। কর প্রদানে উৎসাহ পবে করদাতারা।
চলতি বছরেই নতুন এই নীতিমালা কার্যকর হবে বলে এনবিআর চেয়ার‌্যমান জানান।  
সংশোধিত নীতিমালাকে ‘সর্বোচ্চ ও দীর্ঘ সময় আয়কর প্রদানকারী করদাতাদের পুরস্কার প্রদান নীতিমালা-২০০৮’ নামে উল্লেখ করা হয়েছে।
এতে বলা হয়,প্রতিটি জেলা বা সিটি করপোরেশনের ব্যক্তি পর্যায়ে সর্বোচ্চ আয়করদাতা পর্যায়ভুক্ত পাঁচজন করদাতার মধ্যে তিনজন সর্বোচ্চ করদাতা,একজন সর্বোচ্চ নারী করদাতা,একজন ৪০ বছর বয়সের নিচে অর্থাৎ তরুণ পুরুষ করদাতা এবং দীর্ঘ সময় আয়কর দেওয়া একই পর্যায়ভুক্ত দুইজন করদাতাকে পুরস্কারের জন্য মনোয়ন দেওয়া হবে।  
নতুন নীতিমালায় আরো বলা হয়,দীর্ঘ সময় আয়কর প্রদানকারী হিসেবে পুরস্কারপ্রাপ্ত করদাতা পরবর্বতী ৫ বছরের মধ্যে দ্বিতীয়বারের মতো ওই পুরস্কারের জন্য বিবেচিত হতে পারবেন না বলে উল্লে¬খ করা হয়েছে। পূর্ববর্তী নীতিমালায় এ ধরনের নিষেধাজ্ঞা প্রযোজ্য ছিল না। ফলে একই ব্যক্তি প্রতি বছর একই ক্যাটাগরিতে সেরা করাদাতা নির্বাচিত হতে পারতেন।
এ ছাড়া সংশোধিত নীতিমালার মনোনীত ব্যক্তির যোগ্যতার বিষয়ে বলা হয়েছে,পুরস্কারের জন্য মনোনয়ন পেতে সর্বোচ্চ আয়কর দেওয়া ব্যক্তিকে করদাতা হিসেবে পূর্ববর্তী ৩ বছর এবং দীর্ঘ সময় আয়কর প্রদানকারী করদাতাকে কমপক্ষে ১৫ বছরের নিয়মিত করদাতা হতে হবে।
ঋণখেলাপি,আয়কর বকেয়া,এনবিআরের আয়কর,শুল্ক ও ভ্যাট সংশ্লিষ্ট মামলা বিচারাধীন,আদালত থেকে সাজাপ্রাপ্ত অথবা অন্য কোনো কারণে অবাঞ্চিত ব্যক্তি মনোনয়নের যোগ্য হবেন না। তবে সাজা ভোগ করার ৫ বছর অতিবাহিত হওয়ার পর সাজাপ্রাপ্ত ব্যক্তি মনোনয়নের যোগ্য বলে বিবেচিত হবেন।
মনোনয়নের পদ্ধতির বিষয়ে নতুন নীতিমালায় উল্লেখ করা হয়,সর্বোচ্চ কর প্রদানকারী তিনজন করদাতার মধ্যে যদি নারী ও ৪০ বছর বয়সের নিচে তরুণ পুরুষ করদাতা থাকেন,তা হলেও একজন নারী ও ৪০ বছর বয়সের নিচে তরুণ পুরুষ করদাতা মনোনয়নের ক্ষেত্রে পরবর্তী সর্বোচ্চ কর প্রদানকারী নারী ও ৪০ বছর বয়সের নিচে তরুণ পুরুষ করদাতাকে মনোনয়ন দেওয়া যাবে।
একজন করদাতা সর্বোচ্চ বা দীর্ঘ সময় কর প্রদানকারী উভয় ক্যাটাগরিতে মনোনীত হতে পারবেন।
পুরস্কার হিসেবে প্রত্যেক করদাতাকে একটি ক্রেস্ট, একটি লেমিনেটেড পরিচিত কার্ড ও একটি সম্মাননাপত্র দেওয়াসহ ৮টি ধারা ও ২১টি উপধারা সংযুক্ত করা হয়েছে নতুন নীতিমালায়।


মন্তব্য