kalerkantho

রবিবার। ২২ জানুয়ারি ২০১৭ । ৯ মাঘ ১৪২৩। ২৩ রবিউস সানি ১৪৩৮।


ক্ষীর কুকিজে খুনসুটি

বিজ্ঞাপনের বড় তারকা বিদ্যা সিনহা মিম। ডেকো ক্ষীর কুকিজের শুটিংয়ে অংশ নেন সম্প্রতি। সেই শুটিংয়ের গল্প জানাচ্ছেন নাসির খান

১ এপ্রিল, ২০১৬ ০০:০০



ক্ষীর কুকিজে খুনসুটি

ছবি : শামসুল হক রিপন

কোক স্টুডিওর ভেতরে ঢুকতেই এলাহি কাণ্ড। বিশাল সেট ফেলে শুটিং হচ্ছে  বিজ্ঞাপনের। অভিজাত বাড়ির নান্দনিক অন্দরমহলের আদলে সেট ফেলেছেন নির্মাতা মেহেদী হাসিব ও পনি আবেদীন। এই সেটেই শুটিংয়ে অংশ নেবেন জনপ্রিয় মডেল বিদ্যা সিনহা মিম। মিম ততক্ষণে মেকআপ রুমে ব্যাস্ত। এদিকে ব্যাস্ত ইউনিটের কর্মীরা। সব প্রস্তুত, তখনই সেটে হাজির মিম। তাঁকে দেখে মনে হলো এ যেন অন্য কেউ। চুল, স্টাইল ও পোশাকে ইতালীয় ঢং। সেটে ঢুকেই পনি আবেদীনের কাছ থেকে বুঝে নিলেন শট।

প্রথম দৃশ্যের চিত্রনাট্য এমন—মিম জানালার পাশে বসে জানালার কাচে আনমনে আঙুলে আঁকিবুঁকি করবেন। সেই আঁকিবুঁকিতে ফুটে উঠবে কুকিজ। কারণ বিজ্ঞাপনটিই ডেকো গ্রুপের বিস্কুট ডেকো ক্ষীর কুকিজের। জানালার কাচে লেখা ফুটে উঠবে কিভাবে? তখনই একজনকে দেখা গেল স্টিম মেশিন দিয়ে জানালার কাচে বাষ্প ফেলতে। কাজটা তিনি এতটাই নিখুঁতভাবে করলেন, মনে হলো শীতের রাতের শেষে কাচের জানালায় কুয়াশা জমে গেছে।

মিম জানালার পাশে বসলেন। কুকিজ কিভাবে লিখবেন তাঁকে দেখিয়ে দিলেন পনি। মেহেদী হাসিব অ্যাকশন বলতেই ক্যামেরায় ফুটে উঠল আনমনা মিমকে। যিনি জানালার পাশে বসে আঙুলে লিখলেন—কুকিজ। বাইরে থেকে দেখে তো সব ঠিকই মনে হলো। কিন্তু পরিচালকের আরো ভালো শট চাই। মিমকে আবার দৃশ্যটির শট দিতে বললেন। তিনিও প্রস্তুত। কিন্তু একি? জানালার কাচে বাষ্প কই? এমনিতেই গরম, তার ওপর শুটিং স্পটের তীব্র লাইটের তাপ। সেই গরমে বাষ্প কি আর কাচের জানালায় বসে থাকে? কোথায় উড়ে চলে গেছে! অতএব আবার জানালার কাচে স্টিম মেশিন দিয়ে বাষ্প ফেললেন একজন। সেই বাষ্পে আঙুল বুলিয়ে মিম আবার লিখলেন—কুকিজ। কয়েকবারের শটে ওকে হলো দৃশ্যটি। নির্মাতা ‘ডান’ বলার সঙ্গে সঙ্গেই মেকআপ রুমে চলে গেলেন মিম। কারণ গরমে সেটে থাকলে মেকআপ নষ্ট হয়ে গেলে আবার আরেক সমস্যা।

প্রথম দৃশ্যটি ক্যামেরার মনিটরে কয়েকবার ঘুরেফিরে দেখে নিলেন হাসিব ও পনি। প্রোডাকশনকে নির্দেশ দিলেন পরের দৃশ্যের সেট সাজাতে। ক্যামেরা তৈরি বলে জানালেন সিনেমাটোগ্রাফার রাজু রাজ। শুরু হলো বিস্কুটের সঙ্গে মিমের খুনসুটি। এক প্যাকেট বিস্কুট। কিন্তু কোথাও রেখে শান্তি পাচ্ছেন না। একবার খাটের কোনায় তো পরেরবারই সেখান থেকে নিয়ে লোহার সিন্দুকে। তাতেও মন ভরে না। শেষমেশ বিস্কুটের সঙ্গেই লুকোচুরি খেলা শুরু করেন মিম। মাত্র তিনটি দৃশ্য নিতেই বেলা গড়িয়ে বিকেল।

এক মিনিটের এই বিজ্ঞাপনের জন্য শুটিং চলবে আরো দুই দিন। শেষ দিন শুধু প্রোডাক্টের শুট হবে, জানান হাসিব। বিজ্ঞাপনটি একই সঙ্গে বাংলাদেশসহ ভারতের চারটি চ্যানেল—কালারস, স্টার জলসা, স্টার প্লাস ও জি বাংলায় দেখানো হবে। একই সঙ্গে বিজ্ঞাপনটির হিন্দি ডাবিং হবে বলেও জানান তিনি। বিজ্ঞাপনটি সম্পর্কে ডেকো ফুডসের মার্কেটিং এজিএম অনুপম রায় বলেন, ‘আমরা সাধারণত বাটিতেই ক্ষীর খেতে অভ্যস্ত। কিন্তু সেটা তো আর সব সময় সম্ভব না। তাই ক্ষীর কুকিজ বিস্কুটেই নিয়ে এসেছি বাটির ক্ষীরের স্বাদ। সেটির প্রমোশনের জন্যই নতুন এই বিজ্ঞাপন নিয়ে আমাদের যাত্রা। ’

ডট থ্রি প্রোডাকশনের ব্যানারে নির্মিত এই বিজ্ঞাপনটি এ মাসেই বিভিন্ন মাধ্যমে প্রচারিত হবে বলে জানান মেহেদী হাসিব।


মন্তব্য