kalerkantho


রূপচর্চা

স্বাস্থ্যকর খাবারে সুন্দর চুল

২১ মে, ২০১৮ ০০:০০



স্বাস্থ্যকর খাবারে সুন্দর চুল

সুন্দর চুলের জন্য স্বাস্থ্যকর খাবারের বিকল্প নেই। পরিপূর্ণ পুষ্টি জোগাতে হবে ভেতর থেকে। পেট পরিষ্কার না থাকলে তার প্রভাব পড়ে চুলেও। এ বিষয়েও পরামর্শ দিয়েছেন রূপবিশেষজ্ঞ আফরোজা পারভীন। লিখেছেন মারজান ইমু

 

রোজার খাদ্যতালিকায় ইফতার সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। একেবারে অনেক ধরনের খাবার না খেয়ে ইফতারের মেন্যুকে দুই ভাগে ভাগ করে নিতে হবে। ইফতার শুরু হবে তরল এবং সহজপাচ্য খাবারে। ১ গ্লাস শরবত বা ফলের জুস এবং ২টি খেজুর দিয়ে ইফতার শুরু করুন। ইফতারের প্রথম ধাপে আরো থাকতে পারে দই-চিঁড়া। সঙ্গে বিভিন্ন মৌসুমি ফল পেঁপে, কলা, আপেল ইচ্ছামতো মেশাতে পারেন। এতে ইফতারের পুষ্টিমান যেমন বাড়বে, তেমনি হজমেও গণ্ডগোল হবে না। দই-চিঁড়ার বদলে ওটস সিদ্ধ করে পছন্দমতো ফল ও বাদাম মিশিয়ে খেতে পারেন। সবশেষে আধা গ্লাস কুসুম গরম পানিতে ১ টেবিল চামচ ইসবগুল মিশিয়ে খান। এরপর এক ঘণ্টার বিরতি দিন। এই বিরতিতে পানি, শরবত বা জুস খেতে পারেন। ইফতারের পরের পর্বে মুড়ি মাখা, ভাজাভুজি, বার্গার, পাস্তা যা খুশি খান। তবে অবশ্যই অল্প পরিমাণে। তেলে ভাজা খাবারের বদলে স্টিমফুড ইফতারের আদর্শ। মোমো, পাস্তা, স্টিমড মিক্সড ভেজিটেবল খাওয়ার পরামর্শ দিলেন আফরোজা পারভিন। ইফতারের মেন্যুতে আরেকটি বিষয় মাথায় রাখুন। পানির পাশাপাশি প্রচুর পানীয় ও তরল খাবার রাখতে হবে। তাজা ফলের জুস, লাচ্ছি, স্যুপ, শরবত, স্মুদি খান। ইফতার পর্ব এখানেই শেষ।

এরপর তিন ঘণ্টা বিরতি দিয়ে রাতের খাবার। রাতের খাবারে এক কাপের বেশি ভাত খাবেন না। অথবা দুটি আটার রুটি। সঙ্গে ২ টুকরা মাছ বা মুরগির ঝোল, ডাল ও সবজি খান। রাতে শোবার আগে ১ গ্লাস ফ্যাট ফ্রি দুধ খাওয়া উচিত। ফ্যাট ফ্রি দুধ না পেলে দুধের সর বাদ দিয়ে খেতে হবে। সাহরিতে মেন্যু হবে রাতের মতো। তবে সাহরিতে ফ্যাটজাতীয় খাবার একেবারে বাদ দিয়ে প্রোটিনজাতীয় খাবার বেশি করে খেতে হবে। প্রোটিন শরীরকে দীর্ঘসময় কর্মক্ষম ও ক্লান্তিহীন রাখতে সাহায্য করে। মাংস খেতে চাইলে রেড মিট অর্থাৎ গরু বা খাসির মাংসের বদলে হাঁস, মুরগি, কবুতর বা কোয়েল পাখির মাংস খেতে পারেন। ইফতারে ১ বাটি টক দই শরীরের জন্য ভালো এবং ত্বক আর চুলের জন্য দারুণ উপকারী।

খাবারের পাশাপাশি রোজায় একটু বাড়তি নজর দিতে হবে চুলের দিকে। সপ্তাহে ৩ দিন নারিকেল তেল কুসুম গরম করে চুলের গোড়া থেকে আগা পর্যন্ত ভালো করে লাগান। সম্ভব হলে গরম পানিতে তোয়ালে ভিজিয়ে মাথায় পেঁচিয়ে রাখুন ৫ মিনিট। এরপর শ্যাম্পু করে ফেলুন। শ্যাম্পুর পর অবশ্যই কন্ডিশনার লাগাতে হবে। সপ্তাহে এক দিন চুলে প্যাক লাগাতে পারেন। প্রথমে তেল গরম করে চুলে ম্যাসাজ করুন। এরপর আধা কাপ পাকা পেঁপে, ২ টেবিল চামচ টক দই ও ২ টেবিল চামচ মধু মিশিয়ে প্যাক তৈরি করুন। সমস্ত চুলে লাগিয়ে শাওয়ার ক্যাপ পরে নিন। আধা ঘণ্টা পর শ্যাম্পু করুন। চুল ভেতর থেকে সুস্থ রাখতে খাদ্য তালিকায় সামুদ্রিক মাছ, সবুজ শাক, বাদাম ও বিচিজাতীয় খাবার রাখুন।

 

 


মন্তব্য