kalerkantho

রবিবার । ১১ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


ভিন্ন চোখে

ক্যামেরার সামনে কেমন তাঁরা

তাঁরা কেউই নিয়মিত অভিনয় করেন না। অভিনয়ের কোনো প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষাও নেই তাঁদের। তার পরও টিভি পর্দায় নিয়মিতই দেখা যায় তাঁদের। তাঁরা ক্যামেরার সামনে কেমন জানাচ্ছেন আতিফ আতাউর

১৪ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



ক্যামেরার সামনে কেমন তাঁরা

সাকিব আল হাসান

ক্রিকেটার সাকিব আল হাসান। ক্রিকেটের মতো মডেলিংয়েও তুঙ্গস্পর্শী জনপ্রিয়তা।

সাকিবকে বেশ কয়েকটি বিজ্ঞাপনে তুলে ধরেছেন নির্মাতা পিপলু আর খান। ক্যামেরার সামনে শুটিংয়ে কেমন পারফর্ম করেন মাঠ কাঁপানো এই ক্রিকেটার? জানতে চাইলে পিপলু বলেন, ‘সাকিব অনেক দিন ধরেই ক্রিকেট খেলার পাশাপাশি মডেলিং করছেন। তাঁর সঙ্গে প্রথম কাজ আর এখনকার কাজের মধ্যে অনেক পার্থক্য। সাকিব এখন আগের চেয়ে অনেক বেশি প্রফেশনাল। এখন তাঁকে কোনো দৃশ্যই দ্বিতীয়বার বলে দিতে হয় না, বরং অনেক দৃশ্যে তিনি নিজ থেকেই শুটিং টিমকে পরামর্শ দেন। এটা হয়েছে দীর্ঘদিন ক্যামেরার সামনে কাজ করার কারণে। তিনি যে একজন মস্ত বড় তারকা—এটা শুটিংয়ের সময় কাউকেই বুঝতে দেন না। কাজের প্রতি তাঁর যে ডেডিকেশন এটা অনেক তারকার মধ্যেই নেই। ’

 

মমতাজ

গানের মতো মডেলিংয়েও সমান চাহিদা ফোক গানের শিল্পী মমতাজের। বর্তমান সংসদ সদস্য এই শিল্পী এর আগে নিজের নামে একটি চলচ্চিত্রের কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয়ও করেছেন। পাশাপাশি বেশ কিছু বিজ্ঞাপনে মডেল হিসেবে দেখা গেছে তাঁকে। তেমন একটি বিজ্ঞাপন গ্রামীণফোন ইজি নেট। এই বিজ্ঞাপনে তাঁকে মডেল হিসেবে তুলে ধরেছেন নির্মাতা আশফাক উজ জামান বিপুল। এই শিল্পী অভিনয়ে কেমন পারদর্শী জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘মমতাজ আপাকে নিয়ে কাজ করার মজাই আলাদা। তাঁকে নিয়ে আউটডোরে কোনো শুটিংয়ে গেলে এই মজা বেশি টের পাওয়া যায়। ভিড় সামলাতেই ইউনিটের বারোটা বেজে যায়। আর ক্যামেরার সামনে পোজ দিতেও তাঁর কোনো কার্পণ্য নেই। ক্লান্তিহীনভাবে শুটিং করে যেতে পারেন। শুটিংয়ের কোনো ঝামেলায় কখনোই বিরক্তবোধ করেন না। তাঁকে নিয়ে কাজ করার সময় বলতে পারেন ইউনিটের সবাই উৎসবের মেজাজে থাকে। ’

 

জেমস

পপ সংগীতশিল্পী জেমস। বাংলাদেশের পাশাপাশি ভারতের শ্রোতাদের কাছেও তুমুল জনপ্রিয়। তিনিও একজন জনপ্রিয় মডেল। তরুণ প্রজন্মের কাছে জনপ্রিয় এই শিল্পীর মাধ্যমে নিজেদের পণ্যের প্রমোশন চায় অনেক কম্পানি। কিন্তু খুব বেশি কাজ করেন না জেমস। মাত্র দুটি বিজ্ঞাপনে মডেল হয়েছেন। দুটিই এনার্জি ড্রিংকস ব্ল্যাক হর্সের। এতে তাঁকে তুলে ধরেছেন নির্মাতা গাজী শুভ্র। তিনি বলেন, ‘জেমস ভাইকে ক্যামেরার সামনে তুলে ধরতে আলাদা করে কষ্ট করতে হয়নি। পেশাদার অভিনয়শিল্পীদের বাইরের কাউকে যখন পণ্যের মডেল করা হয়, তখন গল্পটা তাঁকে ঘিরে লেখা হয়। ব্ল্যাক হর্সে সংগীতশিল্পী জেমসকেই তুলে ধরা হয়েছে। আমরা জেমস ভাইকে বলেছি, কনসার্টে আপনি যেভাবে গান করেন, লোকেশনেও তাই করবেন। গল্পের কারণেই তাঁদের দিয়ে কাজটা করালে সহজ হয়। জেমস ভাই কোনো কিছু না বুঝলে নিজ থেকেই জিজ্ঞেস করে নেন। ’


মন্তব্য