kalerkantho


কপিরাইটারস ভিউ

অনলাইনে সম্পর্কের গল্প

ফারজানা তন্বী, সিনিয়র কপিরাইটার, অ্যাডকম লিমিটেড

৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



অনলাইনে সম্পর্কের গল্প

‘ক্লোজআপ কাছে আসার গল্প’ ক্যাম্পেইন আমরা শুরু করি চার-পাঁচ বছর আগে। দুজন মানুষ যখন একে অপরের কাছে আসতে শুরু করে, তখন নানা ধরনের প্রতিবন্ধকতা দেখা দেয়।

সেসব বিষয়কে প্রাধান্য দিয়েই প্রতিবার আমরা নতুন ক্যাম্পেইন পরিকল্পনা করি এবং সেই বিষয়ের ওপর গল্প চেয়ে বিজ্ঞাপন বানাই। কী রকম গল্প আমরা চাই, সে ব্যাপারে একটা ধারণা দিতেই এ বিজ্ঞাপন। এরপর সেরা গল্পগুলো দিয়ে নাটক বানিয়ে ভালোবাসা দিবসে প্রচার করা হয়। এবারও ক্লায়েন্ট ‘কাছে আসার গল্প’ ক্যাম্পেইন শুরু করার বিষয়ে আমাদের কাছে প্রস্তাব পাঠায়। আমরা সবাই আইডিয়ার জায়গা নিয়ে বসে যাই। গত বছর আমাদের ক্যাম্পেইন ছিল ‘কাছে আসার সাহসী গল্প’। ভালোবাসার মানুষকে কাছে পাওয়ার জন্য মানুষ যে সাহসী ভূমিকা নেয়, সেটাই আমরা জানতে চেয়েছিলাম তাদের কাছে। আমাদের ক্যাম্পেইন ভালোবাসা দিবসকে ঘিরে। যে জন্য ভালোবাসার গল্পের বাইরে যাওয়ারও সুযোগ নেই। মা-বাবা, দাদা-দাদি বা আগেরকার মানুষের ভালোবাসার গল্প নিয়ে এবার আমরা অনেক ভেবেছি। তাঁদের সময়ের ভালোবাসার গল্পগুলো এই প্রজন্মের কাছে তুলে ধরা যায় কি না? ভাবনায় ছিল বর্তমান সময়ের তরুণদের অনলাইনে, বিশেষ করে ফেসবুকে প্রেম নিয়েও। শেষ পর্যন্ত অনলাইনে প্রেমের গল্পই বেছে নেয় ক্লায়েন্ট। এরপর এক্সিকিউটিভ ক্রিয়েটিভ ডিরেক্টর তৌফিক মাহমুদ, ক্রিয়েটিভ ডিরেক্টর কাস্তান হাবিব, ক্রিয়েটিভ গ্রুপ হেড আরিফুর রহমানসহ টিমের সবাই গল্পটাকে দাঁড়া করতে আলোচনায় বসি। এই সময়ের তরুণদের অনলাইনে প্রেম করা, তারপর অফলাইনের প্রেম দেখে বিরহে ভোগা। একসময় অনলাইনের প্রেম ছেড়ে বেরিয়ে এসে অফলাইনের সম্পর্কে যে ভালো লাগা, সেটাই আমরা দেখাতে চেয়েছি। এটা থেকেই দর্শকদের কাছে আমাদের চাওয়া—আপনাদের অনলাইন থেকে অফলাইনে কাছে আসার গল্পগুলো আমাদের সঙ্গে শেয়ার করুন। সেরা তিন গল্প নিয়ে নির্মিত হবে তিনটি নাটক। আদনান আল রাজীব তাঁর পরিচালনার মাধ্যমে গল্পটাকে আরো প্রাণবন্ত করে তুলেছেন। আর এরই মধ্যে আমরা ভালো সাড়াও পেতে শুরু করেছি। অনেক পাঠক, দর্শক তাঁদের অনলাইন থেকে অফলাইনে কাছে আসার গল্প আমাদের সঙ্গে শেয়ার করেছেন।


মন্তব্য