kalerkantho


কিভাবে নিচু করবেন আপনার প্রিয় মোটরসাইকেল (ভিডিও)

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৩ মার্চ, ২০১৭ ১১:৪৯



কিভাবে নিচু করবেন আপনার প্রিয় মোটরসাইকেল (ভিডিও)

বিশাল এক হাইওয়ে রোডে আপনি আপনার ব্র্যান্ড নিউ মোটরসাইকেল চালাচ্ছেন। আপনি অনেক খাটো, কিন্তু চালাচ্ছেন একটি লম্বা মোটরসাইকেল। আপনার উচ্চতা ৫.৫ ইঞ্চি এবং বাইক চালানো শুরু করতে চান কেটিএম সুপার ডুক বাইক দিয়ে। যার সিটের উচ্চতা ৩২.৯ ইঞ্চি। আপনি মাটি থেকে ২৮ ইঞ্চি উচ্চতা পর্যন্ত বসতে পারবেন। তার মানে আপনি বাইক চালাতে পারবেন না। কিন্তু না, এর অবশ্যই পন্থা রয়েছে। আপনি কিছু পদ্ধতি অবলম্বন করলে আপনি সহজেই লম্বা বাইক চালাতে পারবেন।

লম্বাটে হয়ে নয়, স্মার্টলি ড্রাইভ করুন
প্রথমেই, সহজ সাবলীল পদ্ধতি প্রয়োগ করুন, যেন আপনি একজন রাইডার এবং আপনার কমফোর্ট লেভেল তৈরি করুন। যেসব রাইডার অনেক খাটো, তারা অনেক সময় একটি পায়ের ওপর ভর দিয়ে দাঁড়িয়ে থাকে। এ জন্য আপনাকে সমান উচ্চতার হতে হবে। তবে দুই পায়ে ভর দিয়ে বাইক দাঁড় করানো মোটরসাইকেল চালানোর নিয়মের মধ্যেই পড়ে।

আপনি কিভাবে বাইক এর ব্যালেন্স ঠিক রাখবেন বা এক সাইডে কাত করাবেন তা বাইকের সাইজের ওপর নির্ভর করে। এটি পরিপূর্ণ পদ্ধতি নয়, তবে কনফিডেন্টস ও নিয়মিত প্র্যাকটিস করলে আপনি অবশ্যই পারবেন। অনেক রাইডার এই পদ্ধতিতে কমফোর্টেবল নয়। তাদের জন্য ভিন্ন পদ্ধতি।

মোটরসাইকেল সাসপেনশন- স্যাগ সেটিং করা
বেশির ভাগ বাইক এর সাসপেনশন সেট করা হয় ১৮০ পাউন্ড ভর তোলার জন্য। যদি বাইক আপনার থেকে হেভিয়ার করে সেট করা হয়, তবে লম্বাটে রাইড করতে হবে এবং খাটো রাইডারদের জন্য মাটি স্পর্শ করা কঠিন হয়ে পড়বে। সাসপেনশন স্প্রিং পরিপুর্ণ ভার না পাওয়া পর্যন্ত ওপরের দিকে ধাক্কা দিতে থাকে। আপনি বাইকের যেকোনো পার্টস পরিবর্তনের সময় বাইক এর সাসপেনশন স্যাগ ঠিক করে নিন। এতে আপনারই বাইক রাইড করতে সুবিধা হবে এবং দুই পায়েই মাটি স্পর্শ করতে পারবেন।

মোটরসাইকেল এর সিট নিচু করা
একটি পন্থা যেটি আমি নিজেও পছন্দ করি আপনাদের কাছে শেয়ার করব, আপনার বাইকের সিট নিচু রাখা। এতে রাইডার খুব সহজেই মাটি স্পর্শ করতে পারবে। আপনার কমফোর্ট বৃদ্ধি করবে, আপনি লম্বাটে ভাবে বসতেও পারবেন। অনেক রাইডার কমফোর্ট এর জন্য সিট পরিবর্তন করে থাকে। এই পদ্ধতির জন্য আপনি সিটের সামনের দিকের অংশটুকু চিকন করে নিতে পারেন। এতেও আপনি বাইকে বসে মাটি স্পর্শ করতে পারবেন। এর মাধ্যমে আপনি অনেকটা কমফোর্ট পেতে পারেন।

