kalerkantho

রবিবার । ১১ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


বাংলাদেশ-বিশ্বব্যাংক সম্পর্ক নতুন উচ্চতায়

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৫ অক্টোবর, ২০১৬ ২৩:২৯



বাংলাদেশ-বিশ্বব্যাংক সম্পর্ক নতুন উচ্চতায়

দারিদ্র বিমোচনে বাংলাদেশের অগ্রগতির স্বীকৃতিস্বরূপ বিশ্বব্যাংকের প্রেসিডেন্ট জিম ইয়ং কিম আন্তর্জাতিক দারিদ্র বিমোচন দিবস উদযাপন উপলক্ষে চলতি সপ্তাহে ঢাকা সফরে আসছেন। এই সফরের মধ্যে দিয়ে বিশ্বব্যাংকের সাথে বাংলাদেশের সম্পর্ক এক নতুন উচ্চতায় উন্নীত হবে বলে আশা করছে সরকার।


বিশ্বব্যাংক প্রেসিডেন্ট আগামীকাল ঢাকায় পৌঁছাবেন। তিনদিনের সফরকালে তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা,অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিতসহ সরকারের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাদের সাথে বৈঠকের পাশাপাশি আন্তর্জাতিক দারিদ্র বিমোচন দিবসের কর্মসূচিতে যোগদান করবেন।
বিশ্বব্যাংক প্রধানের বাংলাদেশ সফরের বিষয়ে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত বাসসকে বলেন, ‘এটি আমাদের জন্য একটি বড় উৎসব। আশা করি তার এই সফরের মাধ্যমে বিশ্বব্যাংকের সাথে বাংলাদেশের সম্পর্ক এক নতুন উচ্চতায় পৌঁছাবে। ’
বিশ্বব্যাংকের সাথে বাংলাদেশের দীর্ঘ সম্পর্কের কথা তুলে ধরে তিনি বলেন, আমরা প্রতিনিয়ত আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সংস্থার (আইডিএ) মাধ্যমে সহজ শর্তে বিশ্বব্যাংকের সহায়তা পেয়ে আসছি এবং বৈশ্বিক অন্যান্য সংস্থার তুলনায় বিশ্বব্যাংকের নিকট থেকে আমরা সবচেয়ে বেশি সহায়তা পেয়েছি।
অর্থমন্ত্রী বলেন,‘আশা করছি এবার আমরা ৭৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের নতুন প্রতিশ্রুতি পাবো যা চলতি ৫২ বিলিয়ন ডলারের প্রতিশ্রুতির চেয়ে বেশি। ’
চলতি বছর বিশ্বব্যাংকের নিকট থেকে বাংলাদেশ ১ দশমিক ২ বিলিয়ন ডলারের মঞ্জুরী সহায়তা পাচ্ছে বলে তিনি জানান।
মন্ত্রী গত ৬ থেকে ৯ অক্টোবর ওয়াশিংটনে অনুষ্ঠিত আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল (আইএমএফ) এবং বিশ্বব্যাংক গ্রুপের বার্ষিক সভায় যোগদান করেন।
তিনি এই গ্রুপ সভার আলোচনা প্রসঙ্গে বলেন,বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচি (এডিপি) সংক্রান্ত অধিকাংশ বিষয়ে ফলপ্রসু আলোচন হয়েছে এবং অমিমাংশিত কোন বিষয় আর নেই।
তিনি বলেন,‘আমরা বিশ্বব্যাংকের সাথে অধিকাংশ বিষয়ের মিমাংশা করেছি এবং আশা করছি আগামীদিনে আরো অগ্রসর হতে পারবো। ’ 
বিশ্বব্যাংক প্রেসিডেন্টের ঢাকা সফর প্রাক্কালে আবাসিক কার্যালয়ের এক বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়েছে এই সফরের মূল উদ্দেশ্য হলো-সুশাসন ও বিনিয়োগ পরিবেশের অগ্রগতির মধ্যে দিয়ে বাংলাদেশে বেসরকারিখাতে বিনিয়োগের এক নতুন দিগন্ত উন্মোচিত হবে।
দারিদ্র বিমোচন বিশেষ করে হত দারিদ্র দূরীকরণে বাংলাদেশের সাফল্য অভিভূত বিশ্বব্যাংকের বর্তমান প্রেসিডেন্ট। তাই সরেজমিনে বাংলাদেশ সফরের সিদ্ধান্ত নেন নিজের আগ্রহে। আর উপলক্ষ হিসেবে বেছে নিয়েছেন আন্তর্জাতিক দারিদ্র বিমোচন দিবসকে। আগামী ১৭ অক্টোবর আন্তর্জাতিক দারিদ্র বিমোচন দিবস।  
দেশ স্বাধীন হওয়ার পর জিম ইয়ং কিম হবেন বিশ্বব্যাংকের ৫ম প্রেসিডেন্ট যিনি বাংলাদেশ সফরে আসছেন। এর আগে সর্বশেষ ২০০৭ সালের নভেম্বর তৎকালীন বিশ্বব্যাংকের প্রেসিডেন্ট রবার্ট বি. জোয়েলিক দুই দিনের সফরে বাংলাদেশ এসেছিলেন।
দক্ষিণ কোরীয় বংশোদ্ভূত আমেরিকার নাগরিক জিম ইয়ং কিম ২০১২ সালের ১ জুলাই বিশ্বব্যাংকের প্রেসিডেন্ট নিযুক্ত হন।


মন্তব্য