kalerkantho


কপিরাইটারস ভিউ

রেডিওর গল্প দিয়েই টিভিসির স্ক্রিপ্ট লিখেছি

মো. আমিন সিনিয়র কপিরাইটার, গ্রে

২০ জানুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



রেডিওর গল্প দিয়েই টিভিসির স্ক্রিপ্ট লিখেছি

গ্রামীণফোনের জিপে বিজ্ঞাপনটির জন্য গাউসুল আলম শাওন ভাই স্ট্র্যাটেজি সেট করেন। যে জন্য পরের কাজটা সহজ ছিল। স্ট্র্যাটেজিক লাইনটা হলো ‘পেমেন্ট করার স্মার্টওয়ে’। এই লাইনের ওপর ১০-১৫টি গল্প তৈরি করি। এর মধ্য থেকে সেরা গল্পটি বেছে নেওয়া হয়। এরপর নির্মাতা আদনান আল রাজীবের সঙ্গে গল্প নিয়ে বসি। তাঁরা প্রস্তুতি নিয়ে ফেললেন। তখনই আবার ক্যাম্পেইনের রেডিও আইডিয়া জমা দেওয়ার পালা। ব্যাংকে ইউটিলিটি বিল পে করা, ট্রেনের টিকিট কাটা আর ফ্লেক্সিলোড করার সুবিধা নিয়েই মূলত জিপে। তাই আরডিসির গল্প ভাবার সময়, যাবতীয় বিল পেমেন্টের ঝামেলা কমাতে আমাদের চলমান প্রবণতাগুলো নিয়ে ভাবনা মাথায় খেলা করছিল। হঠাৎ মনে হলো, বিল পেমেন্ট, ট্রেনের টিকিট কাটার ঝামেলা কমানোর জন্য আত্মীয়তার সম্পর্ক তৈরি করা বেশ পুরনো রেওয়াজ। এখনো মানুষ এই সুবিধার কথা মাথায় রাখে। এই ইনসাইট থেকে আইডিয়া চলে এলো। একটা রেডিও কমার্শিয়ালেই ইউটিলিটি বিল পেমেন্টের সুবিধার জন্য মেয়ের বিয়ে ঠিক করা, ট্রেনের টিকিট কাটার জন্য ছেলের বিয়ে ঠিক করা আর ফ্লেক্সিলোডের জন্য বাসা পাল্টানোর স্ক্রিপ্ট লিখলাম। ক্লায়েন্ট সার্ভিস থেকে শুরু করে এক্সিকিউটিভ পর্যন্ত সবার খুব পছন্দ হলো। পাঠানো হলো ক্লায়েন্টের কাছে। ওরা এতটাই পছন্দ করল যে আগের টিভিসির গল্প পরিবর্তন করে রেডিওর জন্য লেখা গল্প দিয়ে তিনটি টিভিসির স্ক্রিপ্ট লিখতে বলল। আমিও নতুন করে  স্ক্রিপ্ট লিখে ফেললাম। যে ব্যাপারটা হয় কোনো গল্প লিখে নিজের ভালো লাগলে, ক্লায়েন্ট থেকে শুরু করে, দেখেছি সবারই ভালো লাগে। আদনান আল রাজীবকে শোনানো হয় গল্পটা। শাওন ভাই তাঁর মাথা খাটিয়ে সাধারণ জিনিসটাকে অসামান্য করে ফেললেন। ক্রিয়েটিভ ডিরেক্টর মেহেদি হাসান আনসারি, জাইয়ানুল হক সবার অংশগ্রহণে ব্যাপকতা পেয়ে যায় ক্যাম্পেইনটা। আর প্রবীর মিত্র, আফরোজা বানুর অভিনয়ের নৈপুণ্যে দারুণ হয়ে যায় পুরো বিজ্ঞাপনটি। নির্মাতা আদনান আল রাজীবও তাঁর পরিচালনায় প্রযুক্তির মানবিকীকরণের কাজটা করেছেন সুন্দরভাবে। 


মন্তব্য