বাইক নিচু করুন
ওপরের পদ্ধতির কোনোটিও কাজ না করলে, আপনি সর্বশেষ আপনার বাইকের ফ্রন্ট সাসপেনশন নিচু করে ফেলুন। এটি সর্বশেষ পদ্ধতি। মোটরসাইকেলের সাসপেনশন নিচু বা পরিবর্তন করা সহজ কাজ নয়। বাইক নিচু করার ক্ষেত্রে অনেক বিষয় খেয়াল রাখতে হয়। হ্যান্ডেলিং পরিবর্তন করা, স্পিড বাম্পস এর জন্য গ্রাউন্ড ক্লিয়ারেন্স রাখতে হয়। নয়তো, বাইকের নিচের পার্টস রাস্তায় ঘর্ষণ করবে। বাইক হ্যান্ডেলিং ঠিক করার ক্ষেত্রে খুব ভালোভাবে পরিবর্তন করতে হবে। এটি অনেক বিপজ্জনকও বটে। ড্রাগিং এর ক্ষমতা ঠিক রাখতে হবে। নাহলে এসফাল্ট এর মতো আপনিও দুর্ঘটনায় পড়তে পারেন। আমি কিছু রাইডারদের চিনি, যারা ড্রাগিং পেগস ফল্ট এর কারণে বিভিন্ন দুর্ঘটনার শিকার হয়েছে।

বেশির ভাগ বাইকের উচ্চতার হার প্রায় একই। যদি কোনো বাইকে অন্যরকম হয়ে থাকে, তাতেও সমস্যা নেই। এতে অনেকগুলো শিফট রয়েছে। তাই খুব সাবধানতার সাথে অল্প পরিমাণ পরিবর্তন করুন। বেশি পরিবর্তন করতে যাবেন না, এতে আপনিই সমস্যায় পড়বেন। সাসপেনশন রেট পরিবর্তন এর পাশাপাশি এর স্প্রিং রেটও পরিবর্তন হয়। ১০ মিলিমিটার নিচু করলে স্প্রিং এ ২০% কম্প্রেশন সৃষ্টি হয়। প্রতি বাইক ও রাইডার তার নিজের সুবিধা অনুযায়ী বিভিন্ন সাইজে পরিবর্তন করে থাকে। মনে রাখবেন, এটি শুধুমাত্র কৌশল। এই পদ্ধতি কিভাবে করতে তার জন্য কোন দক্ষ মেকানিক এর সাথে যোগাযোগ করুন।

আরেকটি পদ্ধতি হচ্ছে, পিছনের শক ছোট করা। এই পদ্ধতি অনেক ব্যয়বহুল। কিন্তু এতে আপনি ফ্যাক্টরি স্প্রিং রেট এবং ফ্যাক্টরি লিংকেজ রেট পাবেন। প্রায় ২০০ ডলার এর মত ব্যয়ে আপনি এটি পরিপুর্ণ করতে পারবেন। আপনি যতবারই সাসপেনশন পরিবর্তন করবেন, তখনি এই খরচ করতে হবে। পিছনের শক ছোট করার সুবিধা হচ্ছে এটি ফ্যাক্টরি রাইড মেইন্টেইন করে। যখন আপনি মোটরসাইকেল পিছনের শক (Dog Bone) ছোট করবেন, এর সাথে আপনাকে ফ্রন্ট সাসপেনশনও ম্যাচ করতে হবে। এটি নির্ভর করে আপনি আপনার মোটরসাইকেল কতটুকু নিচু করবেন। আপনি যদি ফর্ক্স নিচু না করেন, তবে আপনি সম্পুর্ন ওজন ব্যালেন্স পরিবর্তন করতে হবে। এমন কি ফ্রন্ট এন্ড জিওমেট্রি এবং স্টিয়ারিং।

কিভাবে একটি মোটরসাইকেল এর ফ্রন্ট ইন্ড নিচু করবেন
অনেকেই বলে থাকে, কখনো ফ্রন্ট নিচে নামাবেন না। আবার অনেকেই এটার প্রতি সম্মত। ফ্রন্ট ফেন্ডার এ একটি ছোট এরিয়ার ফ্রন্ট ফর্ক্স অ্যাডজাস্টমেন্ট করতে হয়। এটি খুবই বিপজ্জনক, আবার সহজ বটে। তবে অভিজ্ঞতা ছাড়া সাসপেনশন এর কাজে হাত না দেওয়াই ভালো।

বাইক নিচু করলে কি হতে পারে নিচের ভিডিওটিতে দেখুন

 



মন্তব্য