kalerkantho

শুক্রবার । ৯ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৮ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


প্রচারের আগে

এত কেন কঠিন পাওয়া

ক্লেমন খেয়ে ফ্রিজ পাওয়া একেবারেই সহজ। বিজ্ঞাপনটি প্রচারের আগে ঘটে যাওয়া কাহিনী জানাচ্ছেন এর গল্পকার অ্যাডকমের সিনিয়র কপিরাইটার মাহবুব মুন্না

৩০ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



এত কেন কঠিন পাওয়া

যেকোনো সিপি (কনজ্যুমার প্রমোশনাল) অফারের বিজ্ঞাপনের ক্ষেত্রে একটি বিষয় মাথায় রাখতে হয়। সেটা হচ্ছে বিজ্ঞাপনে যা অফার করা হচ্ছে তা যেন মানুষ সহজে বুঝতে পারে।

এটা বোঝাতে প্রয়োজনে কোনো কোনো ক্ষেত্রে ব্র্যান্ডের চেয়ে অফারের ভোকাল লাউড হয় বেশি।

 

ক্লায়েন্টের চাওয়া

ক্লেমনের জন্য সিপি অফারের আইডিয়া জমা দিতে বলা হয়। অ্যাডকম থেকে অনেক আইডিয়া দেওয়া হয় তাদের কাছে। কয়েকবার আইডিয়া রদবদলের পর প্রতিদিন ক্লেমনভর্তি একটি ফ্রিজ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় ক্লায়েন্ট।

 

কঠিন চাপ থেকে গল্প

পরের কাজটুকুই আসলে মূল চ্যালেঞ্জ। সময় ছিল খুবই কম। কোরবানি ঈদের আগে ক্যাম্পেইন ঘোষণা করতে হবে। সল্প সময়ে আইডিয়া বের করা বেশ কঠিন। এই কঠিন সময় থেকেই হঠাৎ আইডিয়া পেয়ে যাই। দুনিয়ায় অনেক কিছুই পাওয়া কঠিন, তবে ক্লেমনভর্তি ফ্রিজ পাওয়া খুবই সহজ। শহরে গাড়ি না পাওয়ার প্রতিদিনের অতি পরিচিত বেদনাকে উপজীব্য করে গল্পটি এগিয়ে যায়। বার্তা দেওয়া হয় ‘রোজ সকালে গাড়ি পাওয়া খুব কঠিন, তবে প্রতিদিন একটি ফ্রিজ পাওয়া খুবই সহজ। ’

 

গল্প বাছাই

প্রাথমিক আইডিয়া তৈরি হওয়ার পর এটা নিয়ে হাসিব ভাইকে (হাসিব হাসান চৌধুরী, ক্রিয়েটিভ ডিরেক্টর) দেখাই। তিনি অনুমোদন দিলেন। এরপর তৌফিক ভাইয়ের (তৌফিক মাহমুদ, এক্সিকিউটিভ ক্রিয়েটিভ ডিরেক্টর) কাছ থেকে পেয়ে যাই পাস মার্ক। এবার ক্লায়েন্টের কাছে প্রেজেন্টেশনের পালা। দৈনন্দিন লাইফের কঠিন তিনটি ঘটনা নিয়ে আমরা সিরিজ করতে চেয়েছিলাম। তবে সময়ের অভাবে শেষ পর্যন্ত একটি গল্পেই তৈরি হয় বিজ্ঞাপনটি।

 

জিঙ্গেলে হাহাকার

ব্যস্ত এই নগরে একটি বাসের জন্য কত হাহাকার করতে হয় আমাদের। সময় মতো কোথাও পৌঁছতে হলে ভিড়ের চাপে চিঁড়েচ্যাপ্টা হতে হয় সবাইকে। বাস না পেয়ে হাহাকার চেপে বসে বুকের মধ্যে। বিজ্ঞাপনের গল্প যেহেতু বাস, সিএনজি না পাওয়ার এই হাহাকারকে কেন্দ্র করে, সে জন্য হাহাকারধর্মী একটি জিঙ্গেল বেছে নিই আমরা।

কেন এত কঠিন পাওয়া/ এত কেন কঠিন পাওয়া /রোজ সকালে সয়েও যায় না সওয়া/ কিছুই যায় না পাওয়া। এমন কথার জিঙ্গেলের মিউজিক করেন স্টুডিও ফিফটি এইটের আরাফাত মহসিন।

জিঙ্গেলে আমরা একটু ফোকধর্মী সুর রাখতে চেয়েছি। আর এর জন্য বেছে নেওয়া হয় ফোকশিল্পী সফি মণ্ডলকে।

 

বৃষ্টিতে প্রথম দিনের শুটিং বাতিল

বিজ্ঞাপনটি নির্মাণের দায়িত্ব পড়ে ডোপ প্রোডাকশনের ওপর। শুটিং স্পট ঠিক হয় উত্তরার ডিয়াবাড়ি। প্রথম দিনেই বৃষ্টির কবলে পড়ে যাই। সেদিন আর কোনো দৃশ্যই ধারন করা সম্ভব হয় না। আবহাওয়ার পূর্বাভাস দেখে নতুন দিন ঠিক করা হয়। কিন্তু হায়, এবারও আবহাওয়ার খামখেয়ালিপনার শিকার হই সবাই। দুপুরের পর বৃষ্টি থামে। বাধ্য হয়েই বাকি আধাবেলায় শুটিং শেষ করতে হয়। অনেক সুন্দর সুন্দর দৃশ্য ধারণের ইচ্ছা থাকলেও বৃষ্টির বিড়ম্বনার কারণে তা আর হয়ে ওঠেনি।

 

পেছনে আরো যারা

ক্লায়েন্ট আকিজ ফুড অ্যান্ড বেভারেজ লিমিটেড। ব্র্যান্ড ক্লেমন। ব্র্যান্ড ম্যানেজার নুরুল হক পরশ, ব্র্যান্ড সার্ভিস ম্যানেজার দেলোয়ার হোসেন। এজেন্সি অ্যাডকম লিমিটেড। নির্মাতা কৃষ্ণেন্দু চট্টোপাধ্যায়। বিজ্ঞাপনে দেখা দৃশ্য ক্যামেরায় ধারণ করেছেন খায়ের খন্দকার।


মন্তব্য