বাংলাদেশে পাটজাত পণ্য কি জনপ্রিয়-333332 | বাণিজ্য | কালের কণ্ঠ | kalerkantho

kalerkantho

শনিবার । ১ অক্টোবর ২০১৬। ১৬ আশ্বিন ১৪২৩ । ২৮ জিলহজ ১৪৩৭


বিবিসি বাংলার প্রতিবেদন

বাংলাদেশে পাটজাত পণ্য কি জনপ্রিয় হবে?

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৭ মার্চ, ২০১৬ ২২:৩৭



বাংলাদেশে পাটজাত পণ্য কি জনপ্রিয় হবে?

বাংলাদেশে পাটজাত পণ্যের ব্যবহারকে উৎসাহিত করতে ঢাকার বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে এখন চলছে তিন দিনব্যাপী পাটজাত পণ্যের মেলা।

পাট দিয়ে কত ধরনের পণ্য তৈরি হতে পারে সেটি তুলে ধরা হচ্ছে এই মেলায়। দৃষ্টিনন্দন নানা ধরনের পণ্য প্রদর্শনী হচ্ছে এখানে।

পাটজাত পণ্যের বাহারি সমাহার দেখতে এই মেলায় ভিড় করছেন প্রচুর দর্শক। মেলায় কোন কোন স্টলে বিক্রিও ভালো।

মেলায় আসা একজন দর্শক আফরোজা আক্তার জানালেন, পাট দিয়ে যে এতো বৈচিত্র্যপূর্ণ জিনিস তৈরি হয় সেটি তার জানা ছিলনা ।

একটা সময় মনে করা হতো পাট দিয়ে শুধু চটের ব্যাগ তৈরি হয়। কিন্তু সেই ধারণা এখন আর নেই।

পাট দিয়ে তৈরি হচ্ছে ব্যাগ, শাড়ি, জুতা, স্যান্ডেল, বিছানার চাদর, পর্দা সোফার কভার,কার্পেট এবং আরো নানা ধরনের পণ্য।

পাটজাত পণ্যকে দেশের ভেতরে জনপ্রিয় করতে সরকার সম্প্রতি কাঁচা পাট বিদেশে রপ্তানি বন্ধ করেছে।

বাংলাদেশে বর্তমানে ৫৫ -৬০ বেল কাঁচা পাট উৎপন্ন হয়। উৎপাদিত পাট যাতে সবটুকু দেশের ভেতরে ব্যবহার করে চাষিদের নায্য দাম নিশ্চিত করা যায় সেজন্য সম্প্রতি সরকার ছয়টি পণ্যের ক্ষেত্রে পাটের ব্যাগ ব্যবহার করা বাধ্যতামূলক করেছে।

বেসরকারি উদ্যোক্তারা বলছেন,দেশে যে পরিমাণ পাট উৎপন্ন হয়, তার ৫০-৫৫ ভাগ দেশীয় কারখানাগুলো ব্যবহার করতে পারে।

বাংলাদেশে বেসরকারীখাতে সবচেয়ে বেশি পাট ব্যবহার করে করে আকিজ জুট মিলস। তাদের উৎপাদিত পণ্য মূলত রপ্তানীমুখী।

গত বছর ৪৭০ কোটি টাকার পাটজাত পণ্য রপ্তানি করেছে আকিজ জুট মিলস।

প্রতিষ্ঠানটির রপ্তানি বিভাগের প্রধান কর্মকর্তা গোলাম মুরশিদ বাপ্পী জানালেন বিদেশে পাটজাত পণ্যের চাহিদা বেশ ভালো।

মি: বাপ্পী বলেন দেশের ভেতরে পলিথিন বা প্লাস্টিকের ব্যাগ নিষিদ্ধ করে পাটের তৈরি ব্যাগ ব্যবহার করা হলে পাটের বিপুল চাহিদা তৈরি হবে।

তিনি জানান, ভারত এবং চীন কাঁচা পাট আমদানির পরিমাণ কমিয়ে দিয়েছে। এসব দেশ বর্তমানে সরাসরি কাঁচা পাট আমদানি কমিয়ে প্রক্রিয়াজাত পণ্য বেশি আমদানি করছে।

বেসরকারি খাতের উদ্যোক্তারা মনে করছেন আগের তুলনায় পাটজাত পণ্য ব্যবহারের ক্ষেত্রে মানুষের আগ্রহ বেড়েছে।

বাংলাদেশে পাটজাত পণ্য যেভাবে জনপ্রিয় হচ্ছে সেক্ষেত্রে ভবিষ্যতে পাটের উৎপাদন আরো বাড়ানোর প্রয়োজন হতে পারে বলে ব্যবসায়ীরা মনে করছেন।

বাংলাদেশ পাট গবেষণা ইন্সটিটিউটের বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা জান্নাতুল বাকি মোল্লা পারভেজ জানালেন তারা পাট থেকে বৈচিত্র্যময় পণ্য উদ্ভাবনের চেষ্টা করছেন।

সে পণ্যগুলো বাজারে ছড়িয়ে দেবার ক্ষেত্রে বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলো ভূমিকা রাখবে বলে তিনি আশা করেন।

মন্তব্য