kalerkantho


বৈদ্যুতিক গাড়ির জন্য মাইলফলক হবে ২০১৮ সাল

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৪ ডিসেম্বর, ২০১৭ ১৫:১৭



বৈদ্যুতিক গাড়ির জন্য মাইলফলক হবে ২০১৮ সাল

ছবি অনলাইন

গাড়ির জগতে এতদিন ধরে যে রীতি চলে আসছে, তা অনেকটাই পাল্টে যাচ্ছে আগামী বছরে। বিশ্লেষকরা বলছেন, ২০১৮ সালটি হবে বৈদ্যুতিক গাড়ির জন্য মাইলফলক। পরিবর্তনের ঢেউ সবচেয়ে বেশি লাগবে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে।

বহু বছর ধরেই বৈদ্যুতিক গাড়ি উৎপাদন করছে কয়েকটি প্রতিষ্ঠান। কিন্তু এসব গাড়ি বিভিন্ন সীমাবদ্ধতা ও উচ্চ দামের কারণে সাধারণের নাগালের বাইরে ছিল। তবে এ বছরে সীমাবদ্ধতাগুলো কাটিয়ে উঠে নতুন করে গ্রাহকের হাতে পৌঁছাবে বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা।

এ ছাড়া এসব গাড়ি পরিবেশের জন্য কম ক্ষতিকর হওয়ায় বিভিন্ন দেশের সরকার এ ধরনের গাড়িকে প্রণোদনা দিচ্ছে।

টেসলা, নিশানের মতো শীর্ষ গাড়ি নির্মাতা প্রতিষ্ঠানগুলোর নতুন মডেলের বৈদ্যুতিক গাড়ি আগামী বছর বাজার দখল করবে। আগামী বছর বৈদ্যুতিক গাড়ি ব্যবহারের পাশাপাশি সহজলভ্য হবে। বৃদ্ধি পাবে চাহিদাও। বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রের ১.৫ শতাংশ পরিবারের কাছে বিদ্যুতচালিত গাড়ি রয়েছে।

আগামী বছর প্রথম বৈদ্যুতিক গাড়ি হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে আসবে শেভ্রোলেট বোল্ট ইভির নতুন সংস্করণ। যদিও ইতিমধ্যে মডেলটির প্রায় ২ লাখ গাড়ি বিক্রি হয়ে গেছে। ৩৭ হাজার মার্কিন ডলার মূল্যের এ বৈদ্যুতিক গাড়ি পূর্ণ চার্জে ২৩৮ মাইল চলতে সক্ষম। অন্যদিকে নিশানের পুনরায় নকশা করা নিশান লিফ আগামী বছর বাজারে আসবে। তবে এ বৈদ্যুতিক গাড়ি শেভ্রোলেট বোল্ট ইভির সঙ্গে প্রতিযোগিতায় নামতে যাচ্ছে না।

নিশান বহুদিন ধরেই লিফ মডেলটির মাধ্যমে বৈদ্যুতিক গাড়ির বাজার ধরার চেষ্টায় আছে। তবে গাড়িটির দাম ও মাইলেজ বোল্টের চেয়ে কম। ৩০ হাজার ডলার দামের নিশানের গাড়িটি পূর্ণ চার্জে ১৫০ মাইল পাড়ি দিতে পারে। আগামী বছর  নিশানের আরেকটি নতুন মডেল বাজারে আসার কথা রয়েছে। এটি ক্রেতাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

এদিকে শীর্ষ বৈদ্যুতিক গাড়ি নির্মাতা প্রতিষ্ঠান টেসলা বিশ্বের সবচেয়ে দ্রুততম বৈদ্যুতিক গাড়ি নির্মাণ করে তাক লাগিয়ে দিয়েছে। তাদের অন্য একটি গাড়ির নাম 'মডেল ৩'। এ গাড়িটি আগামী বছর শীর্ষে থাকার কথা রয়েছে। ইতোমধ্যেই টেসলার মডেল ৩ গাড়ির প্রায় চার লাখ অর্ডার পেয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।

এছাড়া বিএমডাব্লিউ, টয়োটা, ভক্সওয়াগনসহ বিভিন্ন গাড়ি নির্মাতা বৈদ্যুতিক গাড়ির মডেল নিয়ে গবেষণা করছে।

বৈদ্যুতিক গাড়ি নিয়ে ব্যবহারকারীদের ভীতি আগামী বছর অনেকাংশেই কেটে যাবে বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা। আর এতে এ গাড়ির বিক্রি বাড়ার পাশাপাশি পরিচিতিও বাড়বে বলে ধারণা করছেন বিশ্লেষকরা।
সূত্র : সিএনএন


মন্তব্য