kalerkantho

সোমবার । ৫ ডিসেম্বর ২০১৬। ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৪ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


বিজ্ঞাপন তরঙ্গ

৯৩টি বিজ্ঞাপন পেল কমওয়ার্ড

সেরা বিজ্ঞাপন ও বিজ্ঞাপনের পেছনের মানুষদের কমওয়ার্ড পুরস্কার দেয় বাংলাদেশ ব্র্যান্ড ফোরাম। ৬ সেপ্টেম্বর হোটেল লা মেরিডিয়ানে দেওয়া হয় এই পুরস্কার। সেখানে ছিলেন আতিফ আতাউর

২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



৯৩টি বিজ্ঞাপন পেল কমওয়ার্ড

একটি করে পুরস্কারের ঘোষণা আসে মঞ্চ থেকে। আর উচ্ছ্বাসে ফেটে পড়েন সেই পুরস্কারজয়ী দলের সদস্যরা।

পরমুহূর্তেই পর্দায় ভেসে ওঠে পুরস্কারজয়ী বিজ্ঞাপনচিত্র। দলবেঁধে গিয়ে পুরস্কার গ্রহণ করেন তাঁরা। সময়টাকে বন্দি করতে সেলফি তোলেন সবাই মিলে। এবারের ষষ্ঠ কমিউনিকেশন সামিট শেষে কমওয়ার্ড পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানের আবহ ছিল অনেকটাই এমন।

৬ সেপ্টেম্বর রাতে হোটেল লা মেরিডিয়ানে পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বিজ্ঞাপন জগতের কলাকুশলীরা। দিনব্যাপী কমিউনিকেশন সামিট শেষে রাতে বিজয়ীদের হাতে কমওয়ার্ড পুরস্কার তুলে দেওয়া হয়। দেশের ব্যবসা ও বিপণনের ক্ষেত্রে ক্রিয়েটিভ কমিউনিকেশন বা সৃজনশীল যোগাযোগে উত্কর্ষ সাধনের স্বীকৃতি হিসেবে ২৫টি ক্যাটাগরিতে এই পুরস্কার দেয় বাংলাদেশ ব্র্যান্ড ফোরাম।

এ বছর ৪১টি বিজ্ঞাপনী সংস্থা, প্রোডাকশন হাউস ও বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের ক্রিয়েটিভ বিভাগ থেকে মোট ৪৬৭টি মনোনয়ন জমা পড়ে। শীর্ষস্থানীয় বিজ্ঞাপনী সংস্থার প্রধান ও বিজ্ঞাপন জগতের বিশেষজ্ঞদের নিয়ে তিনটি জুড়ি প্যানেল এবারের সেরা বিজ্ঞাপনগুলো নির্বাচিত করে।

এ বছর নামি বিজ্ঞাপনী সংস্থাগুলোর পাশাপাশি নতুন ও ছোট এজেন্সিগুলো সৃজনশীল বিজ্ঞাপনের জন্য কমওয়ার্ড পুরস্কার জিতে নেয়। নির্বাচিত বিজ্ঞাপনগুলোকে গ্র্যান্ড প্রি, গোল্ড ও সিলভার—এই তিন শ্রেণিতে পুরস্কার দেওয়া হয়। এ বছর ২০১৫ সালে প্রচারিত বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের ৯৩টি বিজ্ঞাপন পুরস্কার জিতে নেয়। ২০০৯ সাল থেকে ধারাবাহিকভাবে এই পুরস্কার দিয়ে আসছে বাংলাদেশ ব্র্যান্ড ফোরাম। এ বিষয়ে বিজ্ঞাপনী এজেন্সি বিটপি লিও বার্নেটের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সারাহ আলী বলেন, ‘বাংলাদেশ ব্র্যান্ড ফোরাম কানস লায়নের সহযোগিতার ষষ্ঠবারের মতো কমওয়ার্ড আয়োজন করেছে। বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে ৯টি পুরস্কার জিতে আমরা পুরো বিটপি টিম খুব খুশি। এই অর্জনের একটা বড় অংশ আমাদের ক্লায়েন্টদের, আমাদের ওপর বিশ্বাস রাখার জন্য। ’


মন্তব্য