kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৭ জানুয়ারি ২০১৭ । ৪ মাঘ ১৪২৩। ১৮ রবিউস সানি ১৪৩৮।

আলচিত বিজ্ঞাপন

মৌমাছির জন্য...

বিশ্বজুড়েই পণ্যের প্রতি সচেতনতা তৈরিসহ বিভিন্ন প্রচারণা চালানোর ক্ষেত্রে বিজ্ঞাপনের জুড়ি নেই। বিভিন্ন কম্পানি ও সংগঠন বিজ্ঞাপন বানিয়ে সচেতনতার পাশাপাশি সাড়া ফেলতে চায় জনসাধারণের মধ্যে। এগুলোর মধ্যে নানা কারণেই আলোচনায় উঠে আসে বেশ কিছু বিজ্ঞাপন...

১ এপ্রিল, ২০১৬ ০০:০০



মৌমাছির জন্য...

কুকুর পড়ে গেছে গভীর খাদে। তুলতে সাইরেন বাজিয়ে চলে আসে উদ্ধারকারী দল। হাতির বাচ্চা পানির সরু গর্তে নেমেছে গায়ে কাদা মাখার শখে। ব্যস, নেমে আর উঠতে পারছে না বেচারা! কী আর করা, তাকে উদ্ধারেও এগিয়ে এলো ফায়ার সার্ভিস। বাচ্চাটিকে কাছে পেয়ে হাতির মায়ের সে কী আনন্দ। পুকুরে দিনমান নেচে গেয়ে বিকেলে দলবেঁধে মায়ের সঙ্গেই বাসায় ফিরছিল হাঁসের ছোট্ট ছানাগুলো। সড়ক পার হতে গিয়ে ম্যানহোলের ফাঁক গলে পড়ে গেল নিচে। তাদেরও বাঁচাতে এগিয়ে আসে ফায়ার সার্ভিস। বিড়াল ছানাকে উদ্ধার করে প্রাথমিক চিকিৎসাও দিয়ে দিল তারা। বলগা হরিণ বরফে আটকা পড়েছিল। বরফ কেটে উদ্ধার করে নিয়ে আসা হলো তাকে। এই তালিকায় আরো আছে কুকুর, তিমি, ডলফিন, কচ্ছপ ও বানর শাবক। যাদের বিপদে এগিয়ে আসে ফায়ার সার্ভিসসহ নানা রকম উদ্ধারকারী দল। উদ্ধারের পর প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে তাদের উপযোগী পরিবেশে ছেড়েও দেওয়া হয়। এ সবেরই খণ্ডচিত্র নিয়ে নির্মিত হয়েছে হানি নাট চেরিওস নামের একটি পণ্যের বিজ্ঞাপন। বিজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, অন্যকে সাহায্য করাটা আমাদের মজ্জাগত। তবে এখন আরেক বন্ধুর সাহায্যের প্রয়োজন। মৌমাছিগুলোর কী হয়েছে! এর পরই কয়েকটি পত্রিকার ছবি দেখানো হয়। সংবাদগুলোর শিরোনামে লেখা—লাখে লাখে মৌমাছি মারা যাচ্ছে। মৌমাছির স্বাস্থ্য খারাপ হওয়ায় এক-তৃতীয়াংশ খাদ্যপণ্য হুমকির মুখে। মৌমাছি রক্ষা করাটাই এখন সবচেয়ে জরুরি। ওরা আমাদের সাহায্যের জন্য মুখিয়ে আছে। আর সব শেষে ফুটে ওঠে স্লোগান—মৌমাছিকে বাঁচাতে সাড়ে তিন কোটি ফুলগাছ রোপণে আপনিও আমাদের সঙ্গে যোগ দিন।

আর এর পরই কম্পানির পণ্যের প্রমোশন—হানি নাট চেরিওস। বিজ্ঞাপনটির মাধ্যমে প্রতিষ্ঠানটি মৌমাছিকে রক্ষার জন্য সচেতনতার পাশাপাশি মৌমাছির মধু দিয়ে তৈরি নিজেদের পণ্যের প্রচারও চালিয়েছে। অ্যাডস অব দ্য ওয়ার্ল্ভ্র ওয়েবসাইটে সপ্তাহের সেরা বিজ্ঞাপনের তালিকায় আছে বিজ্ঞাপনটি। পণ্যটির জন্য কম্পানির স্লোগান—ব্রিংকস ব্যাক দ্য বিস। বিজ্ঞাপনটির এজেন্সি কানাডার কসেটি, চিফ ক্রিয়েটিভ ডিরেক্টর কার্লোস মরেনো ও পিটার ইগনাজি, কপিরাইটার ধাবাল ভাট, প্রোডাকশন হাউস সামি বি প্রোডাকশনস।   -আহমেদ ইমরান


মন্তব্য