kalerkantho


অ্যাটায়ার

ভ্রমণে আরামের পোশাক

যেকোনো জায়গায় ভ্রমণের আগে গুছিয়ে নিতে হবে নিজের পোশাক। মাথায় রাখতে হবে আবহাওয়া, গন্তব্যের পরিবেশ ও প্রকৃতিও। কেমন হতে পারে ভ্রমণের পোশাক, জানাচ্ছেন এ এস এম সাদ

৬ আগস্ট, ২০১৮ ০০:০০



ভ্রমণে আরামের পোশাক

পোশাক : ইজি

ইয়েলোর ডিজাইনার শাম্মি আক্তার বলেন, বৃষ্টি ও গরমের এই সময়ে ভ্রমণে সবচেয়ে আরাম সুতি কাপড়ে। ইদানীং লিনেনও জনপ্রিয়তা পাচ্ছে। কারণ এ ম্যাটেরিয়ালগুলো সহজেই ঘাম শুষে নেয় এবং তাপ প্রতিরোধ করতে পারে। ভ্রমণের পোশাকে খুব বেশি জমকালো কাজ না থাকাই ভালো।

♦          ঢিলেঢালা পোশাক—ভ্রমণে ঢিলেঢালা পোশাক পরাই শ্রেয়। পাতলা সুতির ঢিলেঢালা পোশাকে সহজেই বাতাস চলাচল করতে পারে। তাই গরম কম লাগে। ছিটেফোঁটা বৃষ্টির পানি লাগলেও ক্ষতি নেই। শুকিয়ে যায় কম সময়ে।

♦          অর্গানিক হলে বেশি ভালো হয়—কাপড় যদি ভালোভাবে ঘাম শুষে না নিতে পারে, তাহলে দুর্গন্ধ তৈরি হবে। প্রাকৃতিক তন্তু ত্বক থেকে ঘাম শুষে নিয়ে তা বাষ্পীভূত করে। তাই এখানেও সুতিই সেরা। লিনেনের শোষণক্ষমতা বেশ ভালো। এটি পলিয়েস্টার ও অন্যান্য সিনথেটিক কাপড়ের মতো তাপ আটকে রাখে না। সিনথেটিক কাপড় তাপ নিরোধক নয়। এসব কাপড় ঘাম তৈরি করে, কিন্তু ঘাম শুষে নিতে পারে না। ফলে অস্বস্তি হয়।

♦          রং—গাঢ় রঙের পোশাকের তাপ শোষণক্ষমতা বেশি। তাই গাঢ় রঙের কাপড়ে বেশি গরম লাগে। আমাদের দেশের যে আবহাওয়া তাতে বছরের বেশির ভাগ সময় গরম থাকে বলে ভ্রমণে হালকা রঙের পোশাক বাছাই করা উচিত। ভ্রমণে কালো পোশাক পরা ঠিক নয়। তাতে আরামের বদলে অস্বস্তি দেবে বেশি। হালকা গোলাপি, হলুদ, ঘিয়ে, সাদা, আকাশি ইত্যাদি রঙের পোশাক পরা স্বস্তিদায়ক।

 

সঙ্গে রাখতে পারেন

♦          টুপি—একই সঙ্গে ক্লাসিক ও স্টাইলিশ। উপরন্তু এটি রোদের প্রকোপ থেকে মাথা, মুখ ও ঘাড়কে সুরক্ষা দেয়। ট্রাভেল ব্যাগে দু-তিনটি স্টাইলিশ হ্যাট থাকলে মন্দ কী!

♦          জ্যাকেট—জ্যাকেট শুধু শীত নিবারণই করে না; বরং গরমে সুতি বা লিনেনের জ্যাকেট রোদ থেকে সুরক্ষা দেয়, দ্রুত ঘাম শুষে নেয় এবং শরীর ফুরফুরে রাখে। আর এসি পরিবহনে যাদের সমস্যা তাদেরও কাজে দেবে।

♦          ট্রাউজার—যেকোনো আবহাওয়ায় জিন্সের প্যান্ট পরা গেলেও গ্রীষ্মে জিন্সটাকে এড়িয়ে চলুন। যদি গন্তব্য হয় সমুদ্রপার বা পাহাড়, তবে অনায়াসে সুতি ও লিনেনের কালারফুল ট্রাউজার পরতে পারেন।

♦          জুতা—গ্রীষ্মে জুতার চেয়ে স্লিপার বা স্যান্ডেল শু-তে বেশি আরাম পাওয়া যায়। তবে জুতা পরলে অবশ্যই মোজা পরা উচিত। পায়ে প্রতিদিন ঘাম হয়। মোজা ছাড়া জুতা পরলে ঘামে ভিজে জুতার ভেতরের অংশ দ্রুত নষ্ট হয়ে যায়; হতে পারে উত্কট গন্ধ। জুতা পরলে অবশ্যই সুতি বা পাতলা উলের মোজা ব্যবহার করুন।



মন্তব্য