kalerkantho


শারদ রজনীতে...

শরতের রাতেও গ্রীষ্মের গরম পিছু ছাড়ছে না। আছে উত্সবের আমেজ। এই সময়ে পরিমিত মেকআপে জমকালো লুকের গাইডলাইন দিয়েছেন রেড বিউটি স্যালনের রূপবিশেষজ্ঞ আফরোজা পারভীন। লিখেছেন নাঈম সিনহা

১ অক্টোবর, ২০১৮ ০০:০০



শারদ রজনীতে...

মডেল : মৌসুম, সাজ : রেড বিউটি স্যালন, পোশাক : রঙ বাংলাদেশ, ছবি : কাকলী প্রধান

মজবুত বেইজ

মুখ ধুয়ে এক টুকরা বরফ ঘষে নিন। এরপর মেকআপ শুরু করুন; দীর্ঘ সময় ঘাম থেকে সুরক্ষা দেবে। মুখে কোনো দাগ বা ব্রণের সমস্যা থাকলে প্রথমেই সেখানে কনসিলার লাগিয়ে নিন। এরপর লং লাস্টিং ফাউন্ডেশন মুখ, গলা ও ঘাড়ে লাগিয়ে নিন। মুখের টিজোন ও ব্লাশন বোনে কনট্যুরিং করুন। কনট্যুরের জন্য ত্বকের চেয়ে দুই শেড গাঢ় কনসিলার বা ফাউন্ডেশন স্টিক বেছে নিন। কনট্যুরের ক্ষেত্রে ব্লেন্ডিং খুব জরুরি। তাই ব্রাশ দিয়ে বেইজ ভালো করে ব্লেন্ড করে নিন, যেন আলাদা করে কনট্যুরিং চোখে না পড়ে। এরপর কমপ্যাক্ট অথবা লুস পাউডার দিয়ে বেইজ শেষ করতে পারেন। হালকা বেইজে স্নিগ্ধ সাজে জমকালো লুক পেতে অল্প পরিমাণে শিমার পাউডার লাগান। তৈলাক্ত, মিশ্র ত্বক বা বেশি ঘামার প্রবণতা থাকলে সহজেই বেইজ নষ্ট হয়ে যায়। সে ক্ষেত্রে বেইজ আরো খানিকটা মজবুত করতে মেকআপ ফিক্সার ব্যবহার করলে ভালো ফল পাবেন। এতে অনেকক্ষণ মেকআপ ঠিকঠাক থাকবে। মোটামুটি সব ধরনের পার্টি লুকের জন্য এই বেইজ প্রযোজ্য।

 

 

সাজের ধারা

চোখ ও ঠোঁটের সাজে বৈপরীত্য থাকুক এই শরতে। লিপস্টিক গাঢ় রঙের হলে চোখের মেকআপ হবে হালকা। আর চোখে জমকালো সাজ চাইলে লিপস্টিক থাকবে ন্যুড। অবশ্য রাতের নিমন্ত্রণের সাজে হালকা রঙা ছিমছাম পোশাকের সঙ্গে চোখ ও ঠোঁট দুইয়েই একটু গাঢ় সাজও চলতে পারে। আবার খুব জমকালো পোশাকের সঙ্গে সাজ হতে পারে হালকা ও ন্যাচারাল। রাতের দাওয়াতে চোখের সাজে লাইনার, কাজল ও মাশকারা সবই চলতে পারে। এ ক্ষেত্রে কাজল বা লাইনার যেকোনো একটিকে প্রাধান্য দিন। গাঢ় করে কাজল দিলে লাইনারের সঙ্গে আই শ্যাডো ব্লেন্ড করে দিন। আর চোখের পাতায় লাইনার চাইলে চোখের কোণে হালকা কাজলের রেখা টেনে তুলি দিয়ে মিশিয়ে দিন। হালকা সাজেও চোখ বের করে আনে মাশকারা। তাই মাশকারায় ছাড় দেওয়া চলবে না। বেশ ভারী করে কয়েক কোট মাশকারা দিন চোখে। কম বয়সীরা ঠোঁটের সাজে নিরীক্ষা করতে চাইলে উজ্জ্বল ও গাঢ় লিপস্টিক বেছে নিতে পারেন।

রঙের খেলা

রাতের জমকালো সাজে শরতে চোখকে আরাম দেয়—এমন সাজ ও পোশাক বেছে নিন। ইন্ডিগো, আকাশি নীল, উজ্জ্বল সবুজ, সাদা, অফহোয়াইট, ধূসর ইত্যাদি রঙের পোশাক প্রশান্তি দেবে। আগেই বলেছি, পোশাক খুব রঙিন হলে সাজের রং বাছাইয়ে সতর্ক হতে হবে। পোশাকের থেকে যেকোনো একটি বা দুটি শেড বেছে নিতে পারেন আইশ্যাডোতে। কিংবা স্মোকি আই চাইলে নীল কপার ও কালো রং বেছে নিতে পারেন। হাইলাইটার হিসেবে সাদা ও সোনালি রং ভালো দেখাবে। টিনএজাররা ন্যাচারাল চোখে ওয়ান টোন আইশ্যাডো দিয়ে কালারফুল কাজল ব্যবহার করলে উজ্জ্বল লুক আসবে। চাইলে কালোর বদলে নীল বা বারগেন্ডি মাশকারাও নিতে পারে তারা। ব্লাশঅন হিসেবে হালকা গোলাপি, হালকা ইট রং, বাদামি রঙের বিভিন্ন শেড বেশ চলছে। লিপস্টিক গাঢ় চাইলে লাল, মেরুন, সোনালি, বেগুনি রং দিতে পারেন। ন্যুড ঠোঁটে পোশাকের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে বাদামি, বাঙ্গি, লাইট পিংক, মেটালিক শেডগুলো বেছে নিন।

চুল

চুল বাঁধার ক্ষেত্রে কয়েকটি বিষয় মাথায় রাখতে হবে—উত্সব, উপলক্ষ ও পরিবেশ। রাতের সাজে খোলা চুলের সাজ সবচেয়ে সুন্দর। সঙ্গে মাথায় রাখতে হবে গরমের কথাও। শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত ভ্যেনু হলে ইচ্ছামতো ছাড়া চুলের যেকোনো সাজ বেছে নিতে পারেন। সব চুল ব্লো ড্রাই করে নিচের দিকে অল্প কার্ল করা এখন খুব চলছে। আবার পোশাকের সঙ্গেও হেয়ারস্টাইল মানানসই হওয়া চাই। দেশীয় পোশাক, যেমন শাড়ি বা কামিজের সঙ্গে খোলা চুলের পাশাপাশি খোঁপা কিংবা বেণিও ভালো মানায়। ওয়েস্টার্ন পোশাকের সঙ্গে কার্লি চুলের যেকোনো হেয়ারস্টাইল মানাবে। কম বয়সীরা সামনের দিকে বিভিন্নভাবে বেণি করে পেছনে পনিটেল বা কার্ল করতে পারেন। চুলের সাজ যা-ই হোক, তাতে পূর্ণতা পেতে ফুল পরতে পারেন। তাজা অথবা কৃত্রিম সাজের সঙ্গে মানানসই যেকোনো ধরনের ফুল বেছে নিতে পারেন।



মন্তব্য